রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

ব্রিটেনে বিতর্কিত টু চাইল্ড লিমিট আইন বাতিলের আবেদন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ট্যাক্স ক্রেডিট অথবা ইউনিভার্সেল ক্রেডিট প্রদানের সময় বহুল বিতর্কিত টু চাইল্ড লিমিট আইন বাতিলের আবেদন করেছে পার্লামেন্টের ক্রসপার্টি কমিটি। এই আবেদনকে স্বাগত জানিয়েছেন বাংলাদেশী অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসের নির্বাহী মেয়র জন বিগস।

হাউস অব কমন্সের ওয়ার্ক এন্ড পেনশন কমিটির মতে দুই সন্তানের এই বিধিবিধান সমাজের একটি অংশের উপর মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব ফেলেছে। আর এজন্য পার্লামেন্টের ওয়ার্ক এন্ড পেনশন কমিটি সরকারের কাছে এটি বাতিলের আবেদন জানায়।

উল্লেখ্য যে, দুই সন্তানের এই বিধিবিধান ২০১৫ সালে প্রথম ঘোষনা দেয়া হয় এবং বাস্তবায়ন করা হয় ২০১৭ সালের ৬ এপ্রিল থেকে। সেই সময় থেকে যারা ইউনিভার্সেল ক্রেডিট গ্রহন করেন তারা তৃতীয় বা তার চেয়ে বেশী সন্তানের জন্য অতিরিক্ত কোন বেনিফিট পান না। তার মানে হচ্ছে অতিরিক্ত সন্তানপ্রতি তারা ২,৭৮০ পাউন্ড প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হন।

দ্যা ইনস্টিটিউট অব ফিসক্যাল স্টাডিজ এর মতে বেনিফিট প্রদানের সময় এই দুই সন্তানের বিধিবিধান মানুষকে বিশেষ করে শিশুদের দারিদ্র্যতার দিকে ঠেলে দিচ্চেছ। এছাড়া আরো বেশকিছু কারনে এটি সমালোচিত একটি আইন। রেইপ বা ধর্ষন ক্লজ অনুযায়ী কেউ যদি অনাকাংখিতভাবে তৃতীয় বা তার বেশী সন্তানের অধিকারী হন তাহলে ডিপার্টমেন্ট ফর ওয়ার্ক এন্ড পেনশন এর কাছে সংশ্লিষ্ট মাকে প্রমাণ করতে হয় তার সম্মতি ব্যতিত তিনি মা হয়েছেন অথবা তাকে ধর্ষন করা হয়েছে।

টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল কতৃক কমিশনকৃত চাইহ্ব পোভার্টি একশন গ্রুপ সম্প্রতি তাদের এক রিপোর্টে জানিয়েছে ইউনিভার্সেল ক্রেডিট নামের নতুন বেনিফিট পদ্ধতি স্থানীয় কাউন্সিল, ভলান্টিয়ার সেক্টর এবং সোশ্যাল ল্যান্ডলর্ডদের উপর বাড়তি চাপের সৃষ্টি করেছে। তাই সংশ্লিষ্টদের চাহিদা অনুযায়ী সাপোর্ট করা সম্ভব হচ্চেছ না।

টাওয়ার হ্যামলেটস লেবার গ্রুপের লিডার মেয়র জন বিগস তার প্রতিক্রিয়ায় পার্লামেন্টের ক্রসপার্টি কমিটি কতৃক দুই সন্তানের বিধিবিধান তুলে দেয়ার আবেদনকে স্বাগত জানিয়েছেন। জন বিগস বলেন, বর্তমান পলিসির সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই। যারা ইতিমধ্যে দারিদ্র্যতার মধ্যে আছেন তাদের জন্য এটি আরেকদফা ক্ষতিকর প্রভাব বয়ে এনেছে। অনেক ক্ষেত্রেই শিশুরাই সবচাইতে বেশী ভূক্তভোগী। মেয়র বলেন, টাওয়ার হ্যামলেটসের মতো একটি উচ্চচ শিশু দারিদ্র্য সম্পন্ন বারায় এর প্রভাব সীমাহীন।

লেবার গ্রুপের কেবিনেট মের ফর প্ল্যানিং, এয়ার কোয়ালিটি এন্ড ট্যাকেলিং পোভার্টি কাউন্সিলার র‌্যাচেল ব্ল্যাক বলেন, দুই সন্তানের বিধিবিধান দরিদ্র পরিবারগুলোর বাস্তবতাকে বুঝতে শুধু ব্যর্থই হয়নি তাদের জীবনকে আরো কঠিন করেছে। তারা শুধু বেনিফিট লিমিটি দ্বারা আক্রান্তই হননি গত ৫ বছর ধরে বেনিফিট বৃদ্ধি স্থগিত থাকার কারনে তাদের অবস্থা শোচনীয় হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: