মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   সুনামগঞ্জে অজ্ঞাতনামা যুবকের মরদেহ উদ্ধার  » «   বন্দরবাজার থেকে ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আফগান প্রেসিডেন্টকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা, নিহত ২৪  » «   বিভাগীয় শহরে হচ্ছে পূর্ণাঙ্গ ক্যান্সার চিকিৎসাকেন্দ্র  » «   মৌলভীবাজার থেকে হত্যা মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার  » «   হবিগঞ্জে বিজিবির অভিযানে ১৯ কেজি গাঁজা উদ্ধার  » «   উপজেলা নির্বাচন: হবিগঞ্জ আ.লীগের ১০ বিদ্রোহী প্রার্থীকে শোকজের চিঠি  » «   রোমে যে কারণে আলোচিত প্রবাসী বাংলাদেশি তরুণ  » «   বিকেলে ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী  » «   বিতর্কিত আইনে কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী গ্রেপ্তার  » «   অপমানজনক বিতাড়ণের আগে সিনেট ও ডাকসু ছাড়ুন: শোভন-রাব্বানীকে ভিপি নুর  » «   পেঁয়াজ নেই, তবুও বিক্রির ঘোষণা টিসিবির!  » «   শর্ত ভেঙে ‘অযোগ্য’ প্রতিষ্ঠানকে কাজ দিচ্ছে গণপূর্ত  » «   মেট্রোরেলের জন্য আলাদা পুলিশ ইউনিট গঠনের নির্দেশ  » «  

প্রধানমন্ত্রী বরিসের বিরুদ্ধে আদালতে যাচ্ছেন ব্রিটিশ এমপিরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ব্রেক্সিট (ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসা) পেছাতে রাজি না হলে তার বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়ার হুমকি দিয়েছেন দেশটির পার্লামেন্টের সদস্যরা। তারা এ বিষয়ে ইতিমধ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন বলেও জানা গেছে। এই দলে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর দ্বারা বরখাস্ত হওয়া টোরি এমপিরাও রয়েছেন।

চুক্তি ছাড়া বেক্সিট এড়াতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কাছে সময় বাড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে দায়িত্ব দিয়ে একটি বিল রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অনুমতির অপেক্ষায় রয়েছে। আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাবার কথা রয়েছে ব্রিটেনের।

কিন্তু ওই তারিখের মধ্যেই ব্রেক্সিট সম্পন্ন করার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস। এ সম্পর্কে তার অভিমত হচ্ছে, বেক্সিট পেছানোর চেয়ে তিনি বরং খাদে লাফ দিয়ে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করে নেয়াকে বেশি পছন্দ করবেন। তবে আইনি বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে দিয়ে বলছেন, নতুন আইনটি মানতে অস্বীকার করলে প্রধানমন্ত্রীকে কারাগারে যেতে হতে পারে।

চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট এড়াতে পাশ হওয়া আইনটির বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে দরকার হলে আদালতে লড়াই করার জন্য আইন বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি দল গঠন করেছে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বিরোধী আর বিদ্রোহী সদস্যরা। ব্রেক্সিটের পক্ষে আর বিপক্ষের সমর্থকরা শনিবার ওয়েস্ট মিনিস্টারে সমাবেশ করেছে, যাদের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

একাধিক পার্টির এমপিদের আনা ওই বিলে বলা হয়েছে, আগামী অক্টোবরের মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে একটি চুক্তির ব্যাপারে পার্লামেন্ট যদি সম্মত না হয়, তাহলে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে বেক্সিট কার্যকর করার জন্য ২০২০ সালের জানুয়ারি মাস পর্যন্ত সময় চাইতে হবে।

এদিকে ২১ এমপিকে বরখাস্ত করার প্রতিবাদে শনিবার মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগে করছেন ব্রিটেনের নিয়োগ ও অবসর বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাম্বার রুড। তিনি এই বরখাস্তের ঘটনাকে ‘শালীনতা ও গণতন্ত্রের উপর আক্রমণ’হিসাবে বর্ণনা করেছেন। তিনি বরিসের কোনো চুক্তি ছাড়াই ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসার পরিকল্পরও সমালোচনা করেছেন।

গত মঙ্গলবার ব্রিটিশ পার্লামেন্ট ভোটাভুটিতে হেরে যাওয়ার পর চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট ঠেকাতে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলের ২১ বিদ্রোহ এমপিকে বরখাস্ত করেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

সূত্র: বিবিসি

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: