মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ থেকে ইভিএম: ইসি সচিব  » «   হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি হিজড়াদের  » «   সব বাধা উপেক্ষা করে গণশুনানি করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   অভিজিৎ হত্যা: অব্যাহতি পাচ্ছেন সাতজন, আসামি ছয়  » «   অনুমোদিত ৩টি ব্যাংক সম্পর্কে তেমন কিছু জানেন না অর্থমন্ত্রী  » «   ডাস্টবিনে নেমে ১৫০০ শিক্ষার্থীকে বাঁচানোর আহ্বান  » «   একাদশ সংসদের এমপিদের বৈধতা নিয়ে রিট খারিজ  » «   শামীমাকে যা বুঝিয়ে সিরিয়ায় নিয়ে গিয়েছিল আইএস  » «   নিজেই গাড়ি চালিয়ে যুবরাজকে বাসভবনে নিয়ে গেলেন ইমরান খান  » «   আরব আমিরাত ও বাংলাদেশর মধ্যে ৪টি সমঝোতা স্মারক সই  » «   সংঘর্ষ চলছে, পুলওয়ামা হামলার মূল হোতা নিহত  » «   এক দিন বাড়ল দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা, আখেরি মোনাজাত মঙ্গলবার  » «   শুধুমাত্র আইন দিয়ে দুর্নীতি দমন করা যায় না: আইনমন্ত্রী  » «   জামায়াতের সবারই রাজ্জাকের মতো ভুল ভাঙা উচিত: ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ  » «   সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জা‌নি‌য়ে মোদিকে শেখ হাসিনার বার্তা  » «  

নিজেকেই নিজে খেয়ে ফেলছে পৃথিবী: গবেষণা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: দূষণ বা উষ্ণায়নে যখন দিন দিন বিপন্ন হয়ে উঠছে এই গ্রহ, তখন একেবারেই ভিন্ন এক বিপদের বার্তা দিলেন বিজ্ঞানীরা।এক গবেষণা প্রবন্ধে সম্প্রতি বিশদে জানানো হয়েছে এই বিপদের কথা।

এই নিবন্ধে দেখানো হয়েছে, পৃথিবীর অভ্যন্তরে অবস্থিত টেকটনিক প্লেটগুলো একটি অন্যটির নিচে চলে আসার ফলে টান পড়ছে মহাসাগরের পানিতে। বিপুল পরিমাণ পানি প্রবেশ করছে ভূগর্ভের গভীরে। ফলে কমছে পানিস্তর। ক্রমেই উধাও হযে যাচ্ছে সমুদ্র।এমন দিন আসতেই পারে,যখন এই গ্রহ পানিশূন্য হয়ে পড়বে।

ভূমিকম্পের সূত্র ধরেই এই তথ্যে উপনীত হয়েছেন গবেষকরা। সিসমোগ্রাফে ধৃত রেখাগুলোর বিশ্লেষণ করতে করতে তারা দেখিয়েছেন, প্রশান্ত মহাগারের ম্যারিনাস ট্রেঞ্চ অঞ্চলে প্যাসিফিক প্লেট ফিলিপাইন প্লেটের নিচে ঢুকে যাচ্ছে। ফলে মহাসাগরের পানি প্রবেশ করছে বা বলা ভাল হারিয়ে যাচ্ছে ভূগর্ভের গভীরে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-বিজ্ঞানের গবেষক ওয়েইসেন শেন, ডগলাস এ উইয়েনস প্রমুখ এই ঘটনাকে রীতিমতো বিপদ বলেই চিহ্নিত করেছেন। এ থেকে ভূমিকম্পের প্রবণতা বাড়ছে বলেই তাদের ধারণা।

তবে কী পরিমাণ সমুদ্রজল ভূগর্ভের অভ্যন্তরে প্রবেশ করেছে, সেই হিসেব পাওয়া অসম্ভব বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।এই গবেষণাপত্রের বিপরীতে বেশ কিছু বিশেষজ্ঞ এই প্রশ্নও তুলেছেন, যে পরিমাণ পানি ভূগর্ভে প্রবেশ করে, সেই পরিমাণ পানি কি আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে বেরিয়ে আসে না? গবেষক দলের অন্যতম সদস্য চেন কাই জানিয়েছেন, এই বিষয়ে তারা পুনরায় অনুসন্ধন চালাচ্ছেন।

সূত্র: এবেলা

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: