সোমবার, ২১ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
একাদশ সংসদ নির্বাচন : বিএনপিকে নিয়ে দুই কৌশল আ’লীগের  » «   সিলেট পাসপোর্ট অফিসে রোহিঙ্গা নারী আটক  » «   মন্ত্রী-সচিবরা পাবেন ৭৫ হাজার টাকার মোবাইল  » «   রাজধানীতে নিরাপত্তা কর্মীকে খুন করে টাকা লুট  » «   চুয়াডাঙ্গার মাদক সম্রাট ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত  » «   বাসের চাপায় হাত হারিয়ে নিহত : রাজীবের ক্ষতিপূরণ দেয়ার আদেশ মঙ্গলবার  » «   নয়াপল্টনে রিজভী‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য খুলনার ভোটারদের সঙ্গে শ্রেষ্ঠ তামাশা’  » «   অবশেষে খোঁজ পাওয়া গেল সৌদি যুবরাজের!  » «   সাদা চাদরে ‘সতীত্বের পরীক্ষা’ দিতে হলো না ঐশ্বর্যকে  » «   অপুর ঘরে কোন ধর্মে বেড়ে উঠছে আব্রাম?  » «   কে হচ্ছেন ব্রাজিলের মূল স্ট্রাইকার?  » «   হবিগঞ্জে পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ১০  » «   বান্দরবানের মাটিচাপায় নিহত ৪, নিখোঁজ ১  » «   তিন মামলায় খালেদার জামিন শুনানি আজ  » «   লজ্জায় মানুষ না খেয়ে থাকার কথা বলতে পারে না —————————- : মোমিন মেহেদী  » «  

ফিনল্যান্ডের যে দ্বীপে পুরুষের প্রবেশ নিষেধ!‌



অনলাইন ডেস্ক:: পুরুষ প্রবেশ নিষেধ। এমন জায়গার অভাব নেই পৃথিবীতে। তা বলে গোটা একটা দ্বীপে পুরুষরা প্রবেশ করতে পারবেন না এটা আবার সম্ভব নাকি। অসম্ভব মনে হলেই এই কথাই সত্যি। এমনও দ্বীপ পৃথিবীতে রয়েছে।

ফিনল্যান্ডের সমুদ্র উপকূলে একটি দ্বীপ খুঁজে পেয়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ানা রোথ নামে এক মার্কিন তরুণী। বাল্টিক সাগরের সবুজ নীল জলের উপর জেগে থাকা একটুকরো এই ভূখণ্ডটির তিনি নাম দিয়েছিলেন ‘‌সুপারসি’‌। তখনই মনে মনে পরিকল্পনা করে ফেলেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানা দ্বীপটিতে শুধু নারীদের জন্য তৈরি করবেন।

এখানে কোনও পুরুষ প্রবেশ করতে পারবেন না। ভাবা মাত্রই কাজ। সবুজে ঘেরা ছোট্ট দ্বীপটিতে তিনি তৈরি করে ফেলেন একটি রিসর্ট। যেখানে থাকার অধিকার পাবেন শুধু মেয়েরাই। একেবারে স্বাধীন আর মুক্ত মেজাজে ঘুরে বেড়াতে পারবেন তারা সেখানে।

এই রিসর্টের নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কমিউনিটিও তৈরি করে ফেলেন ক্রিশ্চিয়ানা। তার নামও রেখেছেন ‘‌সুপারসি কমিউনিটি’‌। তবে কেন এই ভাবনা চিন্তা এমন প্রশ্নের উত্তরে ক্রিশ্চিয়ানা জানিয়েছেন, সবসময় পুরুষসঙ্গীকে নিয়েই বেড়াতে যেতে হবে এমন কোনও বাধ্যবাধকতায় তিনি বিশ্বাসী নন।

নিরাপত্তার কারণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মেয়েরা পুরুষদের সঙ্গে বেড়াতে যেতে বাধ্য হন। এই পরিস্থিতিতে মেয়েদের মুক্ত করেই এই ‘‌সুপারসি’ দ্বীপের ভাবনাচিন্তা। এখানে মেয়েরা নিজেদের ইচ্ছে মত যা খুশি করতে পারেন। নানা পরিস্থিতির চাপে অনেক সময়ই নিজের মনের ইচ্ছে তারা চেপে যান।

‘‌সুপারসি’ মেয়েদের সেই ইচ্ছে পূরণের সুযোগ করে দেবে। এখানে তারা যতখুশি আনন্দ, হুল্লোর করতে পারবেন। কেউ বাধা দেওয়ার থাকবে না। কেউ নজরদারি চালাবে না।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: