শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার খবরটি ‘টোটালি ফলস’  » «   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে: খাদ্যমন্ত্রী  » «   জামায়াত নতুন নামে পুরনো চরিত্রে ফিরে আসে কিনা তা ভাবনার বিষয়  » «   সুস্থ থাকলে শেখ হাসিনার বিকল্প দরকার নেই  » «   নন্দলালের ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন না: ইসি রফিকুল  » «   এমপি হিসেবে শপথ নিলেন সৈয়দ আশরাফের বোন ডা. জাকিয়া  » «   রোহিঙ্গাদের নৃশংসতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান মিয়ানমার সেনাপ্রধানের!  » «   যেসব শর্তে আত্মসমর্পণ করছেন ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ী  » «   নাসা আ্যপস চ্যালেঞ্জে বিশ্বসেরা শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়  » «   বাংলা একাডেমিতে আল মাহমুদের মরদেহ, শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে জোবায়ের অনুসারীদের ইজতেমা শেষ  » «   যেভাবে ভারতীয় সেনাবহরে হামলা চালায় জঙ্গিরা  » «   রোহিঙ্গা নিপীড়ন তদন্তে মার্চে বাংলাদেশ আসছে আইসিসি প্রতিনিধিদল  » «   ব্যাটিং ব্যর্থতায় সিরিজ হার বাংলাদেশের  » «   যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করলেন ট্রাম্প  » «  

ভালবেসে বিয়ে, কিভাবে এতটা নির্মম হয় রনিরা?



নিউজ ডেস্ক::প্রথমে কথা কাটাকাটি। তারপরে বাইক নিয়ে তাড়া করে স্ত্রীকে লক্ষ্য করে অ্যাসিড ছোড়ার অভিযোগ উঠল এক পাষণ্ড স্বামীর বিরুদ্ধে। বোনকে বাঁচাতে গিয়ে জখম হয়েছে ছোট বোনও। দু’জনেই হাসপাতালের বার্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বিকেলে কলকাতার নলহাটি পৌরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে। জামাই রনি শেখের বিরুদ্ধে নলহাটি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন আক্রান্তের বাবা। ঘটনার চব্বিশ ঘণ্টা পরেও অভিযুক্তের সন্ধান পায়নি পুলিশ।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা প্রতিবেদন আরও জানায়, দু’বছর আগে রনিকে ভালবেসে বিয়ে করে দিদি। বিয়ের পর থেকেই শাশুড়ি, শ্বশুর নানা ভাবে শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচার করত বলে অভিযোগ।

আক্রান্তের বাবার দাবি, শ্বশুরবাড়ির অত্যাচার সহ্য না করতে পেরে সাত দিন আগে মেয়ে বাড়ি পালিয়ে আসে। বৃহস্পতিবার বিকেলে বোনকে সঙ্গে নিয়ে বাজারে দুধের প্যাকেট কিনতে গিয়েছিল ওই কিশোরী। ফেরার পথে রনি পথ আটকায় বলে পরিবারের দাবি।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আক্রান্তের বোনের কথায়, দুলাভাই বোনকে সন্দেহ করে। এ দিন রাস্তার মধ্যেই শ্বশুরবাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য চাপ দিচ্ছিল। বোন বলেছিল, অত্যাচার আর সহ্য করতে পারবে না। তাই শ্বশুরবাড়ি আর যাবে না। তখন কথা কাটাকাটি হয়।

হাসপাতালের বেডে শুয়ে আক্রান্ত কিশোরী বলে, কথা বলার ফাঁকেই স্বামীর হাতে থাকা অ্যাসিডের বোতল থেকে কয়েক ফোঁটা অ্যাসিড বোনের হাতে পড়ে। বোন বুঝতে পেরে আমাকে সাইকেলের পিছনে বসিয়ে সাইকেল চালানো শুরু করে। পিছন থেকে রনি মোটরবাইকে এসে অ্যাসিড ছুড়ে দেয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: