শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ভাঙ্গনে অসহায় সাতকানিয়ার দ্বীপ চরতীর মানুষ



unnamed-11শহীদুল ইসলাম বাবর, সাতকানিয়া থেকে:: `আমাদের ঘর, ফসলী জমি, কবরস্থান, মাজার শঙ্খ নদে বিলীন হয়েছে। এখন একমাত্র মসজিদও ভাঙ্গার অপেক্ষায় রয়েছে। ভাঙ্গনে সর্বস্ব হারাচ্ছি আমরা, কাদঁছে গ্রামের মানুষ। এ কান্না যেন সরকারের কানে যাচ্ছেনা। আমরা অসহায়।’

কথাগুলো বলছিলেন  চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার চরতী ইউনিয়নের দ্বীপ চরতী গ্রামের বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য মনজুর আহমদ। শুধু মনজুর আহমদ নয় এলাকার আবাল বৃদ্ধ-বনিতা সকলের কথা এ রকমই।

অনুসন্ধানে জানা যায়, শঙ্খ নদীর উত্তর পাশ ঘেঁষেই অবস্থিত এ গ্রামটিতে এখন অন্তত ১০/১২ হাজার লোকের বসবাস। শিক্ষা ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকলেও যোগাযোগ ব্যবস্থা ও স্বাস্থ্য সেবার ক্ষেত্রে একেবারেই পিছিয়ে ।

সাতকানিয়ার মুল-ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন এ দ্বীপ চরতীকে গ্রাস করছে শঙ্খ নদীর তীব্র ভাঙ্গন। ইতিমধ্যে শঙ্খের করাল গ্রাসে বিলীন হয়েছে শত শত বসত ঘর, মাজার,কবরস্থান ও ফসলী জমি। আর ভাঙ্গনের মুখে রয়েছে  কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত একটি সুরম্য মসজিদ। বাড়ি ঘর হারিয়ে নিঃস্ব মানুষ গুলো এ মসজিদটি রক্ষার জন্য সরকারী-বেসরকারী উদ্যোক্তাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে। ইতিমধ্যে স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও ইউএনও ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরির্দশন করলেও আশার বাণী শুনিয়েছেন বার বার। প্রকৃতপক্ষে ভাঙ্গন রোধে কোন বাস্তব সম্মত উদ্যেগ এখনো পরিলক্ষিত হয়নি।

সরেজমিন দেখা যায়, এ গ্রামটি সাতকানিয়া উপজেলার  হলেও যোগাযোগ রক্ষা করতে হয় চন্দনাইশ উপজেলা হয়ে। সড়ক যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম বৈলতলী দ্বীপ চরতী সড়কের বেশ কিছু অংশ ভাঙ্গনের মুখে পড়ায় এ সড়কে যান চলাচল বন্ধ হওয়ার উপক্রম।

আরেকটু সামনে দৃষ্টি পড়তেই দেখা গেল ভাঙ্গনের মুখে থাকা বসত ঘরের মালিকরা গাছ পালা কেটে ও ঘরের মালামাল অন্যত্রে সরিয়ে নিচ্ছে। আবার অনেক পরিবার অত্যন্ত ঝুঁকি সত্ত্বেও অনেকটা ঝুপড়ি আকারে ঘর করে সেখানে বসবাস করছে। গ্রামের অনেক বৃদ্ধ লোকজন জড়ো হয়ে অত্যান্ত ঝুঁকির মুখে থাকা মসজিদটি ঘিরে কিভাবে রক্ষা করা যায় তার শলা পরামর্শ করছে। এ বৈঠকে গ্রামের যুবকরাও রয়েছে।

 

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: