শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
নিজেদের বিমান বাহিনী থেকে সুরক্ষা পেতেই এরদোগানের এস-৪০০ ক্রয়!  » «   জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিসংযোগ, নিহত ১২  » «   খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, এখন লক্ষ্য পুষ্টি: প্রধানমন্ত্রী  » «   রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মিন্নি  » «   বাংলাদেশের পতাকার আদলে অন্তর্বাস বিক্রি করছে অ্যামাজন  » «   রিফাত হত্যাকাণ্ড: এবার রিশান ফরাজীও গ্রেফতার  » «   বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কেলেঙ্কারি: সিস্টেম লস নয় দুর্নীতি  » «   বন্যার কারণে জাতীয় ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পরীক্ষা স্থগিত  » «   হঠাৎ কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণে শক্ত পদক্ষেপ, মাঠে নামছে র‌্যাব  » «   ধসে পড়া ভবনে মিললো বাবা-ছেলের মরদেহ  » «   ইসরাইলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের তীব্র নিন্দা  » «   ‘নয়ন বন্ডের বাড়িতে বসেই স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন মিন্নি’  » «   সিলেটের ২ জনসহ দেশসেরা ১২ শিক্ষার্থীকে পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   বেনাপোল ও বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   উপজেলা নির্বাচন: সিলেটে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের বহিষ্কারের তালিকা  » «  

পুত্রবধূর সঙ্গে স্বামীর অবৈধ সম্পর্ক ঠেকাতে স্ত্রীর কান্ড



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::তিনমাস ধরে পুত্রবধূকে নির্যাতন। শুধুমাত্র পুত্রবধূকে বাঁচানোর জন্য শ্বশুরকে খুন করল শ্বাশুড়ি। ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানে। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পরিবারের সম্মান রক্ষা করতেই এই খুন করা হয়। পুত্রবধূকে সঙ্গে নিয়ে শ্বাশুড়ি নিজের স্বামীকে ঘুমন্ত অবস্থায় গুলি করে হত্যা করে।

পাকিস্তানের পাখতুনখাওয়াস সাংলা গ্রামে গুলবার খানকে খুন করে বেগম বিবি। কারণ ‘‌তিনি পরিবার ও সম্পর্ককে শ্রদ্ধা’‌ করতে জানতেন না। বেগম বিবি দাবি করেন, গুলবার খান ক্রমাগত তাঁদের পুত্রবধূক ছেলের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে গত তিন মাস ধরে নির্যাতন করে আসছিল। নির্যাতিতার স্বামী সেনাতে কাজ করেন। তিনি জানান, স্ত্রীর এই করুণ পরিণতির কথা তিনি জানতেন কিন্তু মা-বাবার সম্মানের জন্য তিনি কিছু বলেননি। তবে বিষয়টি তিনি তাঁর মাকে জানান। নির্যাতিতার স্বামী বলেন, ‘‌আমি ছুটিতে আসলে স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কথাও মাকে জানিয়েছিলাম।’‌

পুলিশি জেরায় বেগম জানায়, তার ছেলের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে তার স্বামী পুত্রবধূর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক করত জোর করে। এই নোংরা বিষয়টা তিনমাস ধরে চলতে থাকে। বেগম বলেন, ‘‌আমার স্বামী কিছুতেই আমার কথা শুনছিল না। তাই আমি আমার স্বামীকে খুন করার সিদ্ধান্ত নেই। ’ পুলিশ শনিবার বেগম, তাঁর ছেলে ও পুত্রবধূকে কোর্টে হাজির করে। আদালত তাদের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন। সূত্র: আজকাল

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: