সোমবার, ১৫ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
টিকটক ভিডিও বানাতে গিয়ে নদীতে ঝাঁপ, ৪৮ ঘণ্টা পর লাশ উদ্ধার  » «   ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে সিলেট পিজিএস’র মানববন্ধন  » «   সিলেটে হোমিও শিক্ষায় বেড়েছে আগ্রহ,সহযোগিতায় সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা  » «   ভারী বৃষ্টিপাতে সিলেটের পাহাড়ি এলাকায় ধসের পূর্বাভাস  » «   জীবন দিয়ে হলেও এরশাদের মরদেহ রংপুরে আটকে দেয়ার ঘোষণা  » «   শেষ মুহূর্তে থেমে গেল ভারতের চন্দ্রযান ২-এর অভিযান  » «   এবার সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুললেন মিন্নি  » «   হজ নিয়ে সৌদি-কাতার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ  » «   এরশাদের সন্তানরা কে কোথায়  » «   ওবামার সঙ্গে জেদের কারণেই ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি বাতিল!  » «   প্রধানমন্ত্রী সময় দিলে জুলাইয়েই ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন  » «   লাইফ জ্যাকেট ছাড়াই পাঁচদিন বঙ্গোপসাগরে ভারতীয় জেলে! উদ্ধার চট্রগ্রামে  » «   বাংলাদেশের আর্থিক অন্তর্ভুক্তির প্রশংসায় রানী ম্যাক্সিমা  » «   অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলা  » «   পদোন্নতি পেয়ে মন্ত্রী হচ্ছেন সিলেটের ইমরান আহমদ  » «  

ব্রাজিল না পেরু, কে হচ্ছে কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন?



স্পোর্টস ডেস্ক:: এক. আয়োজক হয়ে ব্রাজিল কখনো কোপার শিরোপা হাতছাড়া করেনি। দুই. পেরু কখনো কোপার ফাইনালে উঠে হারেনি।

তাহলে এবারের কোপার ফাইনালে হারবে কারা? বাংলাদেশ সময় আজ (রোববার) দিবাগত রাত ২টায় ব্রাজিলের মারাকানায় কোপার ফাইনালে মুখোমুখি হতে যাওয়ার দুই দলের যে কারোরই আকেটি রেকর্ড ভেঙ্গে যাবে। হয় ব্রাজিল প্রথমবারের মতো ঘরের মাঠে কোপা জিততে পারবে না। না হয় পেরু এই প্রথম ফাইনালে হারবে।

দক্ষিণ আমেরিকার এই ফুটবল টুর্নামেন্টে ব্রাজিল চ্যাম্পিয়ন ৮ বার, পেরু ২ বার। আঞ্চলিক এই প্রতিযোগিতা যখন কোপা আমেরিকা নাম দিয়ে শুরুর প্রথম আসরই (১৯৭৫) বাজিমাত করেছিল পেরু। সেটি ছিল তাদের দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হওয়া। তারপর পেরু আর কখনো ফাইনালেই উঠতে পারেনি। ৪৪ বছর পর ফের ফাইনালে উঠে তারা প্রতিপক্ষ পেয়েছে স্বাগতিক ব্রাজিলকে। তৃতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হওয়া তাই পেরুর জন্য কঠিন এক চ্যালেঞ্জ।

শক্তি আর ঐতিহ্য- ফাইনালে এগিয়ে রাখবে ব্রাজিলকেই। ফুটবল পন্ডিতদের মতামতও ঝুঁকছে সেলেসাওদের দিকে; কিন্তু ফুটবল এমন এক খেলা, যেখানে সব কিছুই ঘটতে পারে। তাইতো প্রতিপক্ষ পেরু হওয়ার পর তাদের হালকাভাবে নিচ্ছেন না ব্রাজিলের খেলোয়াড়রা। অঘটনের ভয়ও কাজ করছে তিতের শিষ্যদের মধ্যে।

তিন বছর আগে এই মারাকানায় নেইমাররা জিতেছিল অলিম্পিক ফুটবলের স্বর্ণ। সেই মারাকানায় ব্রাজিলের সামনে কোপার রেকর্ড ধরে রাখার হাতছানি। আর দলটির কোচ তিতের জন্য অনন্য এক অভিজ্ঞতা। কি খেলোয়াড়, কি কোচ- আগে কখনই ফুটবলের এই ঐতিহ্যবাহী ভেন্যুতে খেলা হয়নি তার।

এটা ঠিক, পেরুর কিছু হারানোর নেই ফাইনালে। চাপে থাকবে বরং ব্রাজিলই। চাপমুক্ত পেরুই বিপদে ফেলতে পারে স্বাগতিকদের। যদিও এই পেরু গ্রুপপর্বে ব্রাজিলের কাছে বিধ্বস্ত হয়েছিল ৫-০ গোলে; কিন্তু সে ম্যাচটাকে ভুলে যেতে চাইছে দুই দলই। কারণ, গ্রুপ পর্ব আর ফাইনাল এক নয়। নতুন ম্যাচ, অন্য ভেন্যু। ফলটাও যে ভিন্ন হবে না তার নিশ্চয়তা কি?

ইনজুরির কারণে নেইমারের ছিটকে যাওয়ায় ব্রাজিল শিবিরে একটা হতাশা ছিল; কিন্তু হেসুস, ফিরমিনো আর ক্যাসেমিরোরা ছন্দে থাকায় অনেকটায় স্বস্তিতে দলের কোচ তিতে। আর পোস্টের নিচে অ্যালিসন তো এই কোপার সেরা গোলরক্ষক। যিনি এক মৌসুমে তিনটি গোল্ডেন গ্লাভস জিতে করতে যাচ্ছেন অনন্য রেকর্ড। তাই অনিশ্চয়তা শব্দটি বাদ দিলে কোপার ফাইনালে ব্রাজিলই ফেবারিট।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: