শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিএনপির বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার প্রমাণ নেই : আমু  » «   অংশ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য সহযোগিতা করতে প্রস্তুত ইইউ  » «   কমলগঞ্জে ট্রাক চাপায় তরুণী নিহত,চালক পালাতক  » «   বি. চৌধুরীর চায়ের দাওয়াতে যাচ্ছে ন্যাপ–এনডিপি  » «   নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচনের তফসিল: ইসি সচিব  » «   ঈশ্বর, মৃত্যু-পরবর্তী জীবন ও স্বর্গ নিয়ে যা ভাবতেন স্টিফেন হকিং  » «   আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক  » «   সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির দৃষ্টান্ত: এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির  » «   খাশোগি হত্যা: যুক্তরাষ্ট্রকে সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা দিল সৌদি  » «   দুর্গাপূজা যেভাবে হলো হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব  » «   সিলেটে ফোনে কথা বলা অবস্থায় যুবকের হঠাৎ মৃত্যু  » «   ইরান কখনো পরমাণু বোমা বানাবে না: রুহানি  » «   সিলেটে সমাবেশের অনুমতি পেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   বাংলাদেশে আরো সৌদি বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী  » «   কানাডায় প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রি শুরু, ক্রেতাদের ভিড়  » «  

বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে শিশুকে হত্যা



নিউজ ডেস্ক::দিনাজপুরে শশুর বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে দশ বছরের শিশু মিনহাজুল ইসলামকে হত্যা করল আপন খালাতো ভাই আজিজুর রহমান। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (২৯ মে) রাতে দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার দুলু গ্রামে।

বুধবার (৩০ মে) দুপুর ১২ টার সময় পুলিশ শিশুটির লাশ উদ্ধার করেছে। হত্যা কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত আজিজুর রহমানকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে শিশুটির পরিবারের লোকজন।

নিহত শিশুটির নাম মিনহাজুল ইসলাম (১০)। সে বিরামপুর উপজেলার জোতবানী গ্রামের কৃষি শ্রমিক দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। সে চকবিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল। গ্রেফতারকৃত আজিজুর রহমান(২২) একই গ্রামের রশিদুল ইসলামের ছেলে।

দেলোয়ার হোসেন বিরামপুর থানায় জানান, মঙ্গলবার (২৯ মে) ১২টার দিকে আজিজুর মিনহাজুলকে নিয়ে হাকিমপুরে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে যাবে বলে বের হয়। রাত ৯ টার দিকে আজিজুর একা বাড়িতে ফিরে আসে। পরিবারের লোকজন মিনহাজুলের খোঁজ করলে আজিজুর জানায় সে মিনহাজুলকে নবাবগঞ্জে নিয়ে গিয়ে হত্যা করেছে।

জোতবানী ইউনিয়নের সংরক্ষিত নারী সদস্য মর্জিনা বেগম জানান, আজিজুলকে নিয়ে তিনিসহ পরিবারের সদস্যরা মিনহাজুলের লাশ খুঁজতে বের হয়। কিন্তু আজিজুর সারা রাত ধরে একেক বার একেক স্থানের কথা বলে হয়রানি করে। বুধবার সকাল ১১টার সময় শিশুটির পরিবারের লোকজন আজিজুরকে বিরামপুর থানার পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

ঘটনাটি নবাবগঞ্জ থানায় হওয়ায় হাকিমপুর থানা পুলিশ আজিজুরকে নবাবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করে। এর মধ্যে দুপুর ১২ টার সময় নবাবগঞ্জ উপজেলার চকদুলু গ্রামের মানুষ মোবাইল করে পুলিশকে জানান ভূট্রা ক্ষেতে একটি শিশুর লাশ পড়ে আছে। পরে পরিবারের লোকজন গিয়ে শিশুটির লাশ সনাক্ত করে।

নবাবগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ সুব্রত কুমার সরকার জানান, সকালে এলাকাবাসী চকদুলু গ্রামে ভূট্রা ক্ষেতে একটি শিশুর লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে দুপুরে দিকে মিনহাজুলের পরিবারের লোকজন এসে লাশটি শনাক্ত করে। নিহত শিশুটির গলায় ও বুকে চাকু দিয়ে হুল দেয়া হয়েছে। ঘটনা স্থল থেকে একটি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: