মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রাজমিস্ত্রি সেজে খুনি ধরলেন এসআই লালবুর রহমান!  » «   আগামী ৫ জুন পবিত্র ঈদুল ফিতর!  » «   বাংলাদেশের সঙ্গে ঝামেলা করতে চাচ্ছে পাকিস্তান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   লুটপাটের উন্নয়নের কথা শুনতে শুনতে জনগণ অতিষ্ঠ: রিজভী  » «   শ্লীলতাহানির বিচার না পেয়ে কিশোরীর আত্মহত্যা, ওসি প্রত্যাহার  » «   ৩৪ পয়েন্টে ওয়াসার পানি পরীক্ষার নির্দেশ  » «   যেভাবে গণনা হবে ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ভোট  » «   ঋণখেলাপিদের গণসুবিধার নীতিমালায় স্থিতি অবস্থার আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট  » «   স্বামী- স্ত্রী পরিচয়ে পতিতাবৃত্তি, সাংবাদিক পরিচয়ে ব্লাকমেইল!  » «   পাকিস্তানের নাগরিকদের ভিসা বন্ধ করল বাংলাদেশ  » «   সৌদি আরবের মক্কা ও জেদ্দা নগরীতে হুতিদের মিসাইল হামলা  » «   সারাদেশের পাস্তুরিত দুধ পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট  » «   আত্মহত্যাচেষ্টার আগে শোভন-রাব্বানীর উদ্দেশে ফেসবুকে যা লিখলেন দিয়া  » «   এক সময়ের কোটিপতি এখন ভাঙারি দোকানের শ্রমিক!  » «   বগুড়া-৬ আসনে বিএনপির মনোনয়ন দৌঁড়ে এগিয়ে সিরাজ  » «  

ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু, এলাকাবাসীর মানববন্ধন



নিউজ ডেস্ক:: বরিশাল নগরীর ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের ১ নম্বর সিএন্ডবি পোল এলাকায় ভুল চিকিৎসায় শিশু রিয়ানের মৃত্যুতে (৫ মাস ৪দিন) অভিযুক্তদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টায় নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে স্থানীয় এলাকাবাসীর উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

২৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর এনামুল হক বাহারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত কাউন্সিলর রেশমী বেগম, মো. শামীম হাওলাদার এবং নিহতের বাবা আলামিন হাওলাদার ও মা শাহানাজ বেগমসহ অন্যান্যরা।

মানববন্ধনে বক্তারা শিশু রিয়ানের মৃত্যুতে অভিযুক্ত শের-ই বাংলা মেডিকেলের শিশু বর্হিবিভাগের চিকিৎসক ডা. মাহমুদ হাসান খান এবং হাসপাতাল রোডের বেস্ট ফার্মেসীর ২ কর্মচারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত শিশু রিয়ানকে নিয়ে গত ৬ ফেব্রুয়ারি সকালে শের-ই বাংলা মেডিকেলের বর্হিবিভাগে যায় তার বাবা-মা। এ সময় ডা. মাহমুদ হাসান খান শিশুটির ব্যবস্থাপত্রে ইনহেলার লিখে দেন। একই সাথে তিনি হাসপাতাল রোডের বেস্ট ফার্মেসি থেকে ওই শিশুটিকে ইনহেলার দেওয়ার পরামর্শ দেন তার বাবা-মাকে। ওই দিন সন্ধ্যার পর আলামিন হাওলাদার এবং শাহানাজ বেগম শিশুটিকে হাসপাতাল রোডের বেস্ট ফার্মেসিতে নিয়ে যায়। ওই ফার্মেসির ২জন কর্মচারী শিশুটিকে ইনহেলার দেয়। এর কিছুক্ষনের মধ্যেই শিশুটি মারা যায়।

এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই শিশুটির বাবা আলামিন হাওলাদার বাদি হয়ে অভিযুক্ত চিকিৎসক মাহমুদ হাসান খান এবং বেস্ট ফার্মেসির দুই কর্মচারীকে আসামি করে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় এখনও কোন আসামিকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: