শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
যমুনা নদীতে বিলীন হচ্ছে বসত বাড়ি, দেখার কেউ নেই!  » «   নতুন চলচ্চিত্রের জন্য ইরানে অনন্ত  » «   নেইমারের জার্সি গায়ে অপু ও জয়  » «   সিসিক নির্বাচন: আ.লীগ মেয়র প্রার্থী হলেন কামরান  » «   বাসায় ঢুকে অভিনেত্রীকে শ্লীলতাহানি!  » «   আর্জেন্টিনার হার, বেরিয়ে এলো বিস্ফোরক তথ্য!  » «   দুর্ঘটনা সড়কে মৃত্যুর মিছিল, নিহত ৩০, আহত ৪৭  » «   ‘নির্বাচনে জয়ী হতে গিয়ে যেন দলের বদনাম না হয়’  » «   হাসপাতালে পরীমনি  » «   আর্জেন্টিনার হার, ‘সুইসাইড নোট’ লিখে নিখোঁজ মেসি ভক্ত  » «   সাপাহারে ট্রাক ও ভ্যানের মুখো-মুখি সংঘর্ষে নিহত-২  » «   দুর্ঘটনার দিন ঢাকাতেই ছিলাম না’  » «   ভক্তদের হতাশ করেনি ব্রাজিল : অতিরিক্ত সময়ই বিশ্বকাপে টিকিয়ে রাখল নেইমারদের  » «   হাসপাতালের এক্সরে রুমে রোগীর মাকে ধর্ষণের চেষ্টা!  » «   গজারী বনে যুবতীর অর্ধগলিত লাশ  » «  

মাত্র চার হাজার টাকায় কন্যা শিশুকে বিক্রি!



নিউজ ডেস্ক::একদিকে অভাব ও অন্যদিকে একাধিক কন্যা সন্তান, এ কারণে নবজাতক শিশুকন্যাকে বিক্রি করে ক্লিনিকের পাওনা পরিশোধ করল খুলনার পাইকগাছার এক দম্পতি। খুলনার পাইকগাছা ফারিন হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ১২ ডিসেম্বর স্মরণখালী গ্রামের দিলিপ সরদারের স্ত্রী এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়। এর পূর্বে এ পরিবারে আরও ৩টি কন্যা সন্তান থাকায় নবজাতকের প্রতি চরম অবহেলা ও অযত্ন দেখা দেয়। এমনকি জন্মের পরে তাকে বুকের দুধও পর্যন্ত দেয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

বিষয়টি জানার পর পৌরসভার সরল গ্রামের লক্ষ্মণ সরদারের স্ত্রী কবিতা রাণী সরদার সকালে সেই হাসপাতালে গিয়ে খোঁজ-খবর নিয়ে শিশুটি নেয়ার জন্য আগ্রহ দেখায়। এক পর্যায়ে শিশুটির পিতা-মাতা ক্লিনিকের টাকা পরিশোধের দাবি করে। কবিতা রাণী ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ৪ হাজার ২০০ টাকা পরিশোধ করে শিশু সন্তানটি নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে শিশুটির পিতা দিলিপ জানান, অভাবের কারনেই শিশুটি বিক্রি করতে হয়েছে। এদিকে লক্ষ্মণ চন্দ্র সরদার জানান, তাদের কোন সন্তান না থাকায় শিশুটিকে পেয়ে তারা অনেক খুশি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: