শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বিএনপির বিরুদ্ধে গায়েবি মামলার প্রমাণ নেই : আমু  » «   অংশ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য সহযোগিতা করতে প্রস্তুত ইইউ  » «   কমলগঞ্জে ট্রাক চাপায় তরুণী নিহত,চালক পালাতক  » «   বি. চৌধুরীর চায়ের দাওয়াতে যাচ্ছে ন্যাপ–এনডিপি  » «   নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় নির্বাচনের তফসিল: ইসি সচিব  » «   ঈশ্বর, মৃত্যু-পরবর্তী জীবন ও স্বর্গ নিয়ে যা ভাবতেন স্টিফেন হকিং  » «   আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক  » «   সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির দৃষ্টান্ত: এক উঠোনে মসজিদ-মন্দির  » «   খাশোগি হত্যা: যুক্তরাষ্ট্রকে সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা দিল সৌদি  » «   দুর্গাপূজা যেভাবে হলো হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব  » «   সিলেটে ফোনে কথা বলা অবস্থায় যুবকের হঠাৎ মৃত্যু  » «   ইরান কখনো পরমাণু বোমা বানাবে না: রুহানি  » «   সিলেটে সমাবেশের অনুমতি পেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   বাংলাদেশে আরো সৌদি বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী  » «   কানাডায় প্রকাশ্যে গাঁজা বিক্রি শুরু, ক্রেতাদের ভিড়  » «  

ফের বাড়তে শুরু করেছে ডিমের দাম



নিউজ ডেস্ক::রমজান মাসে মুরগির প্রতি হালি ডিমের দাম ২২-২৬ টাকায় বিক্রি হলেও। ঈদ শেষ হওয়ার পর থেকেই বাড়তে শুরু করেছে ডিমের দাম। ডিমের দাম বেড়ে বাজেরে এখন প্রতি হালি ডিম ৩০-৩৪ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। অর্থাৎ প্রতি হালি ডিমের দাম বেড়েছে অন্তত আট টাকা। রাষ্ট্রায়ত্ত বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশনের (টিসিবি) বাজার বিশ্লেষণের তথ্য মতে, এক মাসের ব্যবধানে প্রতি হালি ডিমের দাম বেড়েছে ১৩.২১ শতাংশ।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, খুচরা দোকানগুলোতে প্রতি হালি ডিম বিক্রি হচ্ছে ৩২ টাকায়। বাজারগুলোতে যেসব দোকান রয়েছে শুধুই ডিম বিক্রি করে তারা আবার ৩০ টাকা হালিতে বিক্রি করছে।অর্থাৎ প্রতি ডজন ফার্মের মুরগির ডিম কিনতে ভোক্তাদের খরচ করতে হচ্ছে ৯০-১০০ টাকা পর্যন্ত, যা রোজার মধ্যে ৭০-৭৫ টাকায় নেমে এসেছিল।

দোকানে ডিম কিনতে আসা এক ক্রেতা বলেন, ‘চার-পাঁচ দিন আগেও আমি ডিম কিনেছি ২৮ টাকা হালি। আজকে কিনলাম ৩২ টাকায়।’

ডিমের দাম বাড়ার কারন জানতে চাইলে এক দোকানী বলেন, ‘পাইকারি বাজারে দাম বেড়ে গেছে, এ জন্য আমরাও বেশি দামে বিক্রি করছি।’

কাওরান বাজারের পাইকারী ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতি ১০০ ডিম তারা বিক্রি করছে ৭০০ টাকায়। অর্থাৎ প্রতিটি ডিমের দাম পড়ছে সাত টাকা করে। অর্থাৎ এক হালির হিসাব করলে এটা দাঁড়ায় ২৮ টাকায়।

ঈদের ছুটিতে রাজধানীর মানুষ ছুটিতে যাওয়ার কারণে বেশ কিছুদিন ফাঁকাই ছিল ঢাকা। বন্ধ ছিল হোটেল-রেস্টুরেন্ট। তবে ছুটি শেষে সবাই যখন আবার টেঢাকায় ফিরেছে এবং হোলগুলো খুলতে শুরু করেছে তখনই একটু একটু করে বাড়তে শুরু করে চাহিদা। আবার চাহিদা কম থাকায় ঢাকায় সে সময় সরবরাহও ছিল কম। এখন চাহিদা সরবরাহের চেয়ে বেশি হওয়ায় ডিমের দাম বেড়েছে বলে দাবি করেন এসব ব্যবসায়ী।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: