মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
এমপি না হয়েও ল্যান্ড ক্রুজারে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত  » «   খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ল এক বছর  » «   নবজাতককে মুখে নিয়ে কুকুরের টানাটনি, উদ্ধার করলেন এসআই  » «   নতুন শ্রমবাজার অনুসন্ধানে উদ্যোগী হতে হবে: প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী  » «   জনগণের সংকট উত্তরণে নতুন নির্বাচনের বিকল্প নেই: ফখরুল  » «   পানি বণ্টনের নতুন ফর্মুলা খুঁজছে বাংলাদেশ-ভারত: জয়শঙ্কর  » «   শেখ হাসিনার ছাত্রলীগে জামায়াতি আঁচড়!  » «   অবশেষে ক্ষমা চাইলেন জাকির নায়েক  » «   অপরাধীদের শাস্তি দ্রুত নিশ্চিত না করায় ধর্ষণ বাড়ছে: হাইকোর্ট  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ‘স্পিড গান’  » «   কমলাপুর রেলওভার ব্রিজের ত্রুটির চিত্র তুলে ধরলেন ব্যারিস্টার সুমন  » «   জিন্দাবাজারে মিললো ২টি গোখরাসহ ৬ বিষধর সাপ  » «   কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনায় বসছেন ট্রাম্প- মোদী!  » «   মাত্র ১০০ মিটার দূরেই শত্রু  » «   অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «  

পশ্চিমবঙ্গেও ছেলেধরা গুজব, একজনকে পিটিয়ে হত্যা



নিউজ ডেস্ক:: বাংলাদেশের মত ভারতের পশ্চিমবঙ্গে রাজ্যেও ছেলেধরা গুজব চালু হয়েছে। সোমবার ওই রাজ্যে ছেলেধরা সন্দেহে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সোমবার রাজ্যটির ডুয়ার্সের নাগরাকাটা থানা এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকাটি জানিয়েছে।

প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে, নিহত ব্যক্তি বহুরুপী সেজে বিভিন্ন বাজার এলাকায় অর্থোপার্জন করতেন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তার নাম ঠিকানা জানা যায়নি। সোমবার সকালে ওই ব্যক্তি নারী সেজে এলাকায় ঘুরছিলেন। তা দেখে শুলকাবাড়ি বাজারের কয়েকজন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। সেই সময় কেউ কেউ ওই ব্যক্তিকে ছেলেধরা বলে সন্দেহ প্রকাশ করেন। তারপরেই কয়েকজন ওই ব্যক্তির উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। বাজারের মধ্যেই বাঁশ, লাঠি দিয়ে মারা শুরু করে। রাস্তার পাশে ফেলে রাখা পাথর দিয়েও থেঁতলে মারা হয়।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পশ্চিমবঙ্গের নানা স্থানেও ‘ছেলেধরা’ র গুজব ছড়াচ্ছে বলে কলকাতার দৈনিক সংবাদ প্রতিদিন জানিয়েছে। সংবাদপত্রটি লিখেছে, পরিস্থিতি যাতে হাতের বাইরে না চলে যায় সেই কারণে পুলিশ ও প্রশাসনের তরফে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু তার মধ্যেই রোববার ও সোমবার দুজনকে মারধর করা হয়। এরপর ডুয়ার্সের ঘটনাটি ঘটল। মালের এসডিপিও দেবাশিস চক্রবর্তী আনন্দবাজারকে বলেন, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, গুজবের জেরেই এই ঘটনা। আমরা এই গণপিটুনির সঙ্গে যুক্ত কয়েকজনের নাম জানতে পেরেছি। তাদের গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।

বাংলাদেশে পদ্মা সেতু নির্মাণ কাজে মানুষের মাথা লাগবে বলে মাসখানেক আগে ফেইসবুকে গুজব ছড়ানো হয়। তবে যাতে বিভ্রান্ত না হতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল বাংলাদেশ সরকার। গুজব ছড়ানোর অভিযোগে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: