বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শুক্রবার শ্রীলঙ্কার মসজিদে হামলার হুমকি, নিরাপত্তা জোরদার  » «   মোটরসাইকেলে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু  » «   প্রেসক্রিপশন ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রিতে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা  » «   নুসরাত হত্যা: তদন্তে বেরিয়ে আসছে পুলিশ কর্মকর্তাদের গাফিলতি  » «   সিলেটের সীমান্ত দিয়ে ঢুকছে রোগাক্রান্ত ভারতীয় গরু  » «   খালেদা জিয়া সরকারের আইনগত সহায়তা পাওয়ার যোগ্য নন: আইনমন্ত্রী  » «   পরীক্ষাকেন্দ্রে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ইনস্ট্রাক্টর কারাগারে  » «   নিউজিল্যান্ডের পার্মানেন্ট ভিসা পাচ্ছেন মুসলিমরা!  » «   জাফর ইকবাল হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন মহানগর হাকিম হরিদাস কুমার  » «   কান্নাজড়িত কণ্ঠে স্ত্রী-সন্তান হারানোর বর্ণনা দিলেন সুদেশ  » «   বহুদিন গোসল না করে অফিস করেছি: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী  » «   দল বহিষ্কার করতে পারে জেনেই শপথ নিয়েছি: জাহিদুর রহমান  » «   এবার শ্রীলঙ্কায় আদালতের পাশে বোমা বিস্ফোরণ  » «   কবরের জন্য জমি চাইলে বন্দেমাতরম বলতেই হবে: বিজেপি  » «   এবার শপথ নিচ্ছেন বিএনপির জাহিদুর  » «  

ভোটার উপস্থিতি নিয়ে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টই শুধু প্রশ্ন তুলছে: তথ্যমন্ত্রী



নিউজ ডেস্ক:: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিলে নিশ্চয় আরো বেশি ভোটার উপস্থিতি হতো। তবে বিএনপি যেভাবে নির্বাচন থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে তাতে রাজনীতি থেকে তাদের একেবারেই পালাতে হয় কি না তা নিয়ে আমার শঙ্কা হচ্ছে।আজ সোমবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এবার উপজেলা নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ছিল ৪০ শতাংশের বেশি। আমি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে কথা বলেছি। ইসি এটা বলেছে। ভোটার উপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয় কেবল বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট থেকে।

তিনি বলেন, বিএনপি সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে। বিএনপির নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত ছিল আত্মহননের সিদ্ধান্ত। এ ছাড়া নির্বাচনে অংশ নিলেও সক্রিয় না থাকা তাদের বড় সমস্যা। একটি গণমুখী দল নির্বাচনে অংশ না নিয়ে কিভাবে টিকে থাকে। এখন বিএনপিকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে তারা কি গণমুখী দল হিসেবে টিকে থাকবে। নাকি গণবিচ্ছিন্ন দল হয়ে থাকবে।

‘সরকার বিএনপি এবং ঐক্যফ্রন্টকে ভাঙতে চেষ্টা করছে’ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন,ঐক্যফ্রন্ট হলো তেল এবং পানির মিশ্রণের মতো।এটিকে ভাঙার কোনো প্রয়োজন বা উদ্যোগ কোনোটারই প্রয়োজন নেই।

তিনি আরো বলেন, আমরা চাই বিএনপি টিকে থাকুক এবং গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকুক। কিন্তু তারা টিকে থাকার মতো কাজ করছে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: