মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির শরবত’ খাওয়াতে এসেছেন জুরাইনবাসী  » «   শ্রীমঙ্গলে থামছে না অসাধু ব্যবসায়ীদের অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, নিশ্চুপ প্রশাসন!  » «   জাজিরা প্রান্তে বসল ১১তম স্প্যান, দৃশ্যমান ১৬৫০ মিটার  » «   দক্ষিণ সুরমায় ইজতেমার অনুমোদন এখনো মেলেনি  » «   সিলেটের ৯টি উপজেলায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু  » «   শোকে স্তব্ধ শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১১  » «   জিন তাড়ানোর বাহানায় যৌন সম্পর্ক গড়তো সেই পিয়ার  » «   ভারতের মিডিয়া ও বিজেপির প্রতি ক্ষুব্ধ শ্রীলঙ্কার নেটিজেনরা  » «   পড়াশোনা না করলে জীবনের অর্থ সংকীর্ণ হয়ে ওঠে: শিক্ষামন্ত্রী  » «   এমডিকে ‘ওয়াসার সুপেয় পানির’ শরবত খাওয়াবেন জুরাইনবাসী  » «   হুমকি না থাকলেও সতর্ক আছে বাংলাদেশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   নকল তামাক পণ্য : হুমকিতে জনস্বাস্থ্য, রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার  » «   ৬ দিনের সফরে সিলেটে পৌঁছেছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ  » «   শাহজালাল বিমানবন্দরের টয়লেট থেকে ৪ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে ঘরে ঢুকে হত্যাচেষ্টা, ছুরিসহ আটক  » «  

পরকীয়ার টানে ঘর ছাড়া, অতঃপর…



নিউজ ডেস্ক::ঘরের মধ্যে ঝুলন্ত অবস্থায় এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (৮ মে) তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ধারণা করা হচ্ছে সোমবার রাতের যে কোন সময় তার মৃত্যু হয়েছে। ওই গৃহবধু এক সন্তানের জননী নাদিয়া বেগম (২০) পরকীয়ার টানে প্রথম স্বামীর সংসার ছেড়ে প্রেমিক জাহিদুর রহমান মৃধার সাথে সংসার বেঁধেছিলেন।

ঘটনাটি ঘটেছে জেলার গৌরনদী পৌর এলাকার গেরাকুল মহল্লায়। জাহিদুর রহমান মৃধা ওই মহল্লার বাসিন্দা মৃত সেলিম মৃধার পুত্র। পুলিশ মঙ্গলবার সকালে উপজেলা হাসপাতাল থেকে নিহত নাদিয়ার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহত গৃহবধু নাদিয়া পাশ্ববর্তী কালকিনি উপজেলার চরপালরদী গ্রামের কবির আকনের কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের জননী।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, গৌরনদী মডেল থানার এসআই মোঃ ইকবাল কবির বিডি২৪লাইভকে বলেন, মঙ্গলবার (৮ মে) সকালে হাসপাতাল থেকে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি এটা আত্মহত্যা। ওই গৃহবধূ কোন রাগ বা অভিমানের কারণে এমনটা করে থাকতে পারেন। এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে থানায় ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রির্পোট না পাওয়ার পর্যন্ত বিস্তারিত বলা সম্ভব হচ্ছে না।

ওই গৃহবধুর স্বামীর বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গৃহবধুর স্বামী ও শাশুড়ি পলাতক রয়েছেন।

নিহতের মা আলেয়া বেগমের দাবি, তার মাদক সেবী মেয়ে জামাতা জাহিদুর রহমান মৃধা মাদক সেবন করে প্রায়ই তার কন্যা নাদিয়াকে মারধর করত। সোমবার রাতেও নাদিয়াকে পিটিয়ে হত্যা করে লাশ ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে। পরে নাদিয়ার লাশ হাসপাতালে রেখে আত্মহত্যার কথা রটিয়ে দেয়া হয়।

স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সামাজিকভাবে নাদিয়া বেগমের প্রথম বিয়ে হয় পাশ্ববর্তী আগৈলঝাড়া উপজেলায়। পরে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নাদিয়ার সাথে পরিচয় হয় জাহিদুর রহমান মৃধার। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সে সুবাধে বছরখানেক আগে এক পুত্র সন্তানের জননী নাদিয়া তার প্রথম স্বামীর সংসার ছেড়ে জাহিদুর রহমানের সাথে ঘর বাঁধেন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: