মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অগ্নিঝুঁকিতে ঢাকার ৪১৬ হাসপাতাল-ক্লিনিক  » «   ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবেন অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ফেসবুক ‘ডিজিটাল গ্যাংস্টার’: ব্রিটিশ পার্লামেন্ট  » «   মানহানির মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর  » «   পাকিস্তান থেকে ভারতে না গিয়ে দেশে ফিরলেন সৌদি যুবরাজ  » «   দুই বছরের মধ্যে বিলুপ্ত হবে বিএনপি!  » «   মেয়র আরিফের বিরুদ্ধে কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ, প্রতিকী আত্মহুতি  » «   আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে আজ শেষ হল বিশ্ব ইজতেমা  » «   আমিরাতের ক্রাউন প্রিন্সের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক  » «   ট্রাম্পের জরুরি অবস্থা ঘোষণার বিরুদ্ধে ১৬ অঙ্গরাজ্যের মামলা  » «   মেডিকেলের ডাস্টবিনে শিশুসহ ২৬ মানবদেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ  » «   উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ থেকে ইভিএম: ইসি সচিব  » «   হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি হিজড়াদের  » «   সব বাধা উপেক্ষা করে গণশুনানি করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   অভিজিৎ হত্যা: অব্যাহতি পাচ্ছেন সাতজন, আসামি ছয়  » «  

বিয়ে ভাঙল মিঠুনপুত্রের!



বিনোদন ডেস্ক::ধর্ষণের মামলায় জামিন পেলেও শেষ রক্ষা হলো না অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলে মিমোর। অবশেষে ভেঙেই গেল মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলের বিয়ে। রবিবার (৮ জুলাই) ভারতের তামিলনাড়ুর নীলগিরি জেলার উধগমন্ডলমের একটি হোটেলে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। জানাযায় বিলাসবহুল এই হোটেলটি মিঠুনেরই।

বিয়ের অনুষ্ঠানে হোটেলেটিতে তদন্তকারীরা উপস্থিত হওয়ার পরেই বিয়ে বাতিল করে দিয়ে ফিরে গেছে কনেপক্ষ। কিছু দিন আগে এক নারীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ ও প্রতারণার অভিযোগ ওঠে মিমোর বিরুদ্ধে। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিয়ে বাতিল করেননি কনে মদালসা শর্মার পরিবার। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আজই তাদের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। খবর: আনন্দ বাজার

মিমোর বিরুদ্ধে ঐ তরুণীর অভিযোগ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে চার বছর ধরে এক নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক রেখেছিলেন তিনি। ধর্ষণের পর তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাত করান মিঠুনের স্ত্রী যোগিতা বালি। বলেও অভিযোগ করেন ওই ভোজপুরি অভিনেত্রী।

তরুণীর আদালতে দেওয়া ভাষ্য মতে, ‘পানীয়ের সঙ্গে মাদক মিশিয়ে ওই তাকে অচেতন করে তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন মিমো। ওই তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন জানার পরই তাঁকে কিছু ওষুধ দেওয়া হয়েছিল। শুধু তাই নয়, পরবর্তীতে ওই তরুণীর ‘কুণ্ডলী’ জানতে চান তিনি। কিন্তু সেটি না মেলায় ওই তরুণীকে বিয়ে করতে অস্বীকার করেন।’

এছাড়াও ঐ তরুণীর অভিযোগ করেন, ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার হুমকিও দেন যোগিতা। এর পরই ভয়ে মুম্বাই থেকে দিল্লি চলে যান তিনি, পরে রোহিণী থানায় মিমোদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

এই সপ্তাহের শুরুতে দিল্লির এক আদালত জানায়, মিমো ও যোগিতার বিরুদ্ধে এফআইআর করার মতো যথেষ্ট প্রমাণ আছে।

বৃহস্পতিবার গ্রেফতারি এড়াতে মুম্বাই হাইকোর্টের আবেদন করেছিলেন মিমো ও তার মা। সেই আবেদন খারিজ করে বিচারপতি তাদেরকে দিল্লির সংশ্লিষ্ট আদালতে গিয়ে আবেদন জানাতে বলেন। এরপর রবিবার (৮ জুলাই) দিল্লির আদালত এক লাখ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে মা-ছেলের জামিন দেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: