শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পাবলিক পরীক্ষার সব ফি দেবে সরকার  » «   বাচ্চারা সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে ইভিএম, দাবি লালুপুত্রের  » «   আগামীকাল প্রাথমিকের প্রথম ধাপের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা  » «   পরাজিত হওয়া মানেই হার নয়: মমতা  » «   কুলাউড়ায় ওজন বাড়াতে চিংড়িতে বিষাক্ত জেলি!  » «   শতবর্ষী বৃদ্ধাকে ধর্ষণ: ‘আমাকে ছেড়ে দাও, আমি রোজা রাখছি’  » «   কিছুটা সময় লাগলেও ইসরাইল-আমেরিকার পতন অনিবার্য: ধর্মীয় নেতা  » «   মেয়াদোত্তীর্ণ সেমাই ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরি: সিলেটে ওয়েল ফুডকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা  » «   একক দল হিসেবেই ম্যাজিক ফিগারে মোদির বিজেপি!  » «   পারিবারিক কলহে সৎ মাকে কুপিয়ে জখম করেছে ছেলে  » «   রাজস্ব কর্মকর্তা হিসেবে ১০ হাজার শিক্ষার্থীকে নিয়োগ দেয়া হবে: অর্থমন্ত্রী  » «   পবিত্র কোরআন কেটে ভেতরে ইয়াবা পাচার, ৩ রোহিঙ্গা আটক  » «   গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের চার জন নিহত  » «   খালেদার কারামুক্তি, এবারও ‘হ্যান্ডল’ করতে পারেনি বিএনপি!  » «   বালিশ মাসুদের খোলা চিঠি  » «  

বিশ্বনাথে দুলাভাইয়ের ধর্ষণে শ্যালিকা অন্তঃসত্ত্বা, গ্রেফতার লম্পট দুলাভাই



সিলেট ডেস্ক:: বিশ্বনাথে ১৪ বছর বয়সী নিজ শ্যালিকাকে ধর্ষণ করে অন্তঃসত্ত্বা করার অভিযোগে লম্পট দুলাভাইকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। পাষবিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার ওই কিশোরীর মা বাদি হয়ে বিশ্বনাথ থানায় অভিযোগ দায়ের করলে রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) রাতে ভিকটিমের দুলাভাই অভিযুক্ত রাসেল মিয়া (২৫) কে আটক করে থানা পুলিশ। সে উপজেলার পুরান সৎপুর গ্রামের ইছদ্দর আলীর ছেলে। তাকে আটকের পর রাতেই থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। মামলা নং- ৫।

জানা গেছে, প্রায় ২বছর পূর্বে নিজ গ্রামের বাসিন্দা জনৈকা রহিমা বেগমকে বিয়ে করে অটোরিক্শা (টমটম) চালক রাসেল মিয়া। বিয়ের প্রায় বছর খানেক পর তাদের ঘরে জন্মগ্রহন করে একটি কন্যা সন্তান। একই গ্রামে শশুর বাড়ি হওয়ার সুবাদে প্রতিদিন সেখানে যাতায়াত করে রাসেল। তার হতদরিদ্র শশুর প্রতিবন্ধী থাকায় শাশুড়ি প্রতিদিন গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে গিয়ে দিনমজুরের কাজ করেন। এই সুযোগে রাসেল তার নিজ শ্যালিকা (১৪ বছর বয়সী কিশোরী) কে জোরপূর্বক ধর্ষণ করতে থাকে।

একপর্যায়ে ওই কিশোরী প্রায় ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে ঘটনাটি লোকমুখে এলাকার সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি স্থানীয় মাতব্বরা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করলে তা জানতে পারে থানা পুলিশ। এরপর রোববার রাতে অভিযুক্ত রাসেল মিয়া ও তার শ্যালিকা (ভিকটিম) কে থানায় ডেকে আনে পুলিশ।

এসময় পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ভিকটিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলে ও ভিকটিম কিশোরীর মা থানায় অভিযোগ দিলে অভিযুক্ত রাসেল মিয়াকে আটক করে পুলিশ। এরপর রোববার রাতেই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০৩ এর সংশোধনী ৯ (ক) ধারায় থানায় মামলা রেকর্ড করা হয়।

মামলা দায়ের ও অভিযুক্ত রাসেল মিয়াকে আটকের সত্যতা শিকার করেছেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামসুদ্দোহা পিপিএম।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: