সোমবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

পাথর চাপায় রোহিঙ্গার মৃত্যু



নিউজ ডেস্ক::বান্দরবানের লামার গজালিয়া ইউনিয়নের ডলুঝিরিতে অবৈধ পাথর উত্তোলনের সময় চাপা পড়ে এক রোহিঙ্গা শ্রমিক নিহত হয়েছে। নিহত মো. আজম (১৯) পিতা- মো. জাকারিয়া কক্সবাজারের উখিয়ার মধুছড়া রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের বাসিন্দা। তার বাড়ি মিয়ানমারের বুচিডং এলাকার আইক্যবে।

সোমবার (২৩ এপ্রিল) বিকাল ৫টায় পাথর চাপা পড়লে তাকে চকরিয়ার ইউনিক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে।

জানা গেছে, গজালিয়ার ডলুঝিরির পাথর কোয়ারীতে সোমবার বিকেলে বারুদ দিয়ে পাথর ব্লাস্ট করার সময় গুরুতর আহত হয় মো. আজম। সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে ইউনিক হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃত্যু হলে পাথর কোয়ারীর মালিক ও দালাল হোসেন মাঝি লাশটি গোপন করতে মধুছড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে না নিয়ে রাত ১০টার দিকে পুণরায় ফাইতং-লামা রোড দিয়ে দূর্গম ডলুঝিরিতে নিয়ে যাচ্ছিল। পথে ফাইতং পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. হানিফের সন্দেহ হলে তিনি লাশের বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। তখন থলের বিড়াল বেড়িয়ে আসে।

ফাইতং পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত উপ-পরিদর্শক মো. হানিফ বলেন, লাশটি বর্তমানে আমাদের হেফাজতে রয়েছে। দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

প্রসঙ্গত, বিগত ৩ মাসে লামা উপজেলার গজালিয়া ও ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন পাথর কোয়ারীতে প্রায় ৮/৯ জন পাথর শ্রমিক আহত হলেও তা গোপন রাখে পাথর ব্যবসায়ীরা। এছাড়া লামা উপজেলার বিভিন্ন পাথর কোয়ারী, গাছের বাগান, বালু তোলার ও উন্নয়ন কাজে প্রায় সহস্রাধিক রোহিঙ্গা শ্রমিক কর্মরত রয়েছে বলে জানা যায়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: