বুধবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘সৎ বাবার ধর্ষণে’ ১২ বছরের মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা!  » «   ‘যুক্তরাষ্ট্রের সব ইলেকট্রনিক পণ্য বর্জন করবে তুরস্ক’  » «   রাইফার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রুল  » «   ভারতে হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে আল-কায়েদাঃ জাতিসংঘ  » «   সোশ্যাল মিডিয়ার আপত্তিকর কন্টেন্ট বিশ্লেষণে পৃথক ইউনিট  » «   যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরো বেশি তুলা আমদানি করতে চায় বাংলাদেশ  » «   গজনিতে তালেবান সংঘর্ষ, নিহত বেড়ে ৩০০  » «   আবারও উত্তপ্ত ভারত-চীন, লাদাখ সীমান্তে মুখোমুখি সেনারা  » «   ঈদুল আজহার প্রধান জামাত জাতীয় ঈদগাহে সকাল ৮টায়  » «   ৩ হাজার ৮৮ কোটি ব্যয়ে ৯ প্রকল্পের অনুমোদন  » «   আরও এক মামলায় খালেদার জামিন  » «   ১৫ আগস্টে নিরাপত্তা নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই  » «   মোদির জন্য কনে দেখতে চেয়েছিলেন ট্রাম্প!  » «   রাজু হত্যাকান্ড: রকিব,দেলোয়ারসহ ২৩ জনকে আসামী করে মামলা  » «   ডিভোর্সের নোটিস পেয়ে শ্বশুরবাড়িতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ স্বামীর  » «  

বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে শিশুকে হত্যা



নিউজ ডেস্ক::দিনাজপুরে শশুর বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে দশ বছরের শিশু মিনহাজুল ইসলামকে হত্যা করল আপন খালাতো ভাই আজিজুর রহমান। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (২৯ মে) রাতে দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার দুলু গ্রামে।

বুধবার (৩০ মে) দুপুর ১২ টার সময় পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করেছে। হত্যা কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত আজিজুর রহমানকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে শিশুটির পরিবারের লোকজন।

নিহত শিশুটির নাম মিনহাজুল ইসলাম (১০)। সে বিরামপুর উপজেলার জোতবানী গ্রামের কৃষি শ্রমিক দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। সে চকবিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল। গ্রেফতারকৃত আজিজুর রহমান(২২) একই গ্রামের রশিদুল ইসলামের ছেলে।

দেলোয়ার হোসেন বিরামপুর থানায় জানান, মঙ্গলবার (২৯ মে) ১২টার দিকে আজিজুর মিনহাজুলকে নিয়ে হাকিমপুরে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে যাবে বলে বের হয়। রাত ৯ টার দিকে আজিজুর একা বাড়িতে ফিরে আসে। পরিবারের লোকজন মিনহাজুলের খোঁজ করলে আজিজুর জানায় সে মিনহাজুলকে নবাবগঞ্জে নিয়ে গিয়ে হত্যা করেছে।

জোতবানী ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী সদস্য মর্জিনা বেগম জানান, আজিজুলকে নিয়ে তিনিসহ পরিবারের সদস্যরা মিনহাজুলের লাশ খুঁজতে বের হয়। কিন্তু আজিজুর সারা রাত ধরে একেক বার একেক স্থানের কথা বলে হয়রানি করে। বুধবার সকাল ১১টার সময় শিশুটির পরিবারের লোকজন আজিজুরকে বিরামপুর থানার পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

ঘটনাটি নবাবগঞ্জ থানায় হওয়ায় হাকিমপুর থানা পুলিশ আজিজুরকে নবাবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করে। এর মধ্যে দুপুর ১২ টার সময় নবাবগঞ্জ উপজেলার চকদুলু গ্রামের মানুষ মোবাইল করে পুলিশকে জানান ভূট্রা ক্ষেতে একটি শিশুর লাশ পড়ে আছে। পরে পরিবারের লোকজন গিয়ে শিশুটির লাশ সনাক্ত করে।

নবাবগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ সুব্রত কুমার সরকার জানান, সকালে এলাকাবাসী চকদুলু গ্রামে ভূট্রা ক্ষেতে একটি শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে দুপুরে দিকে মিনহাজুলের পরিবারের লোকজন এসে লাশটি শনাক্ত করে। নিহত শিশুটির গলায় ও বুকে চাকু দিয়ে হুল দেয়া হয়েছে। ঘটনা স্থল থেকে একটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: