সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শাস্তির বিধান রেখে সম্প্রচার আইনের খসড়া অনুমোদন  » «   সম্পাদক পরিষদের তথ্যে ঘাটতি আছে: তথ্যমন্ত্রী  » «   প্রশ্নফাঁস: ঢাবির ঘ ইউনিটের ফল প্রকাশ স্থগিত  » «   আমেরিকার সতর্কতার জবাবে পাল্টা ব্যবস্থার হুমকি সৌদির  » «   বন্দরবাজারে স্বেচ্ছাসবক দলের মিছিলে পুলিশের বাধা, আটক ১  » «   সন্ত্রাসীদের হুমকি নভেম্বরেই খুন করা হবে মোদিকে!  » «   শাহবাগ-সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা বন্ধে আইনি নোটিশ  » «   ফেক এনকাউন্টার: ভারতে সাত সেনা সদস্যের যাবজ্জীবন  » «   আবারো নির্বাচন কমিশনের সভা বর্জন করলেন কমিশনার মাহবুব  » «   বিতর্কিত ৯টি ধারা সংশোধনের দাবিতে সম্পাদক পরিষদের মানববন্ধন  » «   সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতিতে আজ ইসির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক  » «   পৃথিবী বাঁচাতে হলে বন্ধ করতে হবে মাংস খাওয়া!  » «   শাহজালালে ৭ কেজি সোনাসহ মালয়েশিয়ার নাগরিক আটক  » «   ইরানের ‘সরকার পরিবর্তন’ করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র: রুহানি  » «   দুর্গা পূজা উপলক্ষে সব মানুষের শান্তি কামনা রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর  » «  

প্রেসক্লা‌বে মোশাররফ‘আওয়ামী লী‌গের সময় শেষ’



নিউজ ডেস্ক::আওয়ামী লী‌গের সময় শেষ হ‌য়ে গে‌ছে, তা‌দের‌কে দে‌শের জনগণ আর ক্ষমতায় দেখ‌তে চায় না বলে মন্তব্য করেছেন বিএন‌পির স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হো‌সেন।

তিনি বলেন, সমা‌বেশ থে‌কে বার্তা দেওয়া হ‌য়ে‌ছে যে, এই সরকা‌রের দিন শেষ।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লা‌বের আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তি‌নি এসব কথা বলেন। “জাতীয় বিপ্লর ও সংহ‌তি দিবস” উপল‌ক্ষে এ আলোচনা সভার আ‌য়োজন ক‌রে বাংলা‌দেশ জাতীয়তাবাদী কৃষক দল।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন ব‌লেন, ‘সমা‌বে‌শের অনুম‌তি আপনারা এত‌দিন দেন নাই, আপনারা স্বৈরাচারী আচরণ ক‌রে‌ছেন। তবুও যারা আসার, তারা পা‌য়ে‌ হেঁটে চ‌লে এসে‌ছে। সমা‌বেশ থে‌কে বার্তা দেয়া হ‌য়ে‌ছে যে, এই সরকা‌রের দিন শেষ! আওয়ামী লী‌গের সময় শেষ হ‌য়ে গে‌ছে। তা‌দের‌কে দে‌শের জনগণ আর ক্ষমতায় দেখ‌তে চায় না।

তিনি ব‌লেন, ‘৭ই ন‌ভেম্ব‌রের যে ঘটনা, সে ঘটনা‌কে বিকৃত ক‌রে এক‌টি‌ মহল সু‌বিধা নি‌চ্ছে। আমা‌দের জা‌তিস্বত্তার প‌রিচয় আমরা বাংলা‌দেশী, ভার‌তের একটা অং‌শে অনেকেই বাঙালি, আমা‌দের স‌ঠিক প‌রিচয় তু‌লে ধ‌রে‌ছেন জিয়াউর রহমান।ধর্মনিরপেক্ষতার না‌মে যে ধর্মহীনতা তা জিয়াউর রহমান দূরীভূত করার পদ‌ক্ষেপ নেন।’

বিএনপির এই সিনিয়র নেতা ব‌লেন, ”একজন মন্ত্রী ব‌লে‌ছেন” ‘তি‌নি না‌কি জিয়াউর রহমা‌নের নামই জা‌নেন না”। ২৬ শে মা‌র্চের আগে জিয়াউর রহমা‌নের নাম কেউ জান‌তো না, তার মা‌নে কি? জিয়াউর রহমা‌নের ভূ‌মিকার কারণেই তাঁ‌কে সবাই চিনে। গণতন্ত্র‌কে পুনরুদ্ধার ক‌রে‌ছিল কে? জিয়াউর রহমান, তাহ‌লে বাকশাল হত্যা ক‌রে‌ছিল কে? এজন্যই আওয়ামী লীগ নেতা ক্ষেপা।’

একই আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে বিএন‌পির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু ব‌লে‌ন, আওয়ামী লী‌গের অপশাস‌নেই ৭ই ন‌ভেম্বরের সৃ‌ষ্টি, য‌দি জিয়াউর রহমান য‌দি সে‌দিন ঘোষণা‌ দি‌তেন, আরো ভয়াবহ অবস্থার সৃ‌ষ্টি। গুম খুন অপহরণ য‌দি বন্ধ কর‌তে হয়, তাহ‌লে বেগম খা‌লেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী কর‌তে হ‌বে। কেমনভা‌বে কর‌বো? বর্তমান নিয়‌মে না হ‌লে, ৯১, ৯৬, ২০০১ চাই‌লে ২০০৮ এর ম‌তো কর‌বো। তবুও আওয়ামী লী‌গের অধী‌নে হ‌বে না। তা‌দের অধী‌নে নির্বাচ‌নে যা‌বো ঠেকা পর‌ছে না‌কি? আমরা এবার আন্দোলন কত প্রকার কি কি দে‌খি‌য়ে দে‌বো।

এ সময় আলো উপ‌স্থিত ছি‌লেন, ‌বিএন‌পি চেয়ারপারস‌নের উপ‌দেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম মহাস‌চিব সৈয়দ মোয়া‌জ্জেম হো‌সেন আলাল, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: