মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে যারা হলেন ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান  » «   সালাম দিয়ে পার্লামেন্টে বক্তব্য শুরু করলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী  » «   ক্রাইস্টচার্চে নিহতদের শোকসভায় তোপের মুখে চেলসি ক্লিনটন  » «   রাজধানীতে বাসচাপায় বিইউপির ছাত্র নিহত, সড়ক অবরোধ  » «   সুনামগঞ্জে আ. লীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, আটক ৩  » «   বিয়ানীবাজারে পল্লবের অর্ধেক ভোটও পাননি নৌকার আতাউর  » «   উপজেলা নির্বাচন: গোলাপগঞ্জে কে পেলেন কত ভোট  » «   একতরফা নির্বাচন গণতন্ত্রের জন্য অশনিসংকেত: মাহবুব তালুকদার  » «   উপজেলা নির্বাচন: দ্বিতীয় ধাপের ভোট গ্রহণ শেষ, চলছে গণনা  » «   পুলিশ কেন জনগণের বন্ধু নয়?  » «   ভোটার শূন্য ভোটকেন্দ্রে, দোল খাচ্ছেন নিরাপত্তা কর্মীরা  » «   অসুস্থতার কারণে খালেদা জিয়ার গ্যাটকো মামলার শুনানি পিছিয়েছে  » «   বাংলা ভাষার বঙ্গবন্ধু’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   চাঁদপুরের ৫০০ বছরের পুরনো মসজিদ সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত  » «   কাঙালের ধন চুরি…  » «  

মাত্রাতিরিক্ত ঘুম প্রাণের ঝুঁকি বাড়ায়?



লাইফস্টাইল ডেস্ক::কর্মব্যস্তময় সপ্তাহের ছয়দিন কাটানোর পর এক দিন ছুটি পেয়ে কেউ আর ওই দিন বাহিরে যেতে চান না। অনেকেই বাড়িতে শুয়ে বসেই দিনের অধিকাংশ সময়টা কাটাতে চান। ছুটির এ দিনটিতে অনেকেই হয়তো ৫-৬ ঘণ্টার পরিবর্তে ৯-১০ ঘণ্টা ঘুমিয়েই কাটিয়ে দেন। কিন্তু এই অলসতা কি শরীরের জন্য ভাল? দিনে কত ঘণ্টা ঘুম উচিত?

বিশেষজ্ঞদের মতে, দিনে ৬ ঘণ্টা ঘুমই যথেষ্ট। কিন্তু দিনে যারা ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমান তাদের বিপদের আশঙ্কা অনেকটাই বেশি থাকে।

এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, মাত্রাতিরিক্ত ঘুম মোটেই স্বাস্থ্যের জন্য ভাল নয়। উল্টো মারাত্মক ক্ষতিকর। বিশেষজ্ঞদের মতে, মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ফলে ডায়বেটিস এমনকি হার্টের নানা রোগের সম্ভাবনা বহু গুণ বেড়ে যায়।

সাম্প্রতিক সময়ের কয়েকটি গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, অতিরিক্ত ঘুম ধূমপান বা মদ্যপানের মতোই ক্ষতিকর।

সপ্তাহ শেষে এক দিন ছুটি পেলে অধিকাংশ মানুষই খাওয়া দাওয়া আর ঘুমের সময়ের কোনো ঠিক থাকে না। এমন অভ্যাস দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকলে তা বিপদ ডেকে আনতে পারে অনায়াসেই।

এ নিয়ে বেশ কয়েকটি মার্কিন গবেষণার রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের ফলে অবসাদ, স্মৃতি বিস্মরণের সমস্যা, মনঃসংযোগের অভাব, হাইপারটেনশনের মতো সমস্যাগুলিও ক্রমশ বৃদ্ধি পায়। যারা হাঁটা-চলা কম করেন বা দিনের বেশিরভাগ সময় বসে কাটান তাদের বিপদের আশঙ্কা আরো বেশি।

তাই সুস্থ থাকতে হলে অলসতা দূর করুন। বিশেষ করে মাত্রাতিরিক্ত ঘুমের অভ্যাস বর্জন করুন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: