শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
উ. কোরিয়ায় কম্পন, ফের পারমাণবিক পরীক্ষা!  » «   পানিতে ডুবে স্বামী পরিত্যক্তার মৃত্যু  » «   দেবের আচরণে রোশানের হতাশা  » «   পুলিশের খোয়া যাওয়া অস্ত্র উদ্ধার  » «   মহানন্দায় বালুভর্তি ট্রলার ডুবি, নিখোঁজ ১  » «   বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতা নয় : প্রধানমন্ত্রী  » «   কুমিল্লা-৫ আসনে সমান অবস্থানে আ’লীগ বিএনপি, জামায়াতের ভোটব্যাংক  » «   পাক ব্যাংকে দুর্নীতি, অভিযুক্ত ৭ বাংলাদেশি  » «   ‘বাবার সঙ্গে হানিপ্রীতকে নগ্ন অবস্থায় দেখেছি’  » «   ব্রিফকেসের ভেতর যুবকের লাশ!  » «   ছুটি নিয়ে রাজনৈতিক প্রচারণায় সাকিব: অর্থায়নে রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়  » «   ভয়ংকর ভাবে ছড়িয়ে পড়ছে ‘সুপার ম্যালেরিয়া’  » «   আমেরিকান প্রবাসী পরিবার কর্তৃক রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সহায়তা  » «   নবীগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি  » «   চাপে আছেন মুসা, দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা  » «  

প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য হাস্যকর: ফখরুল



নিউজ ডেস্ক ::

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকারের কূটনৈতিক ব্যর্থতা ঢাকতে এবং জনগণের দৃষ্টিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতেই জিয়া পরিবারের নামে মিথ্যাচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

এ সময় জিয়া পরিবারের সম্পদ পাচার নিয়ে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যকে মিথ্যাচার ও কল্পকাহিনী বলে দাবি করে করেন মির্জা ফখরুল।

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

গতকাল বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সংসদে জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘জিয়া পরিবারের সদস্যদের বিদেশে টাকা পাচারের তদন্ত হচ্ছে’ সংসদে প্রধানমন্ত্রীর করা এ মন্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট।

হীন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এই ধরনের মিথ্যাচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করে, রোহিঙ্গা সমস্যার মোকাবেলায় ব্যর্থতা ঢাকতে শেখ হাসিনা ও মন্ত্রী পরিষদের সদস্যবৃন্দ অবলীলায় মিথ্যাচার করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সরকারের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, সুশাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক গতি সঞ্চার করতে, বন্যা পরবর্তী সংকট মোকাবেলা করতে, বেহাল সড়ক সচল করতে, রাখাইনে গণহত্যা ও রোহিঙ্গাদের বিতাড়নে নিন্দা জানাতে ব্যর্থতা, চালের দাম কমাতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ এই সরকার তাদের ব্যর্থতা ঢাকতেই এই মিথ্যাচার করছে।

এই সরকার দুর্নীতিতে নিমজ্জিত মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, মেগা প্রজেক্টের নামে সরকার বিলিয়ন ডলার লোপাট করছে, লুট করছে জনগণের সম্পদ।

বিএনপি’র সিনিয়র নেতৃবৃন্দের নামে বিদেশে যে কল্পিত সম্পদের কথা বলা হয়েছে তা হাস্যকর দাবি করেন মির্জা ফখরুল। একই সঙ্গে সরকারকে চ্যালেঞ্জ করে বলেন, এই ধরণের কল্পকাহিনীর কোন প্রমাণ তারা ১০ বছর তন্ন তন্ন করে খুঁজেও বের করতে পারেননি, এখনও পারবেন না। এই মিথ্যাচার শুধুমাত্র দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপির নেতৃবৃন্দের ভাবমূর্তি বিনষ্ট করার হীন উদ্দেশ্যে করা হচ্ছে।

এ সময় এই মিথ্যাচারের প্রতিবাদ ও নিন্দা এবং এ ধরনের মিথ্যাচার থেকে বিরত থাকার এবং ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব।

বিএনপির ত্রাণের গাড়ি আটকে দেয়ার প্রতিবাদ করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ২২ ট্রাক ত্রাণ নিয়ে বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে গত ১৩ সেপ্টেম্বর তারিখে কক্সবাজার থেকে উখিয়া রওনা দিলে পুলিশ বাধা দেয়। নেতৃবৃন্দকে বিএনপি অফিসে অবরুদ্ধ করে রাখে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আওয়ামী লীগের নামে সরকারী অর্থে ত্রাণ বিতরণ করেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, জনাব সাধারণ সম্পাদক বিদেশে বর্তমান সরকারের মন্ত্রী কার কত সম্পদ রয়েছে ইতিমধ্যে দেশী বিদেশীর মিডিয়াতে আসতে শুরু করেছে, কানাডায় কারা বেগম পল্লী, মালয়েশিয়ায় সেকেন্ড হোম, সিঙ্গাপুর, ব্যাংককে বিশাল শপিং মল কিনেছেন, আমেরিকায় কারা নতুন বাড়ী কিনেছেন, কতগুলো বাড়ী কিনেছেন-তা এখন দেশবাসীর অজানা নয়।

ত্রাণের নামে আওয়ামী লীগের বিশাল লুটপাটের সুযোগ সৃষ্টি করে, অন্য কাউকে ত্রাণ দেয়ার সুযোগ না দেয়া মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে বলেও জানান তিনি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: