বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দুই প্রকৌশলীকে পেটালেন আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ নেতারা  » «   সিলেটে বিদেশী মদসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার  » «   রেল লাইন সংস্কারের দাবিতে শাহবাগে সিলেটি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধবন  » «   আসামে নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়লেন আরও এক লাখ  » «   বিশ্বনাথে ডাকাতের সঙ্গে গোলাগুলি, ৫ পুলিশ গুলিবিদ্ধ  » «   প্রাথমিকে চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকদের জন্য সুখবর  » «   স্বাস্থ্যসনদ পেলেন সাড়ে ৬২ হাজার হজ গমনেচ্ছু  » «   হবিগঞ্জে পিস্তল ঠেকিয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাই  » «   সাংবাদিকদের বিক্ষোভ কর্মসূচি, ক্ষমা চাইতে হবে দুদককে  » «   যুক্তরাষ্ট্রে যাবার সময় নদীতে ডুবলো শরণার্থী বাবা-মেয়ে  » «   দেশে ফিরছেন সাগরে ভাসা আরও ২৪ বাংলাদেশি  » «   অস্ট্রেলিয়ায় আগুনে পুড়ে ৩ ভাই-বোন নিহত  » «   অবশেষে বরখাস্ত ডিআইজি মিজান  » «   সরকারি চাকরিতে ডোপটেস্ট বাধ্যতামূলক করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ঘুষ নেয়ার ভিডিও করায় সাংবাদিককে পেটাল পুলিশ, ৪ পুলিশ সদস্য ক্লোজড  » «  

ব্যাচেলর ভাড়া না দিলে পরিস্থিতি আরো ভয়ঙ্কর হবে!



bachelor-house-rentনিউজ ডেস্ক :: কয়েকজন অপরাধীর জন্য যেমন পুরো জাতি অপরাধী হতে পারে না, ঠিক তেমনি ব্যাচেলর ভাড়া না দিলেইই জঙ্গিবাদ নির্মূল হবে না।বরং এই সিদ্ধন্তে পরিস্থিতি আরো ভয়ঙ্কর হবে বলেই মনে করছেন সমাজ বিশ্লেষকরা।
এদিকে গুলশান ও শোলাকিয়ায় পর পর জঙ্গি হামলার পর রাজধানীতে নিরাপত্তা জোরদারের জন্য ব্যাচেলর মেসগুলোর ওপর বিশেষ নজরদারি আরোপ করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তাদের দাবি মেস ভাড়া নিয়েই জঙ্গিরা সংগঠিত হয়। সেই প্রেক্ষিতে বাড়ির মালিকরাও এখন মেস ভাড়া দিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন। অনেকেই আবার ব্যাচেলরদের বাড়ি ছাড়ার নোটিশ দিয়েছে বলেও জানা যায়।
এই পরিস্থিতিতে রাজধানীতে অবস্থানকারী প্রায় লক্ষাধিক ব্যাচেলর পড়েছে বিপাকে। এর বিরাট অংশই কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। বাকিরা বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরিজীবী। তাদের দাবি “মাথা ব্যথা হলে, তা কেটে ফেলা কোন সমাধান হতে পারে না!” গুটি কয়েক দুষ্কৃতকারীর জন্য সবাইকে ভোগান্তির মধ্যে ফেলা দেশের আইনের শাসন হতে পারে না।”
আজ রাজধানীর পল্টনে এক সংবাদ সম্মেলনে ভাড়াটিয়া পরিষদের নেতারা অভিযোগ করে বলেন, “ব্যাচেলরদের বাড়ি ভাড়া না দিলে, এই সুযোগের শতভাগ ব্যবহার করবে জঙ্গিরা। তারা বিভিন্ন মাধ্যমে এই ব্যাচেলরদের আবাসনের ব্যবস্থা করে দিয়ে তাদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করবে। তখন পরিস্থিতি আরো ভয়ঙ্কর হবে। তাই অনতিবিলম্বে ব্যাচেলর ভাড়া না দেওয়ার যে রেওয়াজ ওঠেছে তা সমাধানে সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে।”
অপরদিকে এই পরিস্থিতি সম্পর্কে বাড়িওয়ালাদের অবস্থান জানতে সাথে কথা হয় কয়েজন বাড়ির মালিকের। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই বাড়িওয়ালা বলেন, “ব্যাচেলর ভাড়া দিতাম আগে। এখন আর দিব না।” তিনি অভিযোগ করে বলেন, “পুলিশ যেই কঠোর নির্দেশনা দিয়েছে, এটা সম্পূর্ণ করেও যে হয়রানির স্বীকার হবো না তার কি কোন নিশ্চয়তা আছে? শুধু শুধু ঝামেলায় জড়াতে চাই না!”
এদিকে, সম্প্রতি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ’র (ডিএমপি) কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, “এখন থেকে কোন বাড়িতে ব্যাচেলর ভাড়া দিতে হলে, তাদের প্রত্যেকের পরিচয়পত্রসহ সংশ্লিষ্ট থানায় ফরম জমা দিতে হবে। এর পর পুলিশ নির্ধারণ করবে কারা মেসে থাকতে পারবে কারা পারবে না।”
এর পর থেকে বিষয়টি নিয়ে দেশে ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। তবে এই পরিস্থিতির সুষ্ঠু একটি সুরাহা চান সবাই।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: