মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ থেকে ইভিএম: ইসি সচিব  » «   হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি হিজড়াদের  » «   সব বাধা উপেক্ষা করে গণশুনানি করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   অভিজিৎ হত্যা: অব্যাহতি পাচ্ছেন সাতজন, আসামি ছয়  » «   অনুমোদিত ৩টি ব্যাংক সম্পর্কে তেমন কিছু জানেন না অর্থমন্ত্রী  » «   ডাস্টবিনে নেমে ১৫০০ শিক্ষার্থীকে বাঁচানোর আহ্বান  » «   একাদশ সংসদের এমপিদের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ  » «   শামীমাকে যা বুঝিয়ে সিরিয়ায় নিয়ে গিয়েছিল আইএস  » «   নিজেই গাড়ি চালিয়ে যুবরাজকে বাসভবনে নিয়ে গেলেন ইমরান খান  » «   আরব আমিরাত ও বাংলাদেশর মধ্যে ৪টি সমঝোতা স্মারক সই  » «   সংঘর্ষ চলছে, পুলওয়ামা হামলার মূল হোতা নিহত  » «   এক দিন বাড়ল দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা, আখেরি মোনাজাত মঙ্গলবার  » «   শুধুমাত্র আইন দিয়ে দুর্নীতি দমন করা যায় না: আইনমন্ত্রী  » «   জামায়াতের সবারই রাজ্জাকের মতো ভুল ভাঙা উচিত: ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ  » «   সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জা‌নি‌য়ে মোদিকে শেখ হাসিনার বার্তা  » «  

মদ-গাঁজা নয়, নেশা জমছে স্যানিটারি ন্যাপকিনে!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: নেশার কথা বললে সাধারণত আমাদের মাথায় যে জিনিসগুলো আসে তা হল সিগারেট, বিড়ি, মদ, গাঁজা। একটু বড় মাত্রায় ভাবলে হেরোইন, কোকেন ইত্যাদি। সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়ার যুবকরা নেশার জন্য যে দ্রব্য ব্যবহার করছে, তা শুনলে আপনার চোখ কপালে উঠতে পারে। স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার করে নেশা করছে তারা।

প্রথমে স্যানিটারি ন্যাপকিনকে গরম পানিতে প্রায় এক ঘণ্টা ধরে ফুটিয়ে নেয়া হয়। তারপর ন্যাপকিনটিকে ফেলে দিয়ে ঠাণ্ডা করা হচ্ছে ফুটন্ত পানিকে। তিক্ত স্বাদের সেই পানি পান করছে ইন্দোনেশিয়ার একদল মানুষ।

তাদের দাবি, এই ন্যাপকিনের পানি পান করার পর তাদের আকাশে ভেসে থাকার অনুভূতি হচ্ছে! নেশার জন্য তারা ব্যবহৃত ও অব্যবহৃত দু’ধরনের ন্যাপকিনই ব্যবহার করছে।

এই ভয়ঙ্কর নেশা নিয়ে প্রথম সারির সংবাদপত্র ও প্রশাসনের তরফে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। দেশের সংবাদমাধ্যমগুলিতে কটাক্ষ করে বলা হয়েছে ‘বৈধ নেশার দ্রব্য’।

এমনিতে স্যানিটারি ন্যাপকিন বাজারে সহজ লভ্য। দামেও যথেষ্ট সস্তা। তাই তা থেকে ঘরে বসেই যদি নেশার প্রয়োজনীয় উপকরণ বানিয়ে নেওয়া হয়, তাহলে তো চিন্তার যথেষ্ট কারণ থেকেই যায়।

গত সপ্তাহ থেকে এরকম নেশায় আচ্ছন্ন বেশ কয়েক জনকে গ্রেফতার করেছে সে দেশের পুলিশ। আটকদের থেকেই নেশা করার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পেয়েছে প্রশাসন।

ইন্দোনেশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, ফোটানোর ফলে ন্যাপকিনে ব্যবহৃত রাসায়নিক পানিতে মিশে যাচ্ছে। তাই তা পান করলে এরকম বিশেষ অনুভূতির সৃষ্টি হচ্ছে। কোন রাসায়নিক দ্রব্য থেকে এরকম নেশা হচ্ছে তা জানার জন্য পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: