শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা  » «   সীমান্তের খালে মিয়ানমারের সেতু, বন্যার আশঙ্কা বাংলাদেশে  » «   দ্বিতীয় কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠাবে বাংলাদেশ: শাবিতে পরিকল্পনামন্ত্রী  » «   আতিয়া মহল মামলা: ৫ দিনের রিমান্ডে ৩ আসামি  » «   শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টা মামলা: হাইকোর্টে আপিল শুনানি শুরু  » «   টিআইবির রিপোর্টে সরকার ও ইসির আঁতে ঘা লেগেছে: বিএনপি  » «   মাফিয়াদের স্বর্গরাজ্যে দশ বাংলাদেশির অনন্য সাহসিকতার নজির  » «   ১৪ দলের শরিকদের বিরোধী দলে থাকাই ভালো: ওবায়দুল কাদের  » «   সন্ত্রাস-মাদক-জঙ্গিবাদের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধেও ‘জিরো টলারেন্স’ : প্রধানমন্ত্রী  » «   সংসদ সদস্যদের শপথের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ  » «   কৃত্রিম কিডনি তৈরি করলেন বাঙালি বিজ্ঞানী  » «   ব্রেক্সিট ইস্যু: অনাস্থা ভোটে টিকে গেলেন তেরেসা মে  » «   টিআইবির প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য নয়, পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করি: সিইসি  » «   জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে অফিস করছেন শেখ হাসিনা  » «   সংসদ কার্যকর রাখতেই বিরোধী দলে জাপা : জিএম কাদের  » «  

বেকায়দায় বালু ভর্তি ট্রাকের চালকরা



trucসংবাদ ২১ ডটকম:: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ের সামনে ইটের খোয়া ভর্তি ট্রাক নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার সঙ্গে সঙ্গে অপেক্ষা করছেন ট্রাক চালক সেলিম। গত রোববার থেকে শুধু সেলিম নয়, এরকম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় নিয়ে সময় পার করছেন আরো ২৩টি ট্রাকের চালক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।

গতকাল রোববার রাত থেকে গুলশানের বিএনপির কার্যালয়ের সামনে ব্যারিকেট দেয়া ২৪টি ট্রাকের চালকেরা অবস্থান করছেন। কেউ জানেন না কখন তাদের যেতে দেয়া হবে। এমনকি তাদের খাওয়ার জন্য সামান্য টাকা দেয়া হচ্ছে বলে জানান তারা।

৫ জানুয়ারি সোমবার গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালন করার লক্ষ্যে সমাবেশে যোগ দেয়ার কথা ছিল বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার। তিনি যাতে সমাবেশে যোগ দিতে না পারেন সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থানের পাশাপাশি বিএনপি কার্যালয়ের সামনে বালি ও ইটের খোয়া ভর্তি ট্রাক আড়াআড়ি করে রাখা হয়।

চালক সেলিম জানান, তিনি রোববার গাবতলী থেকে ইটের খোয়া বোঝাই ট্রাক নিয়ে বনানীতে ডেলিভারি দিতে যাচ্ছিলেন। কাকলি মোড়ে যাওয়ার পরপরই পুলিশ গাড়িটির গতি রোধ করে কাগজপত্র দেখতে চায়।

তিনি জানান, এরপর তাকে ১০ মিনিটের জন্য পুলিশের সঙ্গে যাওয়ার কথা বলে খালেদা জিয়া গুলশান কার্যালয়ের সামনে নিয়ে আসা হয়। সেখানে এসে তিনি আরো কয়েকটি ট্রাক আড়াআড়িভাবে দাঁড় করিয়ে রাখতে দেখতে পান।

সেলিম জানান, রোববার থেকে এখানে অবস্থান করছে। পুলিশ ট্রাকের চাবি নিয়ে গেছেন। কবে গাড়ির চাবি দেয়া হবে বা তাদের যেতে দিবে এ বিষয়ে কিছু বলেনি।

তিনি আরো জানান, গাড়িতে পাঁচজন কুলি ও একজন হেলপার ছিল। এ অবস্থায় দেখে রাতেই তিনজন কুলি বাসা চলে গেছে। বাকি তিন জনের সকাল-দুপুরের খাবারের জন্য মাত্র ১০০ টাকা দিয়েছে পুলিশ।

এ অবস্থায় সেলিমের পরিবারের সদস্যা উৎকণ্ঠায় দিন পার করছে বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে গাড়ির মালিক ও ডেলিভারের সদস্যরা উৎকণ্ঠায় দিন পার করেছে বলে জানান ট্রাক চালকরা। রাজনৈতিক এ উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে থেকে রেহাই দিতে পুলিশের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: