শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘অন্তরঙ্গ দৃশ্য প্রয়োজন ছিল তাই করেছি’  » «   মিশরে জুমার নামাজে হামলা, নিহত ৫৪  » «   কুবিতে বিজ্ঞাপনের গেইট, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ  » «   কুমিল্লায় যুবককে হত্যা, সাবেক ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ২  » «   ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে ট্রেনচালক নিহত  » «   ভুল চিকিৎসায় মা ও নবজাতকের মৃত্যু, ডাক্তার পলাতক  » «   বারী সিদ্দিকীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক  » «   আজ থেকে বিপিএল উৎসব চট্টগ্রামে  » «   সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী বদরুজ্জামান সেলিমের সমর্থনে যুক্তরাজ্যে মতবিনিময়  » «   রুশ বিপ্লবের শতবর্ষে ওয়ার্কার্স পার্টির লাল পতাকা মিছিল  » «   গাছ ভর্তি ট্রাক জব্দ  » «   গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় কৃষকের মৃত্যু  » «   কমলগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে খাসি (খাসিয়া) বর্ষ বিদায় উৎসব পালন  » «   জেনে নিন মিস ওয়ার্ল্ড মানুসীর ডায়েট প্লান!  » «   ধর্ষণের শিকার হয়ে পাঁচ শিক্ষার্থীর পড়াশোনা বন্ধ!  » «  

মরমি কবি রাধারমণ দত্তের প্রয়াণ দিবস আজ



মো. আব্দুল হাই ::সুনামগঞ্জ জেলার একটি অন্যতম থানা হচ্ছে জগন্নাথপুর। বাংলা মরমি সাহিত্যের অব্যাহত ধারায় এ থানার অবদান অপরিসীম। সারা দেশের ন্যায় জগন্নাথপুরের বুকেও বহু পীর, দরবেশ, সাধু সাধক, সন্ন্যাসী জন্ম গ্রহণ করেছেন এবং তাদের বাণীর মাধ্যমে এ দেশকে পুণ্যভূমিতে পরিণত করেছেন। সুফিসাধকরা তাদের ধারায় মরমি সাহিত্যের সম্পদ রেখে গেছেন। যা গবেষণার বিষয় হয়ে রয়েছে। তারা চিত্তবিত্তের এই সুরময় ভুবনে পদচারণা করে নিজস্ব সৃষ্টি ধারায় মরমি সাহিত্যের যে অমিয় প্রবাহ বইয়ে দিয়েছিলেন, তা আজও দেশের মাটি ও বাতাসে অপূর্ব ব্যঞ্জনার সৃষ্টি করে চলেছে।

মরমি কবি রাধারমণ দত্ত জন্মগ্রহণ করেন ১৮৩৩ খ্রিষ্টাব্দে অর্থাৎ, বাংলা ১২৪০ সালে জগন্নাথপুর থানার কেশবপুর গ্রামে। তিনি রাধাকৃঞ্চ প্রেমতত্ত্ব বিষয়ক গান রচনা করে সিলেট, ময়মনসিংহ ও ভারতের কাছাড় জেলাসহ বিভিন্ন স্থানে এখনও অমর হয়ে রয়েছেন। রাধারমণ হাছনরাজা থেকে বয়সে প্রায় ১৪/১৫ বছরের বড় ছিলেন। তা সত্ত্বেও তাদের মধ্যে খুব হৃদ্যতা ছিল। প্রবাদ রয়েছে যে, হাছনরাজা পত্রমারফত রাধারমণকে তার সুনামগঞ্জের তেঘরিয়াস্থ বাড়িতে দাওয়াত করেছিলেন। তিনি কবিতার ভাষায় আহবান করেছিলেন “রাধারমণ আছো কেমন, হাছন রাজা জানতে চায়”। পত্র প্রাপ্তির পরে রাধারমণ তার সাথে মিলিত হওয়ার জন্য প্রস্তুতি হলেও কি একটা অসুবিধা ঘটায় হাছনরাজার সাথে মিলিত হতে না পেরে লিখেছিলেন “গানের সেরা রাজা হাছন, পেলাম না তার চরণ দর্শন, বিফলে দিন গেল গইয়া”। অধ্যক্ষ দেওয়ান মোহাম্মদ আজরফের ভাষায় ‘সিলেটের আকাশ বাতাস বাউল গানের সুরের দ্বারা যিনি আকুলিত ও ব্যাকুলিত করেছিলেন তিনি হচ্ছেন জগন্নাথপুরের রাধারমণ।’
রাধারমণ সংগীতের কয়েকখানা বই বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত হয়েছে। মুন্সী আশরাফ হোসেন সাহিত্যরতœ “রাধারমণ সংগীত” নামে ও সুনামগঞ্জের মরহুম আব্দুল হাই ভাইবে রাধারমণ বলে নামে বই প্রকাশ করেছেন। প্রখ্যাত লোকতত্ত্ববিদ চৌধুরী গোলাম আকবর সাহিত্য ভূষণের প্রায় চল্লিশ বছরের সংগ্রহের গানগুলো নিয়ে মদনমোহন কলেজ সাহিত্য পরিষদ একটি বই প্রকাশ করে। এতে তিন শতাধিক গান স্থান পায়। রাধারমণের বেশকিছু গান বাংলা একাডেমির সংগ্রহেও রয়েছে। সংগ্রাহকদের মতে রাধারমণ সংগীতের সংখ্যা ২/৩ সহ¯্রাধিক হবে। রাধারমণ দত্ত শিল্পী, সুরকার ও একজন ভালো অভিনেতা ছিলেন বলে জানা গেছে। রাধারমণ সম্পর্কে অনেক অলৌকিক কথাও লোকমুখে শোনা যায়।
রাধারমণ ভাবে বিভোর হয়ে গান রচনা করতেন। শিষ্যরা শুনে তা লিখে রাখতেন। তিনি তত্ত্বসংগীত, দেহতত্ত্ব, ভক্তিমূলক, অনুরাগ, প্রেম, ভজন, বিরহ, আক্ষেপ, মান, ধামাইল ইত্যাদি বিভিন্ন শাখার গান রচনা করতেন। বাংলাদেশ ও ভারতের বেতার ও টেলিভিশন রাধারমণের গান প্রায় সময় প্রচার করে চলচ্চিত্রেও রাধারমণের বেশ কিছু গান সংযোজিত হয়েছে।
রাধারমণ দত্ত প্রায় ৮২বছর বয়সে ১৯১৬ খ্রিষ্টাব্দে অর্থাৎ ১৩২২ বাংলার ২৬ কার্তিক শুক্রবার মরদেহ ত্যাগ করেন। বৈঞ্চন পদাবলির মহারাজা মরমিসাধক কবি রাধারমণ দত্তের ১০২তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। রাধারমণ সমাজ কল্যাণ সাংস্কৃতিক পরিষদ কর্তৃক রাধারমণ দত্তের জন্ম মাটি জগন্নাথপুর পৌর শহরের কেশবপুর বাজার এলাকায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রথম পর্বের আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি থাকবেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাবিরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগ সুনামগঞ্জ জেলার প্রবীণ নেতা সিদ্দিক আহমদ।
প্রথম পর্বের আলোচনাসভায় সভাপতিত্বে করবেন জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ। দ্বিতীয় পর্বের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন রাধারমণ সমাজ কল্যাণ সাংস্কৃতিক পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. জিলু মিয়া। সংগীত পরিবেশন করবেন বাউলশিল্পী শাহ মো. হারুন মিয়া, লন্ডন প্রবাসী গীতিকার শাহ ইয়াওর মিয়া, ঢাকার বাবলী সরকার, গীতিকার মাজহারুল ইসলাম জীবন, ক্লোজ আপ সেরা কন্ঠশিল্পী লায়লা, চ্যানেল আইর সেরা কন্ঠশিল্পী জগন্নাথপুরের বুশরা আক্তার ঝুমু, ফয়ছল গনী শাহ্ ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: