বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বরখাস্তকৃত ন্যানগ্যাগওয়াই হচ্ছেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট  » «   খালেদার গাড়িবহরে হামলা সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পরিকল্পনার অংশ  » «   এক মোটরসাইকেলেই বিশ্ব রেকর্ড  » «   কাঁদলেন ঐশ্বরিয়া, ১শ শিশুর ঠোঁটের অস্ত্রোপচারে খরচ দিবেন  » «   কাল থেকে পুনরায় চালু হচ্ছে চুয়েট বাস  » «   বলি একটা লেখেন আরেকটা: সাংবাদিকদের রোনালদো  » «   এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১ ফেব্রুয়ারি  » «   মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে হবে ছাত্রলীগের স্কুল কমিটি  » «   এগিয়ে থাকুন সৃজনশীলতায়  » «   সংসদে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ১ বছরে সাড়ে ৩ কোটি ইয়াবা জব্দ  » «   শ্রীমঙ্গলে বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন  » «   দখলমুক্ত হচ্ছে খাল ও নদী  » «   কুমিল্লায় হানিফ‘আ’লীগকে হুংকার দিয়ে লাভ নেই’  » «   কমলগঞ্জে প্রতিহিংসায় বিনষ্ট কৃষকের শিম বাগান  » «   অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সহ নানা অভিযোগ  » «  

নিজের বাজে পারফরমেন্স নিয়ে যা বললেন সৌম্য



স্পোর্টস ডেস্ক ::
সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাট হাতে সৌম্য সরকারের অবদান ৮, ১৫ ও ৩৩, ৯ । এরপরও তাকে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ১৫ সদস্যের দলে রাখতে একটুও দ্বিধা করেনি নির্বাচকরা। বিশেষ করে প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে তো সৌম্যকে ছাড়া দল ভাবতেই পারেন না। যে কারণে আলোচনা সমালোচনার শেষ নেই। কেন দলে রাখা হচ্ছে সৌম্যকে? তবে একটু পেছনে ফিরে তাকালে তার জবাবটাও পরিষ্কার। অস্ট্রেলিয়ার সিরিজের আগে ৮ ইনিংসে ৪ ফিফটি। তাও দেশের বাইরে। তাই দল ভরসা হারায়নি তার ওপর। সৌম্যও দলের আস্থার মান রাখতে চান। অবশ্য তার চেয়ে বেশি এখন সমালোচনারও জবাব দিতে চান। তবে সেটি ব্যাট হাতেই।

গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা মাঠের একাডেমি ভবনে জিম করতে করতেই জানালেন সেই লক্ষ্যের কথা।। তিনি বলেন, ‘এই সময়টায় ফেসবুকে কম যাওয়ার চেষ্টা করি। যেহেতু আমাদের দেশে কেউ ভালো খেললে তাকে নিয়ে অনেক আলোচনা হয়, খারাপ খেললেও কথা হবেই। এটাকে ইতিবাচকভাবে দেখি। ভালো-মন্দ যাই হোক, সবাই আমাকে নিয়েই কথা বলছে। এসব ভেবে মানসিকভাবে শক্ত থাকার চেষ্টা করি। সমালোচকদের চুপ করানোর একটাই উপায় আছে, সেটা হলো রান করা। আমি কঠোর পরিশ্রম করছি রান করার জন্য।’

দক্ষিণ আফ্রিকাতে সবার ভয় গতি আর বাউন্সকে। সৌম্য অবশ্য এতে বেশ খুশি। কারণ নিজ দেশের মতো অন ইভেন উইকেট সেখানে নেই। বাউন্স হলে তা একটি ধারাতেই থাকবে। কোনটা বেশি বা কোনটা কম হবে তাও নয়। তিনি বলেন, ‘কঠিন সিরিজ হবে। তারপরও তো খেলতেই হবে! চেষ্টা করবো বাউন্সি উইকেটে যেভাবে রান করা যায়, সেখানে ওইভাবে খেলতে। মানসিকভাবেও সেভাবে প্রস্তুত হবো। তবে কঠিনের মধ্য দিয়েই ভালো করতে পারলে সেটা বেশি মর্যাদা পাবো। নিজেকেও আত্মবিশ্বাসী মনে হবে। ওদের মাটিতে, ওদের কন্ডিশনে গিয়ে ভালো কিছু করতে পারলে আলাদা মজা থাকবে। চেষ্টা করবো ভালো কিছু করার এবং পেছনের ম্যাচগুলো ভুলে যাওয়ার।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: