রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
মোহামেডানসহ মতিঝিলে চার ক্লাবে অভিযান  » «   তাহিরপুরে ১০টি গাঁজার বালিশ উদ্ধার  » «   ফ্রান্সে মসজিদে গাড়ি হামলা  » «   সদলবলে মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি-সম্পাদক  » «   মুসলিম যাত্রী থাকায় ফ্লাইট বাতিল করল আমেরিকান এয়ারলাইনস  » «   মধ্যরাতে বনানীতে শাবি ভিসিপুত্রের কাণ্ড!  » «   সিলেট বিএনপিতে শোডাউনের প্রস্তুতি  » «   ‘ভূতের আড্ডায়’ অভিযান, বাতি জ্বালাতেই তরুণ-তরুণীর অপ্রীতিকর দৃশ্য  » «   মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন, প্রধান শিক্ষকসহ গ্রেপ্তার ৩  » «   টেকনাফে ‘গোলাগুলিতে’ রোহিঙ্গা স্বামী-স্ত্রী নিহত  » «   প্রাথমিকের শিক্ষকদের সুখবর দিলেন গণশিক্ষা সচিব  » «   সাত বডিগার্ডসহ জি কে শামীমকে গুলশান থানায় হস্তান্তর  » «   মালদ্বীপে স্থায়ী জমি পেলো বাংলাদেশ  » «   শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে পদত্যাগ করলেন সহকারী প্রক্টর  » «   তাহরির স্কয়ারসহ মিসরজুড়ে একনায়ক সিসির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ  » «  

বিয়ের মাঝেই প্রতারণার শিকার নুসরাতের স্বামী নিখিল



বিনোদন ডেস্ক:: কয়েকদিন আগেই বিয়ে সেরেছেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান ও কলকাতার ব্যবসায়ী নিখিল জৈন। বিদেশে ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের পর সদ্য কলকাতার বিলাসবহুল হোটেলে হয়েছে তাদের রিসেপশন। এরই মধ্যে বিপদে পড়লেন নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈন।

জানা গেছে, আর্থিক প্রতারণার শিকার হয়েছেন নিখিল জৈন। তাও আবার রিসেপশনের ঠিক আগে। যার জন্য থানা-পুলিশও করতে হয়েছে তাকে।

সাইবার ক্রাইম থানায় দায়ের হওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, মাসখানেক আগে একটি মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার সংস্থা থেকে ই-মেল আসে নিখিলের কাছে। সেই মেলে তাকে একটা ভিভিআইপি নম্বর অর্থাৎ মোবাইলের বিশেষ নম্বর দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। এর জন্য নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করার কথাও জানানো হয়। নিখিলের কাছে দু-টি ই-মেল আসে। নিখিল দাবি করেছেন, ই-মেলে দেওয়া অ্যাকাউন্ট নম্বরে তিনি ৪৫ হাজার টাকা ট্রান্সফারও করে দেন, কিন্তু তার কাছে কোনও ভিআইপি নম্বর আসেনি। কিন্তু এর পরে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন ওই ই-মেল মেসেজটি আদতে ভুয়া।

যে মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডারের নামে ই-মেল এসেছিল, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন ‘রঙ্গোলি শাড়ি’ সংস্থার ডিরেক্টর নিখিল। কিন্তু তারা স্পষ্টতই জানিয়ে দেয়, ওই ধরনের কোনও মেসেজ তারা পাঠায়নি। এরপরই সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। সচরাচর কোনও মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানির বিশেষ নম্বর নিতে গেলে গ্রাহককে বাড়তি টাকা খরচ করতে হয়। এই নম্বরগুলো বিশেষ বৈশিষ্টযুক্ত হওয়ায় ভিভিআইপি নম্বর বলা হয়। সেই ফাঁদেই পা দিয়েছিলেন নিখিল। জানা গেছে, আসলে এ রকম একটি চক্র রয়েছে, যারা এইভাবে ফাঁদ পেতে টাকা নিচ্ছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: