মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
শ্রীমঙ্গলে থামছে না অসাধু ব্যবসায়ীদের অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, নিশ্চুপ প্রশাসন!  » «   জাজিরা প্রান্তে বসল ১১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ১৬৫০ মিটার  » «   দক্ষিণ সুরমায় ইজতেমার অনুমোদন এখনো মেলেনি  » «   সিলেটের ৯টি উপজেলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু  » «   শোকে স্তব্ধ শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১১  » «   জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার  » «   ভারতের মিডিয়া ও বিজেপির প্রতি ক্ষুব্ধ শ্রীলঙ্কার নেটিজেনরা  » «   পড়াশোনা না করলে জীবনের অর্থ সংকীর্ণ হয়ে ওঠে: শিক্ষামন্ত্রী  » «   এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির’ শরবত খাওয়াবেন জুরাইনবাসী  » «   হুমকি না থাকলেও সতর্ক আছে বাংলাদেশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   নকল তামাক পণ্য : হুমকিতে জনস্বাস্থ্য, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার  » «   ৬ দিনের সফরে সিলেটে পৌঁছেছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ  » «   শাহজালাল বিমানবন্দরের টয়লেট থেকে ৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে ঘরে ঢুকে হত্যাচেষ্টা, ছুরিসহ আটক  » «   শ্রীলংকায় বোমা হামলায় সুনামগঞ্জের শিশু জায়ান নিহত  » «  

প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১০ মিনিট সময় চান ড. কামাল



নিউজ ডেস্ক::প্রধানমন্ত্রী অনেক ব্যস্ত, রাষ্ট্রের অভিভাবক হিসেবে কাজের চাপে অনেক ব্যস্ত থাকেন। তারপরও তিনি যদি ১০ মিনিট সময় দেন তাহলে কোটা সংস্কার এবং নিরাপদ সড়ক আন্দোলন নিয়ে কথা বলতে চাই বলে জানিয়েছেন গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

শুক্রবার (১৭ আগস্ট) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংহতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। নিরাপদ সড়ক ও কোটা সংস্কারের যৌক্তিক দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতন নিপীড়ন বন্ধ ও গ্রেফতারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে সভার আয়োজন করে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া।

তিনি বলেন, এই দুটি আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত সাধারণ যে শিক্ষার্থীদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাদেরকে ছেড়ে দিন। প্রয়োজনে আমি আপনার পা ধরতেও রাজি আছি। আপনার পা ধরে নিবেদন করতে চাই গ্রেফতার করা শিক্ষার্থীদের আপনি মুক্তি দিন। সামনে ঈদ। ঈদ উপলক্ষে আপনি সবাইকে মুক্তি দিন।

তিনি বলেন, একাত্তরের পর অনেক স্বৈরাচারই ক্ষমতায় এসেছে কিন্তু টিকতে পারেনি। স্বৈরাচারী কায়দায় কখনোই ক্ষমতায় টিকে থাকা যায় না। আগামী ৩ বছর পর স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্ণ হবে। আসুন এই ৩ বছরের মধ্যে আমরা এমন বাংলাদেশ গড়ে তুলি যেখানে কোনো অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়া হবে না এবং যে উদ্দেশ্য নিয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছে তা বাস্তবায়িত হয়।

ড. কামাল হোসেন বলেন, দেশের মালিক জনগণ। রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় যারা আছেন তাদেরকে জণগণের সেবক হিসেবে দেশ শাসন করা উচিৎ। সবাইকে মালিক হিসেবে একত্রে দাঁড়াতে হবে। আসুন আমরা এই ঈদে এই বাণী নিয়ে গ্রামের বাড়ি যাই এবং সকলকে অন্যায়ের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ করি।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: