বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবনায় ছাত্রদলের কমিটি বাতিল এবং যোগ্য ও মেধাবীদের নিয়ে নতুন কমিটির দাবিতে বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দের পদত্যাগ  » «   পবিত্র হজকে রাজনীতির হাতিয়ার বানিয়েছে সৌদি  » «   চুয়াডাঙ্গায় সাপের কামড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু  » «   সিটি নির্বাচন ১৭ প্রার্থীর সাক্ষাৎকার নিয়েছে বিএনপি  » «   বৃদ্ধ মাকে মারধর, যে পরিণাম হল সন্তানের  » «   এমপিপুত্র শাবাবকে ‘শনাক্তে’ পুলিশের হাতে সিসিটিভি ফুটেজ  » «   জেনে নিন শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজার ফজিলত  » «   মৃত্যুভয়ে ১১ তলা পাইপ বেয়ে নামে শিশুটি  » «   বিএনপির কর্মীরা এখন ঢাকায় রিকশা চালায় : ফখরুল  » «   দীপিকা-রণবীরের বিয়ের দিনক্ষণ ফাঁস!  » «   জনপ্রিয়তা বেড়েছে বিটিভির  » «   দিনদুপুরে পার্কে গণধর্ষণ, সেনাবাহিনী ঘিরে ফেলে পার্ক এলাকা  » «   ফের দক্ষিণের ১৫ রুটে বাস চলাচল বন্ধ  » «   স্বামী-সন্তানের স্বীকৃতির দাবিতে প্রবাসী স্ত্রীর অনশন  » «   সাবেক প্রেমিকা কোপাল বর্তমান প্রেমিকাকে!  » «  

মাত্র ৬ বছরেই ‘ভয়ঙ্কর পৃথীবি’ দেখে গেল নীলিমা!



নিউজ ডেস্ক::পৃথিবীর আলো বাতাসের সংস্পর্শে এসেছে ছয় বছর হলো। ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে সমাজের সুবিধার বাহিরে বেড়ে উঠছিল নীলিমা (৬)। লোভ-লালসার উর্ধ্বে ছিল তার পথ চলা। ছোট্ট এ বয়সেই জায়গা হয়েছিল পথ শিশুদের তালিকায়। তারপরও জীবনের নিরাপত্তা পায়নি শিশুটি। এলাকার বখাটে কিশোরের হাতে নির্মম যৌন হয়রানীর শিকার হয়ে প্রাণ দিতে হলো শিশুটিকে। শিশুটির কাঁটা ছেঁড়া করা নিথর দেহ আবারও জানিয়ে দিয়ে গেল আমরা হয়তো সামাজিক নৈতিক অবক্ষয়ের শিকার।

গত বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাতে এমন একটি হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার আবদার গ্রামে। এঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে রাতেই আবদার গ্রামের কাজিম উদ্দিনের ছেলে মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র পারভেজ (১১) কে গ্রেপ্তার করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ।

শিশুটির বাবাও হতদরিদ্র পরিবারের। অভাবের তাড়নায় টিকতে না পেরে নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার একটি গ্রাম থেকে শ্রীপুরের আবদার গ্রামে পুরো পরিবার নিয়ে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকত। একই সাথে এলাকা ঘুরে ঘুরে পরিত্যক্ত বিভিন্ন মালামাল সংগ্রহ করতো। এ থেকে যা আয় হত তা দিয়ে কোন মতে দিন চলত। দুই ভাইয়ের একমাত্র বোন ছিল শিশুটি। শিশুটিও বাবাকে সাহায্য করার জন্য ছয় বছর বয়সেই এলাকা ঘুরে বিভিন্ন জায়গায় ফেলে রাখা পরিত্যক্ত মালামাল সংগ্রহের কাজ করত। পরিবারের একমাত্র কন্যা সন্তানকে হারিয়ে মা এখন পাগল প্রায়। শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় কিছুক্ষণ পর পর চেতনা হারিয়ে ফেলছেন মা। চেতনা ফিরে আসলে মায়ের গগণ বিদারী আহাজারিতে আশপাশের পরিবেশ ভারী হয়ে আসছিল।

শিশুটির স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সারাদিন কাজ শেষে শিশুটি সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে আসে। এসময় ঢাকার একটি মাদ্রাসায় পড়ুয়া আবদার গ্রামের কাজিমউদ্দিনের ছেলে পারভেজ শিশুটিকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর থেকে শিশুটির আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। এসময় শিশুটির স্বজনেরা তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। এরই এক পর্যায়ে প্রতিবেশীরা রাত দশটার দিকে বাড়ির পাশের এক গলিতে তার রক্তমাখা দেহ দেখতে পান। পরে শ্রীপুর থানায় সংবাদ দেয়া হলে রাতেই পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন।

শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) মো: মনিরুজ্জামান মিয়া জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এদিকে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পারভেজকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: