শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নিজেদের বিমান বাহিনী থেকে সুরক্ষা পেতেই এরদোগানের এস-৪০০ ক্রয়!  » «   জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিসংযোগ, নিহত ১২  » «   খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, এখন লক্ষ্য পুষ্টি: প্রধানমন্ত্রী  » «   রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মিন্নি  » «   বাংলাদেশের পতাকার আদলে অন্তর্বাস বিক্রি করছে অ্যামাজন  » «   রিফাত হত্যাকাণ্ড: এবার রিশান ফরাজীও গ্রেফতার  » «   বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কেলেঙ্কারি: সিস্টেম লস নয় দুর্নীতি  » «   বন্যার কারণে জাতীয় ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পরীক্ষা স্থগিত  » «   হঠাৎ কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণে শক্ত পদক্ষেপ, মাঠে নামছে র‌্যাব  » «   ধসে পড়া ভবনে মিললো বাবা-ছেলের মরদেহ  » «   ইসরাইলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের তীব্র নিন্দা  » «   ‘নয়ন বন্ডের বাড়িতে বসেই স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মিন্নি’  » «   সিলেটের ২ জনসহ দেশসেরা ১২ শিক্ষার্থীকে পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   বেনাপোল ও বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   উপজেলা নির্বাচন: সিলেটে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বহিষ্কারের তালিকা  » «  

বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে নতুন নিয়ম করছে মালয়েশিয়া



নিউজ ডেস্ক :বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশ থেকে কর্মী নিতে নতুন নিয়ম চালু করছে মালয়েশিয়া। এ নিয়মে কোনও দেশভিত্তিক ভিন্নতা থাকবে না। একটি কমন সিস্টেমের আওতায় বিভিন্ন দেশ থেকে কর্মীরা দেশটিতে কাজের জন্য যেতে পারবেন।

মঙ্গলবার এক প্রেস কনফারেন্সে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মুহাম্মদ এ কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, অবৈধ বিদেশি শ্রমিকদের নিয়ে মালয়েশিয়া সরকারকে বর্তমানে ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে। এজন্য যেসব দেশ থেকে মালয়েশিয়া লোক নেয়, সব দেশের ক্ষেত্রেই এক নিয়ম চালু করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

“বাংলাদেশ, নেপাল এবং অন্যান্য দেশও ওই সিস্টেম ব্যবহার করবে।”

ড. মাহাথির মুহাম্মদ বলেন, মালয়েশিয়া সরকার এর আগে বাংলাদেশ থেকে ১০টি এজেন্সির মাধ্যমে জনশক্তি নেয়ার ব্যবস্থা করেছিল। কিন্তু এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর নেতৃত্বে মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগসাজশে একটি চক্র ওই ১০ এজেন্সিকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে শ্রমিকদের কাছ থেকে দুই বছরে অন্তত ২০০ কোটি রিঙ্গিত হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে।পরে গত জুনে ওই ব্যবস্থা স্থগিত করে দেশটির সরকার। তাই আমরা এখন নতুন ব্যবস্থার মাধ্যমে বাংলাদেশের সব এজেন্টের জন্য কর্মী দেয়ার সুযোগ করে দিতে চাই।

গত জুনে মালয়েশিয়ার স্টার অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ১০ এজেন্টের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় লোক পাঠাতে মাথাপিছু সর্বোচ্চ ২ হাজার রিংগিত খরচ হওয়ার কথা। সেখানে এজেন্টরা বাংলাদেশি শ্রমিকদের কাছ থেকে ২০ হাজার রিংগিত আদায় করছিল। এর অর্ধেক টাকা যাচ্ছিল সেই সিন্ডিকেটের হাতে, যার বিনিময়ে তারা ওয়ার্ক পারমিট ও বিমানের টিকেটের ব্যবস্থা করে দিচ্ছিল।

২০১৬ সাল থেকে গত জুন পর্যন্ত এক লাখের বেশি বাংলাদেশি শ্রমিক ওই প্রক্রিয়ায় মালয়েশিয়ায় গেছেন এবং আরও অন্তত একলাখ লোক মালয়েশিয়ায় যাওয়ার অপেক্ষায় আছেন।

প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মুহাম্মদ বলেন, নতুন ব্যবস্থা চালুর জন্য তার সরকার একটি ‘স্বাধীন’ কমিটি করে দেবে, যে কমিটি সার্বিক অবস্থা পর্যালোচনা করে সুপারিশ করবে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: