রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ পৌষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে কয়েক’শ কোম্পানি বিনিয়োগ করবে



তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক:: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে ইতোমধ্যে আইসিটি সম্পর্কিত ব্যবসা শুরু করতে ১০ থেকে ১৫টি কোম্পানি চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। ২০১৭ সালের মধ্যে ট্রেন স্টেশন চালু হলে এখানে কয়েক’শ কোম্পানি বিনিয়োগ করবে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে এই পার্কটি পুরোদমে কাজ শুরু করবে।

সোমবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যায় গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে নির্মাণাধীন ‘ফোর টায়ার জাতীয় ডাটা সেন্টারে’র অগ্রগতি পরিদর্শন করতে এসে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার ও সেবা খাতে পাঁচ বিলিয়ন ডলারের আইসিটি রফতানি অর্জন করার লক্ষ্যমাত্রা। এই সেক্টরে আগামী পাঁচ বছরে ২০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের যে টার্গেট এতে কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

তিনি বলেন, হাইটেক পার্কের প্রাইভেট পাবলিক অংশীদার হিসেবে সামিট এবং ভারতের ইনফিনিটি এবং মালয়েশিয়া-বাংলাদেশের ফাইভার এট হোম ইতোমধ্যে তিন ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। পাশাপাশি আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে হাইটেকপার্ক ৩০ হাজার বর্গফুট জায়গা প্রস্তুত করেছে। আশা করছি ২০১৭ সালের মধ্যে প্রায় ২ লাখ বর্গফুট জায়গায় অফিস স্পেসের জন্য বরাদ্দ দেওয়া যাবে। ইতোমধ্যে বিদ্যুৎ, পানির লাইন, রেল স্টেশন, রাস্তাসহ প্রয়োজনীয় অনেক কিছু করা হয়েছে। কালিয়াকৈরের এই হাইটেক পার্কে এক লাখেরও বেশি কর্মসংস্থান হবে।

এর আগে মন্ত্রী পার্কের প্রশাসনিক ভবনের সভাকক্ষে ডাটা সেন্টার নির্মাণের সঙ্গে জড়িত চায়না ও বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন এবং প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ এমপি, প্রকল্প পরিচালক আবু সাঈদ চৌধুরী, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ এমদাদুল হক, বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটির প্রকল্প পরিচালক এএনএম সফিকুল ইসলাম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: