রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে ডাক্তারদের প্রাইভেট চেম্বার বন্ধ, ফার্মেসিতেই চিকিৎসা  » «   ৯ এপ্রিল পবিত্র শবে বরাত  » «   এবার স্পেনও ছাড়ালো চীনকে, ২৪ ঘণ্টায় ৭৩৮ মৃত্যু  » «   সিলেট বিভাগে বৃহস্পতিবার থেকে গণপরিবহন বন্ধ  » «   করোনা মোকাবিলায় দেশে দেশে লকডাউন  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তি, করোনা বদলে দিচ্ছে রাজনীতি  » «   খালেদার মুক্তির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাল যুক্তরাষ্ট্র  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তিতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক দেখছেন ড. কামাল  » «   করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে গ্রিসে লকডাউন  » «   বান্দরবানের ৩ উপজেলা লকডাউন  » «   ইতালিতে একদিনে ৭৪৩ জনের মৃত্যু  » «   ফ্রান্সে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮৬ মৃত্যু  » «   নিউইয়র্কে করোনায় আক্রান্ত ২০ হাজার ছাড়াল  » «   সাধারণ ছুটিতে চালু থাকবে ব্যাংক  » «   করোনাভাইরাস: উৎকণ্ঠিত সিলেট, উদ্বিগ্ন মানুষ  » «  

‘বাংলাদেশে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে পাকিস্তান’



bang-pak-3স্পোর্টস ডেস্ক :: বাংলাদেশ সফরকে সামনে রেখে পাকিস্তানের নতুন দল ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন দেশটির সাবেক ক্রিকেটারকা। তবে সাবেক টেস্ট অধিনায়কব রমিজ রাজা স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে মিসবাহ-আফ্রিদি-আজহার আলীরা কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বেন বলে দলকে সতর্ক করে দিয়েছেন।

রজিম রাজা বলেন, ‘আমি পরিষ্কার করে বলতে চাই, বাংলাদেশ দলে বেশ পরিবর্তন এসেছে এবং সদ্য-সমাপ্ত বিশ্বকাপে তারা যথেষ্ট ভালো পারফরমেন্স করেছে। বিশেষ করে তাদের ব্যাটসম্যানরা আমাদের চেয়ে ভালো করেছে। তাই আমি মনে করি, বাংলাদেশের মাটিতে তাদের বিপক্ষে আমাদের সীমিত ওভারের ম্যাচগুলো সহজ হবে না। সিরিজটি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে এবং জমজমাট লড়াই হবে বলেই আমার বিশ্বাস।’

দীর্ঘদিন পর সাঈদ আজমল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে নিজের চেনা ছন্দ ফিরে পাবেন কী-না তা নিয়েও সন্দেহ রয়েছে রমিজ রাজার।

তিনি বলেন, ‘যখন কোনো বোলারের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করা হয় এবং তাকে পরীক্ষার মুখোমুখি হতে হয়, তখন পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষে সেই বোলার আগের চেনা ছন্দে থাকতে পারে কী-না তা নিয়ে আমার সন্দেহ রয়েছে। আজমলের জন্যও আগের সেই চেনা ছন্দ ও সাফল্য পাওয়াটা খুব একটা সহজ হবে না।’

তবে দলে আজমলের অন্তর্ভূক্তি সঠিক সিদ্ধান্ত বলে মনে করেন বাংলাদেশকে নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করে বারবার শিরোনামে আসা রমিজ রাজা।

তিনি বলেন, ‘কিন্তু তাকে দলে অন্তর্ভূক্ত করা সঠিক ও যথোপযুক্ত সিদ্ধান্ত বলে আমি মনে করি। কেননা, তার উন্নতি কতোটুকু হয়েছে সেটা আজ না হয় কাল তো পরীক্ষা করে দেখতে হতোই।’

পাকিস্তান ক্রিকেটকে আগের সেই আক্রমণাত্মক খেলার ঢঙে ফিরতে হবে বলে মনে করেন দেশটির সাবেক এই তারকা।

পাকিস্তানের ১৯৯২ বিশ্বকাপজয়ী দলের অন্যতম সদস্য বলেন, ‘আক্রমণাত্মক খেলা এবং আক্রমণাত্মক বোলিং করে উইকেট তুলে নেয়া, দ্রুত রান তোলা আমাদের ডিএনএ’তে ছিল। কিন্তু এবারের বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ ছাড়া আর কোনো খেলায় আমি তাদের মধ্যে সেই আক্রমণাত্মক দর্শন না দেখে বেশ হতাশ হয়েছি। সাফল্য পেতে হলে আমাদেরকে অবশ্যই আক্রমণাত্মক ও ডর-ভয়হীন ক্রিকেট খেলতে হবে।’

প্রসঙ্গত, তিনটি ওয়ানডে, দুটি টেস্ট ও একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার জন্য ভিন্ন তিন অধিনায়কের নেতৃত্বে আগামী ১৩ এপ্রিল বাংলাদেশ সফরে আসবে পাকিস্তান। টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে যথারীতি অধিনায়ক থাকবেন যথাক্রমে মিসবাহ উল হক ও শহিদ আফ্রিদি। অন্যদিকে ওয়ানডেতে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হতে যাচ্ছে আজহার আলীর।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: