বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ছাত্রীর সঙ্গে শিক্ষকের কুকীর্তি ফাঁস!  » «   মায়ের পছন্দ ব্রাজিল, সমর্থক জয়ও  » «   পুলিশ কমিশনার‘ঈদগাহে ছাতা ও জায়নামাজ ছাড়া অন্য কিছু নয়’  » «   ‘আমিও প্রেগনেন্ট হয়েছি, অনেকবার অ্যাবরশনও করিয়েছি’  » «   গুগল পেজ ইরর দেখায় কেন?  » «   রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, সিইসি কে কোথায় ঈদ করছেন  » «   ইসি সচিব : তিন সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা  » «   বিপজ্জনক রূপ নিয়েছে মনু ও ধলাই  » «   বিশ্বকাপের একদিন আগে বরখাস্ত স্পেন কোচ!  » «   ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৭ কি.মি. যানজট  » «   শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে আলিয়ার সোজা কথা!  » «   যে কারণে ইউনাইটেড হাসপাতালে যেতে চান খালেদা  » «   খালেদা চিকিৎসা চান নাকি রাজনীতি করছেন : সেতুমন্ত্রী  » «   যানজটের কথা শুনিনি, কেউ অভিযোগও করেননি  » «   ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান ‘বকশিসের নামে নীরব চাঁদাবাজি নেই’  » «  

বছরের শেষে ধেয়ে আসছে ভয়ঙ্কর বিপদ!



নিউজ ডেস্ক::একটি পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা হঠাৎ করে সুনামির আশংকায় সকল পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ করা শুরু করেছে। জানা যায় যে, একজন ভারতীয় জ্যোতিষ রয়েছে, যিনি ভূমিকম্পের ভবিষ্যৎবাণী সঠিকভাবে করতে পারে। তিনি এবার জানিয়েছেন যে, এই বছরের শেষে সুনামির আশংকা রয়েছে।

বাবু কালাইয়িল, যিনি নিজের অন্তর্নিহিত ক্ষমতা থাকার জন্য বেশ পরিচিত, তিনি ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এই বছরের শেষের দিকে একটি সুনামির পূর্বাভাস দিয়েছিলেন। যদিও ভারতীরা এটিকে হালকাভাবে গ্রহণ করেছে, পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থাটি এটি গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করেছে এবং এই বছরের শেষের দিকে ভারত মহাসাগরে একটি ভূগর্ভস্থ ভূমিকম্পের আশংকায় দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করে দিয়েছে।

পাকিস্তানি পত্রিকা লিখেছে, কালাইয়িলের পূর্বাভাসের পর গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাগণ সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য ভূমিকম্প পুনর্বাসন ও পুনর্গঠন কর্তৃপক্ষকে (ইআরআরএ) আরও সতর্ক করেছে।

একটি সুনামি, অথবা জোয়ারের ঢেউ, একটি ভূগর্ভস্থ ভূমিকম্প দ্বারা সৃষ্ট হয় যা প্রায়ই বৃহৎ পরিমাণে পানির জলোচ্ছ্বাসের সৃষ্টি করে। যার ফলে পানি একটি বিপর্যয়কর পরিণতিতে রুপ নেয়।

২০০৪ সালের ২৬শে ডিসেম্বর ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপের উপকূলে সমুদ্রগর্ভে সংঘটিত ভূমিকম্প যে সুনামির অবতারণা ঘটায়, তা-তে দুই লাখ ত্রিশ হাজার মানুষ প্রাণ হারান, ইন্দোনেশিয়া থেকে সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকা পর্যন্ত৷ ভূমিকম্প থেকে সৃষ্ট সুনামি বিশ্বের ১৪টি দেশে প্রায় দু’লাখ ত্রিশ হাজার মানুষের মৃত্যু ঘটায়৷ সুনামির জলোচ্ছ্বাস কোথাও কোথাও ৩০ মিটার অবধি উঁচু হয়ে বেলাভূমিতে আছড়ে পড়ে, বাড়িঘর ধ্বংস করে মানুষজনকে ভাসিয়ে নিয়ে যায়৷

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: