শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে নির্মাণ হতে যাচ্ছে স্মৃতিসৌধ,পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ডিও লেটার  » «   সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের ১০ ধাপ অবনতি  » «   জাফর ইকবালকে হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু  » «   আইডিয়া’র ২৫ বছর পূর্তি উৎসবে র‍্যালি, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান  » «   উন্নয়ন করতে গিয়ে জীবন ও জীবিকার যেন ক্ষতি না হয় : প্রধানমন্ত্রী  » «   আজ দিন রাত সমান, আকাশে থাকবে সুপারমুন  » «   সহকর্মীর হাতে খুন হলেন তিন ভারতীয় সেনা  » «   মসজিদে হামলাধারী ব্রেন্টন আইএস থেকে ভিন্ন কিছু নয়: এরদোগান  » «   সিলেটে মেশিনে আদায় হবে যানবাহনের মামলার জরিমানা  » «   গ্যাসের দাম ১৩২% বৃদ্ধির প্রস্তাব হাস্যকর  » «   মেয়রের আশ্বাসে ২৮ মার্চ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত  » «   দরিদ্র বলে এদেশে কিছু থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী  » «   এক সপ্তাহের মধ্যে আবরারের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ  » «   গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি ওমরের মুখে মসজিদে হামলার লোমহর্ষক বর্ননা…  » «   আজ প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী,আ. লীগের শ্রদ্ধা  » «  

প্রবাসীরা চায় বিনিয়োগ করতে, সরকার দেখায় অনাগ্রহ



2016_03_21_19_51_04_bBjqeQdiZDopLpnTTZATQfps24NVpx_originalনিউজ ডেস্ক : প্রবাসীদের বিনিয়োগের জন্য দেশে ওয়ান স্টপ সার্ভিস না থাকায় প্রতিনিয়তই তারা বিভিন্ন ধরনের হয়রানির শিকার হয়ে থাকেন। এতে করে প্রবাসীরা দেশে বিনিয়োগের আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন। আর তাই প্রবাসীদের বিনিয়োগে আগ্রহী করতে দ্রুত বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ডের সুদের হার বাড়াতে হবে এবং নতুন করে বাজারে বন্ড ছাড়তে হবে। পাশাপাশি প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সরকারের যে অনাগ্রহ তা দূর করে যথাযথ পরিবেশ তৈরি করে দিতে হবে।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘প্রবাসী ইনভেস্টমেন্ট ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক মুক্ত আলোচনায় বিষয়গুলো উঠে আসে। বিনিয়োগে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্রের প্রবাসী বাঙ্গালী কল্যাণ সমিতি এ মুক্ত আলোচনার আয়োজন করে।

আলোচনায় যুক্তরাজ্য প্রবাসী ডা. হারুনুর রশিদ বলেন, ‘বিগত সময়ের অভিজ্ঞতা থেকে বলা যায়, দেশে রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য সবার মাঝে একটা ধারণা তৈরি হয়েছে যে, এখানে বিনিয়োগ করলেই মূলধন হারিয়ে যায়। খালি হাতে ফিরতে হয়। তাই অনেকেই বিনিয়োগ করার আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন। কিন্তু এখন দেশের অবস্থা বেশ ভালো। তাই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে আমাদের বিনিয়োগ করতে হবে।’

সৌদি আরব প্রবাসী ডা. সমির কুমার দত্ত বলেন, ‘প্রবাসীরা দেশে বিনিয়োগ করতে চায়। কিন্তু ওয়ানস্টপ সার্ভিস না থাকায় দেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে তারা বিভিন্ন ধরনের হয়রানির শিকার হয়। তাই প্রবাসীদের বিনিয়োগে আগ্রহী করতে দ্রুত বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ডের সুদের হার বাড়াতে হবে। পাশাপাশি নতুন করে বাজারে বন্ড ছাড়তে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পাশ্ববর্তী ভারতেই প্রবাসীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের বন্ডে বিনিয়োগ করতে তাদের অন্যদের চেয়ে বেশি সুদ প্রদান করে থাকে।’

যুক্তরাজ্য প্রবাসী সৈয়দ একামত আলী আগ্রহ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা প্রবাসীরা সামগ্রিকভাবে ভাল আছি। এখন আমাদের দায়িত্ব স্বদেশের উন্নয়ন করা। তাই বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা দেশের চলমান উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে চায়।’

আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে আগ্রহী প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগে উৎসাহিত করে হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক ডা. মুশফিক হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘কোরিয়া, চায়নাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের যদি এ দেশে বিনিয়োগে উৎসাহ দেয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের ছাড় দেয়া হয়, তারা যদি সফলভাবে ব্যবসা করতে পারে, তাহলে প্রবাসী বাংলাদেশিরা কেন নিজ দেশে বিনিয়োগ করতে পারবে না? সারাদেশের কথা জানিনা, তবে প্রবাসীরা যদি সিলেটে বিনিয়োগ করতে চায় তাহলে আমি ব্যক্তিগতভাবে তাদের সহযোগিতা করবো।’

এই মুক্ত আলোচনায় পররাষ্ট্র, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বিনিয়োগ বোর্ডসহ বিভিন্ন দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের আমন্ত্রণ জানানো হলেও তারা না আসায় হতাশা প্রকাশ করেন বিনিয়োগে আগ্রহী প্রবাসীরা।

এ প্রসঙ্গে আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান বজলু চৌধুরী বলেন, ‘পররাষ্ট্র, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বিনিয়োগ বোর্ডসহ বিভিন্ন দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু তারা আমাদের ডাকে সাড়া দেয়নি।’

এসময় তিনি উদাহরণ টেনে বলেন, ‘বিদেশে আমরা কোনো কাজে কংগ্রেস ম্যানকে দাওয়াত দিলে তিনি আসতে না পারলে অন্তত ‘নো’ লিখে পাঠিয়ে দেন বা তার অবর্তমানে অন্য কাউকে পাঠান। কিন্তু বাংলাদেশে মন্ত্রীরা বা সরকারি কোনো কর্মকর্তাদের চিঠি বা ইমেইল দিলে সেখান থেকে কোনো উত্তর পাওয়া যায় না। আমার মনে হয় তারা চিঠি বা ইমেইলটা খুলেও দেখেন না।’

কল্যাণ সমিতির সভাপতি মোশারফ আলম জানান, আমাদের সংগঠনটি প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে বিনিয়োগে আগ্রহী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের বিকাশে বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

আলোচনা সভা থেকে প্রবাসীদের বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র এবং ভোটাধিকারের অধিকার ফিরিয়ে দেয়ারও আহ্বান জানানো হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: