রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে : ওবায়দুল কাদের  » «   নিজস্ব ভবন পেল আওয়ামী লীগ  » «   বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ : শুরু হচ্ছে নিয়ন্ত্রণ হস্তান্তরের কাজ  » «   ‘রাতের অন্ধকারে বছরের পর বছর ধর্ষণ করেছে বাবা’  » «   প্রধানমন্ত্রীর উপলব্ধি যথার্থ : রিজভী  » «   স্কুলের গেটে জলাবদ্ধতা, ছাত্রদের সড়ক অবরোধ  » «   তানোরে পুলিশের স্ত্রীর আত্মহত্যা  » «   কুমিল্লায় যুবকের গলা কাটা লাশ উদ্ধার  » «   সরিষাবাড়ীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «   শ্রীপুরের বাড়িটিতে ৪টি বোমার বিস্ফোরণ  » «   প্রেমিকের খোঁজ নিতে গিয়ে প্রেমিকার করুণ পরিণতি!  » «   সমকামী বিয়ে ব্রিটিশ রাজ পরিবারে  » «   এবার বিমানেও ভিক্ষাবৃত্তি!  » «   প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিদায়ী সেনা প্রধানের সাক্ষাৎ  » «   মিয়ানমারকে আল্টিমেটাম  » «  

ফের ৭৪১ জনকে হত্যা করেছে আইএস



আর্ন্তজাতিক ডেস্ক ::
ইরাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মসুল মুক্তির চূড়ান্ত লড়াইয়ের সময় ৭৪১ জন বেসামরিক ব্যক্তিকে গলা কেটে কিংবা গুলি করে হত্যা করেছে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী দায়েশ। জাতিসংঘ মানবাধিকার কার্যালয় থেকে বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, মসুল শহরে মোট দু হাজার ৫২১ জন বেসামরিক নাগরিক মারা গেছে যাদের বেশিরভাগই দায়েশের হামলায় নিহত হয়েছে। মসুলে এসব সন্ত্রাসী আন্তর্জাতিক অপরাধ করেছে বলেও মন্তব্য করেছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার জেইদ রাদ আল-হোসেইন বলেন, “এ ধরনের ঘৃণ্য অপরাধের সঙ্গে জড়িতদেরকে অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে।” গত ১০ জুলাই ইরাকের প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল-এবাদি আনুষ্ঠানিকভাবে মুসল শহরে উগ্র দায়েশ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সরকারি বাহিনীর বিজয় ঘোষণা করেন। পরাজয়ের আগ পর্যন্ত ইরাকে মসুল ছিল দায়েশের প্রধান ঘাঁটি।

জাতিসংঘ তার প্রতিবেদনে আরো বলেছে, মসুল লড়াইয়ের সময় সন্ত্রাসীরা গণভাবে বেসামরিক লোকজনকে অপহরণ করে মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছে। এর পাশাপাশি যেসব মানুষ শহর থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছে তাদের ওপর নির্বিচারে গোলাবর্ষণ করেছে। মসুল শহর উদ্ধার অভিযানের সময় আট লাখ মানুষ উদ্বাস্তু হয়েছে বলেও জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন জানিয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: