রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ পৌষ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী‘আসল প্রশ্নফাঁসকারী তো শিক্ষক’  » «   আগামী ২০ ডিসেম্বর তৈমুরের জন্মদিন : চলছে রাজকীয় আয়োজন  » «   কার চাপায় যুবক নিহত  » «   বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু  » «   ঘন কুয়াশার কারণে ঢাকায় বিমান চলাচল বন্ধ  » «   হোটেলে যখন একা, তখন মেনে চলুন কিছু বিষয়!  » «   এবার মাত্র ২০০০ টাকার মধ্যে স্মার্টফোন  » «   আ’লীগের আলোচনা সভা বিকেলে  » «   অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার  » «   মেয়েকে দিয়েই অন্য মেয়েদের ফাঁদে ফেলতেন এই বাবা!  » «   বিজয় দিবসে দুর্বৃত্তদের পেট্রোল বোমায় দগ্ধ ২  » «   ফ্রান্স দূতাবাসে বিজয় ও আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত  » «   সামান্য সেলফির জন্যই বিপদে পড়লেন দেশ সেরা সুন্দরী!  » «   ফিলিস্তিনি ধনকুবেরকে আটক করেছে সৌদি  » «   সেনা কর্মকর্তার বাসা থেকে কিশোরী গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার  » «  

ফেসবুক প্রেমিকাকে হারিয়ে যুবকের আত্মহত্যা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: প্রযুক্তির কল্যাণে মোবাইল সহজলভ্য হয়ে যাওয়ার পর ফোনালাপে অনেকের সঙ্গেই অনেকের প্রেম-পরকিয়ার সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও ইদানীং অনেকের সম্পর্ক গড়ে উঠছে।
তবে বাস্তবের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আচরণের তারতম্যে সম্পর্কগুলোতে বিশ্বাস, ভালবাসা, মুল্যবোধের ঘাটতি থাকছে বলে বিশেষজ্ঞদের মত।

এই তো গত মঙ্গলবারের ঘটনা। ভারতের দমদমের শেঠবাগানের রাজিব রায় ঝিলিক রায় নামে এক ফেসবুক ফ্রেন্ডকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। পরে মেয়েটি জানায়, তার বিয়ে হয়ে গেছে। এর পর আত্মহত্যা করে রাজিব।
অবশ্য প্রথমে ফেসবুকে পরিচয়ের পর প্রেম হয় তাদের। সেটাও মাস তিনেক আগের ঘটনা। বিয়ের প্রস্তাব দিলে মেয়ে তাতে আপত্তি জানায়। মেয়ের এই প্রত্যাখ্যান মেনে নিতে না পারায় ছেলে আত্মহত্যা করে।
রাজিবকে ঝিলিক পরিষ্কারভাবে জানায়, অন্য এক ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে উঠেছে তার। অথচ এই তিনমাসে নাকি রাজিবের কাছ থেকে প্রায়শই টাকা নিত ঝিলিক।
প্রেম টিকিয়ে রাখার জন্য ঝিলিককে টাকাও দিত রাজিব। কিন্তু মঙ্গলবার রাজিব ফোন করলে ঝিলিক জানায়, তার বিয়ে হয়ে গেছে এবং সে স্বামীর সঙ্গে একঘরে শুয়ে আছে। তাকে যেন আর রাজিব ফোন করে বিরক্ত না করে।
ঝিলিকের কথায় ভেঙে পড়ে রাজিব। কান্নাকাটিও করতে থাকে। রাতে ঘরে শুয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়। বুধবার সকালে অনেকক্ষণ ডাকাডাকি করেও তার সাড়া না পেয়ে পরিবারের লোকজন দরজা ভেঙে ফেলে।
ঘরে ঢুকে তারা রাজিবের মরদেহ দেখতে পান। বিছানার চাদর দিয়ে ফাঁস তৈরি করে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে রাজিব। পরে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগের পর পুলিশ ঝিলিককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: