সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রথমবার সিলেট-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে উড়বে ইউএস-বাংলা  » «   ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়ায়-জাপান-অস্ট্রেলিয়া  » «   ভোটকেন্দ্রেই ঘুমিয়ে পড়লেন কর্মকর্তা  » «   ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় পিটিয়ে মুসলিম যুবককে হত্যা  » «   নয়াপল্টনে একের পর এক ককটেল বিস্ফোরণ  » «   অফিসে বসে বসে শুধু কি চা খাইলে হবে? দেশপ্রেম থাকতে হবে: হাইকোর্ট  » «   বিকেলের মধ্যে উদ্ধার কাজ শেষ হবে: রেলসচিব  » «   বাংলাদেশের নামে সড়কের নামকরন যুক্তরাষ্ট্রে  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়লেও দুর্নীতি কমছে না : টিআইবি  » «   দেশসেরা প্রধান শিক্ষক হবিগঞ্জের শাহনাজ কবীর  » «   বাঘের খাবারও চুরি হয় ঢাকা চিড়িয়াখানায়, ফেসবুকে ভাইরাল  » «   দুই মাস ওমরাহ ভিসা স্থগিত করল সৌদি  » «   বীমার আওতায় যেসব সুবিধা পাচ্ছে সরকারি চাকরিজীবীরা  » «   কারাগারে সুনামগঞ্জের আ. লীগ নেতা শামীম আহমদ  » «   মুক্তি পেয়ে নতুন যে বাড়িতে থাকবেন খালেদা  » «  

বিএনপিতে বিভক্তির চিন্তা করবেন না: ফখরুল



নিউজ ডেস্ক:: বিএনপির মধ্যে বিভক্তি ও বিভাজনের চিন্তা না করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বুধবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিশন মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ আহ্বান জানান।‘শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৮তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে’ এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আজকে জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আমাদের শপথ গ্রহণ করতে হবে যে, আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকবো। আমরা বিভক্তি ও বিভাজনের চিন্তা করবো না। আমরা শহীদ জিয়ার রাজনীতিকে অনুসরণ করে বিএনপিকে আরো শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করে বাংলাদেশকে সামনে দিতে এগিয়ে নেওয়া চেষ্টা করবো।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি আরো বলেন, অনেকেই হতাশার কথা বলেন। আমি কখনো হতাশার কথা বলি না, বলতে চাই না এবং বিশ্বাস করি না। আমি মনে করি শহীদ জিয়াউর রহমানের যে আর্দশ, দর্শন ও চিন্তা- তা কখনো ব্যর্থ হবার নয়। আর বেগম জিয়া যে আর্দশ ও ত্যাগ স্বীকার- তা ব্যর্থ হবার নয়। বাংলাদেশের মানুষ বিএনপি, জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়াকে ভালোবাসে। আর তারা অবশ্যই উঠে দাঁড়াবে, বিএনপি উঠে দাঁড়াবে। বিএনপি বেগম জিয়াকে মুক্ত করে এদেশের গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। আজকে চারিদিকে তাকিয়ে দেখুন, সরকার বলতে কোন জিনিস আছে বলে মনে হয় না। মনে হয় না যে, কোন শাসন ব্যবস্থা আছে। শুধু দু:শাসন এবং সমস্ত ক্রাইম ও দুর্নীতে বাংলাদেশ ভরে গেছে। আজকে চারিদিকে দু:শাসন চলছে। এই দু:শাসন সৃষ্টি করে বাংলাদেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্র পরিণত করা হচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় কারাগারে। যারা গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকারে বিশ্বাস করে না, তারা আজকে বেগম জিয়াকে কারা অন্তরীণ করে রেখেছে। আর এটা করেছে একটি কারণে, তারা বেগম জিয়াকে ভয় পায়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিএনপিকে দূর্বল করার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আজকে বেগম জিয়া কারাগারে। তাই আমাদের সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে। আর আমরা যদি দলের গঠনতন্ত্র অনুযারি চলি তাহলে সংগঠন শক্তিশালী হবে। গঠনতন্ত্র মোতাবেক দলকে পরিচালনা করে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

মির্জা ফখরুলের সভাপতিত্বে এবং বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীর সঞ্চালনায় সভায় দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, অ্যাডভোকেট আহমদ আযম খান, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: