সোমবার, ২০ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ক্যারিয়ার গড়তে রাজনীতিতে আসিনি: ইমরান খান  » «   সীমান্তে ভারী অস্ত্র-সেনা বাড়াচ্ছে মিয়ানমার, সতর্ক বিজিবি  » «   সন্তান জন্ম দিতে সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গেলেন মন্ত্রী  » «   ফেনীতে ট্রাক-মাইক্রোবাস সংঘর্ষ, নিহত ৬  » «   আজ পবিত্র হজ  » «   নিজের বিয়ে বন্ধ করতে যে কাণ্ড করেছিলেন বাজপেয়ী  » «   ভেঙে পড়ার ঝুঁকিতে ফ্রান্সের ৮৪০টি সেতু!  » «   ১ লাখ জাল নোট তৈরিতে খরচ মাত্র ১০ হাজার টাকা!  » «   সেপ্টেম্বরেই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় : আইনমন্ত্রী  » «   কফি আনানের মৃত্যুতে বিশ্ব নেতাদের শোক  » «   কেরালায় বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৭  » «   বন্যার্তদের জন্য অনন্য নজির কেরালার মাছ ব্যবসায়ী ছাত্রীর  » «   বয়স ৬২, অপরাধ ১১২, কে এই মহিলা ডন?  » «   কোরবানির পশুর হাট: মিয়ানমার থেকে গবাদি পশুর রেকর্ড আমদানি  » «   ‘এবার নয়, সংলাপ হবে পরবর্তী নির্বাচনে’  » «  

পৃথিবীতেই রয়েছে নরকের দরজা!



বিচিত্রা ডেস্ক::পৃথিবীতে নরকের দরজা আছে, বিষয়টি চিন্তা করতেই কেমন অদ্ভুত এক অনুভূতি হয়। কারণ স্বর্গ-নরক বিষয়টি সম্পূর্ণই পারলৌকিক বিষয়। দুনিয়াতে তাদের অস্তিত্বের দেখা পাওয়া সম্ভব কী করে? এমন প্রশ্ন জাগাটাই স্বাভাবিক। তবে সত্যিকার অর্থেই এমন একটি জায়গা রয়েছে, যা আপনাকে নিয়ে যেতে পারে সোজা দোজখের দোর গোড়ায়। মূলত এটি একটি জ্বলন্ত গর্ত। আধুনিক তুর্কমেনিস্তানের দার্ভাজা শহরে এর অবস্থান। আর জ্বলন্ত এই জায়গাটিই ‘Door to Hell’ নামে সুপরিচিত।

১৯৭১ সাল, থেকে জায়গাটি অবিরত দাউ দাউ করে জ্বলছে। ১৯৭১ সালে, এখানে গ্যাস খনির সন্ধান মেলে। প্রাথমিকভাবে গবেষণা করে বিষাক্ত গ্যাসের ব্যাপারে গবেষকরা নিশ্চিত হন, যার পরিমাণ ছিল সীমিত। সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যে, এই গ্যাস জ্বালিয়ে শেষ করা হবে; ফলে এর বিষাক্ততা ছড়ানোর সুযোগ পাবে না। সেই চিন্তা অনুসারে, এখানে গর্ত করে আগুন জ্বালিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু, গবেষকদের অবাক করে দিয়ে তা প্রায় ৪০ বছর ধরে একাধারে জ্বলছে। অথচ গবেষকরা নিশ্চিত ছিলেন যে, অল্প কয়েকদিনের মধ্যে এই গ্যাস শেষ হবে এবং আগুন নিভে যাবে। বর্তমানে এটি পর্যটকদের কাছে একটি আকর্ষণীয় স্থান হিসেবে সুপরিচিত। তথ্যসূত্র: আর্থ নাটশেল

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: