রবিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নিজের বিয়ে বন্ধ করতে যে কাণ্ড করেছিলেন বাজপেয়ী  » «   ভেঙে পড়ার ঝুঁকিতে ফ্রান্সের ৮৪০টি সেতু!  » «   ১ লাখ জাল নোট তৈরিতে খরচ মাত্র ১০ হাজার টাকা!  » «   সেপ্টেম্বরেই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় : আইনমন্ত্রী  » «   কফি আনানের মৃত্যুতে বিশ্ব নেতাদের শোক  » «   কেরালায় বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৭  » «   বন্যার্তদের জন্য অনন্য নজির কেরালার মাছ ব্যবসায়ী ছাত্রীর  » «   বয়স ৬২, অপরাধ ১১২, কে এই মহিলা ডন?  » «   কোরবানির পশুর হাট: মিয়ানমার থেকে গবাদি পশুর রেকর্ড আমদানি  » «   ‘এবার নয়, সংলাপ হবে পরবর্তী নির্বাচনে’  » «   হজযাত্রীর মৃত্যুর সংখ্যা অর্ধশতাধিক  » «   পশুর মজুদ পর্যাপ্ত, সঙ্কটের আশঙ্কা নেই: প্রাণিসম্পদমন্ত্রী  » «   হাসপাতালের টয়লেটে জোর করে স্কুলছাত্রীর নগ্ন ছবি ধারণ!  » «   সোনারগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রী‘রাজধানীতে বস্তি থাকছে না  » «   জামিন পেলো সেই ২২ শিক্ষার্থী  » «  

ফিনল্যান্ডের যে দ্বীপে পুরুষের প্রবেশ নিষেধ!‌



অনলাইন ডেস্ক:: পুরুষ প্রবেশ নিষেধ। এমন জায়গার অভাব নেই পৃথিবীতে। তা বলে গোটা একটা দ্বীপে পুরুষরা প্রবেশ করতে পারবেন না এটা আবার সম্ভব নাকি। অসম্ভব মনে হলেই এই কথাই সত্যি। এমনও দ্বীপ পৃথিবীতে রয়েছে।

ফিনল্যান্ডের সমুদ্র উপকূলে একটি দ্বীপ খুঁজে পেয়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ানা রোথ নামে এক মার্কিন তরুণী। বাল্টিক সাগরের সবুজ নীল জলের উপর জেগে থাকা একটুকরো এই ভূখণ্ডটির তিনি নাম দিয়েছিলেন ‘‌সুপারসি’‌। তখনই মনে মনে পরিকল্পনা করে ফেলেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানা দ্বীপটিতে শুধু নারীদের জন্য তৈরি করবেন।

এখানে কোনও পুরুষ প্রবেশ করতে পারবেন না। ভাবা মাত্রই কাজ। সবুজে ঘেরা ছোট্ট দ্বীপটিতে তিনি তৈরি করে ফেলেন একটি রিসর্ট। যেখানে থাকার অধিকার পাবেন শুধু মেয়েরাই। একেবারে স্বাধীন আর মুক্ত মেজাজে ঘুরে বেড়াতে পারবেন তারা সেখানে।

এই রিসর্টের নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কমিউনিটিও তৈরি করে ফেলেন ক্রিশ্চিয়ানা। তার নামও রেখেছেন ‘‌সুপারসি কমিউনিটি’‌। তবে কেন এই ভাবনা চিন্তা এমন প্রশ্নের উত্তরে ক্রিশ্চিয়ানা জানিয়েছেন, সবসময় পুরুষসঙ্গীকে নিয়েই বেড়াতে যেতে হবে এমন কোনও বাধ্যবাধকতায় তিনি বিশ্বাসী নন।

নিরাপত্তার কারণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মেয়েরা পুরুষদের সঙ্গে বেড়াতে যেতে বাধ্য হন। এই পরিস্থিতিতে মেয়েদের মুক্ত করেই এই ‘‌সুপারসি’ দ্বীপের ভাবনাচিন্তা। এখানে মেয়েরা নিজেদের ইচ্ছে মত যা খুশি করতে পারেন। নানা পরিস্থিতির চাপে অনেক সময়ই নিজের মনের ইচ্ছে তারা চেপে যান।

‘‌সুপারসি’ মেয়েদের সেই ইচ্ছে পূরণের সুযোগ করে দেবে। এখানে তারা যতখুশি আনন্দ, হুল্লোর করতে পারবেন। কেউ বাধা দেওয়ার থাকবে না। কেউ নজরদারি চালাবে না।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: