মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিরোধী দলীয় উপনেতা হলেন রওশন এরশাদ  » «   সিলেট যাত্রীদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস বিমানের  » «   ১ এপ্রিল থেকে সব কোচিং সেন্টার বন্ধ  » «   সুবর্ণচরে গণধর্ষণ: আইনজীবীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন  » «   ‘১১ বছর বয়সে বাবা আমাকে নিষিদ্ধপল্লীতে বিক্রি করে দেন’  » «   আকস্মিক ঢাকার কূটনৈতিক পাড়ায় ২৪ ঘন্টার রেড অ্যালার্ট জারি  » «   নির্বাচনে রাশিয়া-ট্রাম্প আঁতাতের প্রমাণ মেলেনি মুলারের তদন্তে  » «   ১২ ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকে স্বাধীনতা পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   এবার ক্যালিফোর্নিয়ায় মসজিদে আগুন, চিরকুট উদ্ধার  » «   ফাঁকা বাসে ভয়ঙ্কর ফাঁদ, টার্গেট কম বয়সী নারী যাত্রী  » «   রিমান্ডে বিমানবালা: যেভাবে হয় সৌদি আরব থেকে স্বর্ণ আনার চুক্তি  » «   আজ ভয়াল ২৫ মার্চ, গণহত্যার স্বীকৃতি চায় বাংলাদেশ  » «   সিলেটের আতিয়া মহলে অভিযান: দুই বছরেও আসেনি চার্জশিট  » «   বাড়ছে দূতাবাস, গুরুত্ব পাচ্ছে অর্থনৈতিক কূটনীতি  » «   একাত্তরের গণহত্যা আন্তর্জাতিক ফোরামগুলোতে তুলবে জাতিসংঘ  » «  

বিশ্বজুড়ে ৪৮ ঘণ্টা বন্ধ হতে পারে ইন্টারনেট!



তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক:: বিশ্বজুড়ে যে কোনো সময় ৪৮ ঘণ্টা ইন্টারনেট সংযোগ পেতে সমস্যা হতে পারে।‘কি ডোমেন সার্ভার’-এর রুটিন মেরামতের কারণে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের এ সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে বলে এক রিপোর্টে উল্লেখ করেছে রাশিয়া টুডে।

ফলে ওই সময়ের মধ্যে ওয়েব পেজ খোলায় সমস্যা হবে,ব্যাহত হতে পারে ইন্টারনেটের সঙ্গে জড়িত সবরকম লেনদেনও।এমনকি ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধও হয়ে যেতে পারে।রাশিয়া টুডের রিপোর্টে বলা হয়েছে,দি ইন্টারনেট কর্পোরেশন অব অ্যাসাইনড নেমস অ্যান্ড নাম্বারস (আইসিএএনএন) এই মেরামত কাজ করবে।

ইন্টারনেটের অ্যাড্রেস বুক বা ডোমেন নেম সিস্টেম (ডিএনএস) সুরক্ষিত রাখার জন্য যে ‘ক্রিপটোগ্রাফিক কি’ রয়েছে তা বদলানোর কাজ চলবে এ সময়ে।আইসিএএনএন জানিয়েছে, বিশ্বজুড়ে যেভাবে সাইবার আক্রমণ বাড়ছে, তাতে হ্যাকারদের কবল থেকে ইন্টারনেটকে সুরক্ষিত রাখতেই এ ‘ক্রিপটোগ্রাফিক কি’ বদলানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

কমিউনিকেশনস রেগুলেটরি অথরিটি (সিআরএ) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ডিএনএস আরও সুরক্ষিত করতে এ সময়ের জন্য বিশ্বজুড়ে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেয়া জরুরি।নেটওয়ার্ক অপারেটরস বা ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডররা (আইএসপি) যদি এ অবস্থার জন্য প্রস্তুতি না নেয়, তাহলে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা সমস্যার মুখে পড়তে পারেন।

তবে সিস্টেম সিকিউরিটি এক্সটেনশন যদি যথাযথভাবে সক্রিয় রাখা যায় তাহলে কিছুটা হলেও এর প্রভাব আটকানো সম্ভব হবে।তবে বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন,এ নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই।শাট ডাউন মানেই যে ইন্টারনেট পরিষেবা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে,এমনটা নয়।

ইন্ডিয়া স্কুল অব অ্যান্টি হ্যাকিংয়ের ডিরেক্টর সন্দ্বীপ সেনগুপ্ত বলেন,‘শাট ডাউন মানেই যে ইন্টারনেট পরিষেবা পুরোপুরি বসে যাবে এমনটা নয়।আইক্যান এ রকম মেরামতের কাজ করে।তবে মেরামতের সময় তারা সব সময়ই একটা বিকল্প রাস্তা খোলা রাখে যাতে পরিষেবা পুরোপুরি ভেঙে না পড়ে।

ইন্টারনেটের নিরাপত্তাকে আরও মজবুত করতে ‘ক্রিপটোগ্রাফিক অ্যালগরিদম’ বদলানোর জন্যই আইক্যান এই মেরামতের কাজ করবে।তার মানে ৪৮ ঘণ্টা ধরে পুরো ইন্টারনেট বন্ধ করে দেয়া হবে এমনটা নয়।’

ওই কর্মকর্তা জানান, এই মেরামতের কারণে ইন্টারনেট হয়তো একটু স্লো হতে পারে।তবে সেটা সামান্য সময়ের জন্যই।আর ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এর প্রভাবও খুব একটা বুঝতে পারবেন না।তার মতে, এ নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: