রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী‘আসল প্রশ্নফাঁসকারী তো শিক্ষক’  » «   আগামী ২০ ডিসেম্বর তৈমুরের জন্মদিন : চলছে রাজকীয় আয়োজন  » «   কার চাপায় যুবক নিহত  » «   বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু  » «   ঘন কুয়াশার কারণে ঢাকায় বিমান চলাচল বন্ধ  » «   হোটেলে যখন একা, তখন মেনে চলুন কিছু বিষয়!  » «   এবার মাত্র ২০০০ টাকার মধ্যে স্মার্টফোন  » «   আ’লীগের আলোচনা সভা বিকেলে  » «   অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার  » «   মেয়েকে দিয়েই অন্য মেয়েদের ফাঁদে ফেলতেন এই বাবা!  » «   বিজয় দিবসে দুর্বৃত্তদের পেট্রোল বোমায় দগ্ধ ২  » «   ফ্রান্স দূতাবাসে বিজয় ও আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত  » «   সামান্য সেলফির জন্যই বিপদে পড়লেন দেশ সেরা সুন্দরী!  » «   ফিলিস্তিনি ধনকুবেরকে আটক করেছে সৌদি  » «   সেনা কর্মকর্তার বাসা থেকে কিশোরী গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার  » «  

মঙ্গলবার আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া



নিউজ ডেস্ক::জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন নিতে মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিশেষ আদালতে যাবেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

সোমবার (৪ নভেম্বর) সকালে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, খালেদা জিয়া মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করবেন। মঙ্গলবার বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫নং বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামানের আদালতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় যুক্তি উপস্থাপন এবং জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার সাফাই সাক্ষীর দিন ধার্য রয়েছে।

এর আগে ৩০ নভেম্বর আদালতে হাজির না হওয়ায় জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির দুই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। এই দিন আদালতে খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থন করে বক্তব্য দেওয়ার কথা ছিল।

এর আগে ২৩ নভেম্বর অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ষষ্ঠ বারের মতো আত্মপক্ষ সমর্থন করে এক ঘন্টা লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান খালেদা জিয়া। এ ছাড়া খালেদা জিয়ার পক্ষে করা স্থায়ী জামিনের আবেদন দাখিল করা হলে ফের তা নাকচ করেন আদালত।

গত ১৫ জুলাই খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য লন্ডনে যান। তিনি লন্ডনে অবস্থানকালেই গত ১২ অক্টোবর আদালত দুর্নীতির দুই মামলায় তার জামিন বাতিল করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। তিন মাস চিকিৎসা শেষে দেশে ফেরার পরদিন গত ১৯ অক্টোবর এই দুই মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পান খালেদা জিয়া।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়। খালেদা ছাড়াও এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক সংসদ সদস্য ও ব্যবসায়ী কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও জিয়াউর রহমানের বোনের ছেলে মমিনুর রহমান।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: