মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অগ্নিঝুঁকিতে ঢাকার ৪১৬ হাসপাতাল-ক্লিনিক  » «   ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবেন অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   ফেসবুক ‘ডিজিটাল গ্যাংস্টার’: ব্রিটিশ পার্লামেন্ট  » «   মানহানির মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর  » «   পাকিস্তান থেকে ভারতে না গিয়ে দেশে ফিরলেন সৌদি যুবরাজ  » «   দুই বছরের মধ্যে বিলুপ্ত হবে বিএনপি!  » «   মেয়র আরিফের বিরুদ্ধে কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ, প্রতিকী আত্মহুতি  » «   আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে আজ শেষ হল বিশ্ব ইজতেমা  » «   আমিরাতের ক্রাউন প্রিন্সের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক  » «   ট্রাম্পের জরুরি অবস্থা ঘোষণার বিরুদ্ধে ১৬ অঙ্গরাজ্যের মামলা  » «   মেডিকেলের ডাস্টবিনে শিশুসহ ২৬ মানবদেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ  » «   উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপ থেকে ইভিএম: ইসি সচিব  » «   হজ পালনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি হিজড়াদের  » «   সব বাধা উপেক্ষা করে গণশুনানি করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট  » «   অভিজিৎ হত্যা: অব্যাহতি পাচ্ছেন সাতজন, আসামি ছয়  » «  

নিউজিল্যান্ডে ওষুধ ও চামড়া রফতানি বাড়ানো হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী



নিউজিল্যান্ডে ওষুধ ও চামড়া রফতানি বাড়ানো হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী ফাইল ছবি

নিউজিল্যান্ডে ওষুধ ও চামড়া রফতানি বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, সেখানে বাংলাদেশের এ সব পণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। নিউজিল্যান্ড বাংলাদেশকে সব পণ্য রফতানিতে ডিউটি ফ্রি সুবিধা দিয়েছে।

বুধবার সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তার অফিস কক্ষে ঢাকায় নিযুক্ত নিউজিল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত গ্রাহাম মার্টনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নিউজিল্যান্ড বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে আগ্রহী। বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ড থেকে দুধ আমদানির মাধ্যমে পণ্য তৈরি করে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে রফতানি করেছে।

মন্ত্রী বলেন, দু’দেশের বাণিজ্য খুব বেশি নয়। গতবছর বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডে রফতানি করেছে ৭৩ দশমিক ৬৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। একই সময়ে আমদানি করেছে ১৫০ দশমিক ৪০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। তিনি বলেন, এ মুহূর্তে দু’দেশের বাণিজ্য নিউজিল্যান্ডের পক্ষে হলেও বাংলাদেশের রফতানি বাড়ার সুযোগ এসেছে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বিশ্ববাণিজ্য সংস্থা এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর জন্য ট্রিপস চুক্তির মেয়াদ ১৭ বছর বেড়েছে। এ সুযোগ বাংলাদেশ কাজে লাগাতে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের ১২৩টি দেশে ওষুধ রফতানি করছে। বাংলাদেশের ওষুধের মান বেশ ভালো। বাংলাদেশের বিশ্বমানের ওষুধ তুলনামূলক কম মূল্যে সরবরাহ করছে। নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের তৈরি ওষুধের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। চলতি সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা মোতাবেক যে সব পণ্য রফতানি বাড়ার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে, ওষুধ তার মধ্যে অন্যতম বলে তিনি উল্লেখ করেন।

নিউজিল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত গ্রাহাম মার্টন বলেন, বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। তৈরি পোশাক খাতে বাংলাদেশের অগ্রগতি খুবই ভালো। গত ৫ বছরে দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্য অনেক বেড়েছে। বর্তমানে দু’দেশের মধ্যে বাণিজ্যের পরিবেশ বেশ ভালো।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে অতিরিক্ত সচিব (রফতানি) জহির উদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম সচিব (এফটিএ) মুনির চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: