শনিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

প্রতি বছর ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ হারে দারিদ্র্য কমছে



Mustofa_kamal2016042519473520160425202212নিউজ ডেস্ক: নানান ধরনের দরিদ্রবান্ধব কর্মসূচি ও পরিকল্পনা নেওয়ার কারণে দেশে প্রতি বছর ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ হারে দারিদ্র্য কমে আসছে। এরপরও প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও নদীভাঙনসহ বিভিন্ন কারণে জনসংখ্যার একটি অংশ এখনও দারিদ্র্যসীমার নিচে রয়েছে।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) বিকেলে জাতীয় সংসদে প্রশ্ন-উত্তর পর্বে এ তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য আব্দুল মতিনের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও জানান, বর্তমান সরকার নানা ধরনের দরিদ্রবান্ধব কর্মসূচি ও পরিকল্পনা গ্রহণ করায় দেশে দারিদ্র্যের হার বহুলাংশে কমে এসেছে। ধনী-দরিদ্র্যের বৈষম্য আগের তুলনায় কমেছে। দেশের সর্বস্তরের জনগণের ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে। সরকারের সার্বিক প্রচেষ্টায় প্রতি বছর প্রায় ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ হারে দেশে দারিদ্র্য কমে আসছে।

সরকার দলীয় সদস্য এস এম মোস্তফা রশিদীর প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, বর্তমান সরকার দারিদ্র্য নিরসনে প্রভূত উন্নয়ন করেছে। এরপরও জনসংখ্যার একটি অংশ এখনও দারিদ্র্যসীমার নিচে রয়েছে। কারণ হিসাবে বিভিন্ন সময়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগ, নদী ভাঙন ইত্যাদি বিষয়গুলোকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এর পাশাপাশি জনসংখ্যার একটি উল্লেখযোগ্য অংশকে কারিগরি প্রশিক্ষণের আওতায় এখনও আনতে না পারায় জনসংখ্যার একটি অংশ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করছে। কারিগরি প্রশিক্ষণ সম্প্রসারণ করে কর্মস্থানের ব্যবস্থার মাধ্যমে তাদের দারিদ্র্যসীমার ওপরে আসার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

মন্ত্রী আরও জানান, বর্তমান সরকার জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশলের আওতায় মোট ২৩টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে সম্পৃক্ত করে ১৪২টি কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির বিপরীতে চলমান কর্মসূচির অনুকূলে গত অর্থ বছরে ৩০ হাজার ৬৩৬ কোটি টাকা বরাদ্দ ছিল। চলতি ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরে এ বরাদ্দের পরিমাণ ৩৭ হাজার ৫৪৬ কোটি টাকা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: