বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
১৪৪ ধারা ভঙ্গের অপরাধে ৩ জনকে জরিমানা, দায়িত্বে অবহেলায় ৪ জনকে অব্যাহতি  » «   মুক্তিযোদ্ধা হতে একাত্তরে ন্যূনতম বয়স নিয়ে রুল  » «   এবার নেচে গেয়ে দর্শক মাতাবেন শামীম ওসমান  » «   বাংলাদেশ সচেতন ছাত্র ফোরামের উদ্যেগে দুঃস্থ ও এতিমদের নিয়ে তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন পালন  » «   বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস ভাংচুর মামলার আসামী যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থী  » «   ভর্তি জালিয়াতি চক্রের দুইজন আটক  » «   পাবনায় আইডিবি’র ৪৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিক উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত  » «   তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন পালন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দল ফ্রান্স শাখা  » «   আরব সভ্যতা টিকবে না : আদোনিস  » «   জন্মদিনে তারেকের সুস্থতা কামনা করে খালেদার টুইট  » «   তনুর পরিবারকে ঢাকায় ডেকেছে সিআইডি  » «   যৌন হয়রানির শিকার উত্তর কোরিয়ার নারী সৈন্যরা  » «   মোদির বিরুদ্ধে আঙুল তুললে কেটে ফেলা হবে, হুমকি বিজেপি নেতার  » «   কমলগঞ্জে সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা: পিইসি পরীক্ষার্থী সহ আহত ৩  » «   নাতির সঙ্গে পিএসপি পরীক্ষা দিচ্ছেন নানি  » «  

বাক্সে ২ কোটি টাকা দিলেই হয়ে যায় ৪ কোটি!



নারায়ণগঞ্জ:: টাকা দ্বিগুণ করে দেওয়ার ভয়ঙ্কর ফাঁদ পেতে দুই কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় প্রতারক চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এর সঙ্গে হাতিয়ে নেওয়া টাকা ও ডলারের ২৬ হাজার ডলার, ৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা, পাসপোর্ট উদ্ধার করেছে।

শুক্রবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে গ্রেফতারকৃত ছয়জনকে গণমাধ্যমের সামনে হাজির করা হয়। গ্রেফতারররা হলো কিশোরগঞ্জের বাজিতপুরের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মিজবাহউদ্দিন খান শাফি চেয়ারম্যান (৬০), তাঁর ছেলে আমিরুল খান (৩০), চাঁদপুরের মতলব এলাকার মফিজুল ইসলাম শান্ত (৩১), এমদাদুল হক আকন্দ (৪৫), কামরুজ্জামান আকন্দ (৪০) ও কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর এলাকার মজিবুর খান (৫৪)। গত তিনদিনে এ ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়। ডিবির ওসি মাহমুদুল হাসান জানান, মামলার বাদী ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমান মামুন ঢাকার ডিওএইচএস বারিধারায় সুপ্তি সোয়েটার্স পরিচালনা করে আসছেন। তিন মাস আগে উল্লিখিত আসামিরা তার (মামুন) সঙ্গে দেখা করতে এসে জানান, তারা বিদেশি কালো টাকা সাদা করার জন্য অর্থ ঋণ প্রদান করে থাকেন। এছাড়াও ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে তারা বিদেশি এনজিও পরিচালনা করে আসছেন। মামুন গত ১৩ মার্চ নারায়ণগঞ্জের সুগন্ধা হোটেলে গেলে প্রতারক চক্র মিজবাহউদ্দিন ও শামীমের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। তাদের কথামত মামুন ২০ এপ্রিল বিকালে শহরের চাষাঢ়ায় গ্রান্ডহলে গেলে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার সমপরিমাণ ডলার প্রদান করে। একপর্যায়ে তারা মামুনকে আরো ৫০ হাজার টাকা থাকলে নিয়ে আসতে বলে। মামুন আরো ৫০ হাজার টাকা তাদের হাতে দিলে সেই বান্ডেলটি একটি বাক্সে রেখে স্প্রে করলে সেখান থেকে এক লাখ টাকা বের করে দেয় আর বলে এটি একটি ম্যাজিক বাক্স। এখানে যত পরিমাণ টাকা রাখা হবে তার দ্বিগুণ টাকা হয়ে যাবে। মামুনও তাদের এমন কার্যকলাপে বিশ্বাস করে। তারা বলে মামুন যদি দুই কোটি টাকার ডলার দেই তাহলে তারা কোটি ডলার তৈরি করে দিবে। এমন পরিস্থিতিতে চক্রটি মামুনের অফিসে যায় এবং তাদের কথা বিশ্বাস করে ২ কোটি এক লাখ টাকার সমপরিমাণ ডলার দিলে তারা একটি বাক্সে রাখে ও স্প্রে করে। একপর্যায়ে আসামিরা সুযোগ বুঝে বাক্সটি পরিবর্তন করে। পরে রাত ৮টার দিকে তারা মামুনকে জানায় ব্যাংক একাউন্টে ৪ কোটি টাকা জমা হলে বাক্সটি নিয়ে যাবে। পরের দিন সন্দেহ হলে বাক্সটি খুলে সেখানে ছাই পাওয়া যায়। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয় ৬ জনকে বিবাদী করে। সর্বশেষ মামলাটি ডিবিতে হস্তান্তর করা হলে ডিবি পুলিশের এসআই মফিজকে তদন্তের ভার দেওয়া হয়। ডিবি পুলিশের টিমটি গত তিনদিনে ছয়জনকে গ্রেফতার করে। ডিবির ওসি মাহবুবুর রহমান বলেন, ইতোমধ্যে ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: