শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে নির্মাণ হতে যাচ্ছে স্মৃতিসৌধ,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ডিও লেটার  » «   সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের ১০ ধাপ অবনতি  » «   জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু  » «   আইডিয়া’র ২৫ বছর পূর্তি উৎসবে র‍্যালি, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান  » «   উন্নয়ন করতে গিয়ে জীবন ও জীবিকার যেন ক্ষতি না হয় : প্রধানমন্ত্রী  » «   আজ দিন রাত সমান, আকাশে থাকবে সুপারমুন  » «   সহকর্মীর হাতে খুন হলেন তিন ভারতীয় সেনা  » «   মসজিদে হামলাধারী ব্রেন্টন আইএস থেকে ভিন্ন কিছু নয়: এরদোগান  » «   সিলেটে মেশিনে আদায় হবে যানবাহনের মামলার জরিমানা  » «   গ্যাসের দাম ১৩২% বৃদ্ধির প্রস্তাব হাস্যকর  » «   মেয়রের আশ্বাসে ২৮ মার্চ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত  » «   দরিদ্র বলে এদেশে কিছু থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী  » «   এক সপ্তাহের মধ্যে আবরারের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ  » «   গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি ওমরের মুখে মসজিদে হামলার লোমহর্ষক বর্ননা…  » «   আজ প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী,আ. লীগের শ্রদ্ধা  » «  

বাবার ধূমপানের প্রভাব চলে কয়েক প্রজন্মে!



লাইফ স্টাইল ডেস্ক:: যে বাবা নিকোটিন গ্রহণ করেন তাঁর ছেলেমেয়ে এবং তাদের পরবর্তী প্রজন্মও এর ক্ষতিকর প্রভাব বহন করে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটি কলেজ অব মেডিসিন স্টাডি বিভাগ ইঁদুরের ওপর গবেষণা চালিয়ে দেখেছে যে, ধূমপায়ী বাবার সন্তান এমনকি নাতি-নাতনিদের ভেতরও বুদ্ধিবৃত্তির ক্ষেত্রে ঘাটতি তৈরি হয়। তবে বিষয়টি সম্পর্কে পুরোপুরি নিশ্চিত হতে ইঁদুরের ভেতর পরীক্ষার এ বিষয়টি মানুষের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করে দেখতে হবে।প্লস বায়োলজি জার্নালে গবেষণার এ বিষয়টি প্রকাশিত হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট একজন গবেষক বলেন,আমাদের গবেষণার তথ্য এই সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে দেয় যে এই প্রজন্মের ছেলেমেয়ে এমনকি বয়স্কদের মধ্যে বুদ্ধিবৃত্তি সম্পর্কিত এমন কিছু ঘাটতির উপস্থিতি দেখা গেছে যার ধারা পরবর্তী দুই-এক প্রজন্ম পর্যন্ত বিদ্যমান।

গবেষণায় আরো দেখা গেছে, নিকোটিন গ্রহণের কারণে বাবার শুক্রানুতে পরিবর্তন হয়েছে। এর ফলে পরবর্তী প্রজন্মের শিক্ষা ও স্মৃতিশক্তিতে খারাপ প্রভাব পড়েছে। অনেকে মনে করেন এই পরিবর্তন সাময়িক। কিন্তু এটি আসলে দীর্ঘস্থায়ী। তবে কতখানি দীর্ঘস্থায়ী- তার জন্য আরো গবেষণা প্রয়োজন।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: