শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

নিউইয়র্কে বিশ্ব নদী দিবসে প্রবাসীদের মানববন্ধন



প্রবাস ডেস্ক ::যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্ব নদী দিবসে কর্মসূচি পালন করলেন প্রবাসীরা। সুরমা নদীর উৎসমুখ খনন এবং দখল ও দূষণের হাত থেকে সিলেট বিভাগ ও দেশের নদ-নদী রক্ষার দাবিতে এ কর্মসূচির আয়োজন করে পরিবেশবাদী সংগঠন বাংলাদেশ এনভায়রমেন্ট নেটওয়ার্ক (বেন), বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও সুরমা রিভার ওয়াটারকিপার। গত রবিবার বিকাল ৫টায় নিউইয়র্ক নগরীর জ্যাকসন হাইটসের ডাইভারসিটি প্লাজায় আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে বিভিন্ন বয়সি প্রবাসী নাগরিকেরা অংশগ্রহণ করেন। ‘সুরমা বাঁচাও সিলেট বাঁচাও, নদী বাঁচাও, দেশ বাঁচাও’, ‘সেইভ রিভার, সেইভ আওয়ার এগজিস্টেন্স’, ‘নদী বাঁচলে বাঁচবে দেশ, সুন্দর থাকবে বাংলাদেশ’, ‘সিলেটের নদী সিলেটের প্রাণ, সিলেট বাঁচাতে নদী বাঁচান’, ‘মরলে নদী সবুজ শেষ, বাংলা হবে মরুর দেশ’ ইত্যাদি নানান বক্তব্যের প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে প্রায় দেড় ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানববন্ধন কর্মসূচি পালনকালে অনুষ্ঠিত হয় সমাবেশে। বেন-এর সংগঠক রানা ফেরদৌসের সভাপতিত্বে ও লেখক-গীতিকার ইশতিয়াক রুপুর সঞ্চালনায় সমাবেশে মূল বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা)-এর সিলেট শাখার সাধারণ সম্পাদক ও সুরমা রিভার ওয়াটারকিপার আব্দুল করিম কিম। কিম বলেন, সিলেটের প্রধান নদী সুরমার উৎসমুখ ভরাট হয়ে গেছে । অবিলম্বে সুরমার উৎসমুখ খনন করা না হলে সুরমা তাঁর আত্মপরিচয় হারিয়ে ফেলবে । দেশে এই দাবি জানানো হয়েছে অনেকবার। প্রবাসের মানুষকে সাথে নিয়ে সুরমার উৎসমুখ খননের দাবি আবারো জানাচ্ছি । তিনি, সুরমা’সহ সিলেট বিভাগের শত নদী রক্ষায় প্রবাসীদের জোরালো ভাবে এগিয়ে আসার আহবান জানান।
টাইম টিভির সিইও প্রবাসী সাংবাদিক এম এ তাহের বলেন, প্রবাসীরা যেখানেই থাকেন না কেন, শৈশবের স্মৃতিময় নদীর কথা ভুলতে পারেন না। সেই নদীর বিপন্নতার কথা শুনলে মন বিষণ্ণ হয়ে যায়। তিনি পিয়াইন, সারী, ডাউকি, ধলাই, ভাদেশ্বরা নদীর স্মৃতিচারণ করে বলেন, সিলেট অঞ্চলের নদ-নদীরক্ষায় পরিবেশবাদীদের চলমান লড়াইয়ে প্রবাসীদের সম্পৃক্ত করতে তিনি প্রচেষ্টা চালাবেন ।
বেন-এর সংগঠক রানা ফেরদৌস বলেন, পরিবেশ আন্দোলনের অব্যাহত কর্মসুচির কারনে মানুষ নদীরক্ষার কথা ভাবতে শুরু করেছে । সরকারও নদী রক্ষাকে গুরুত্ব দিতে বাধ্য হচ্ছে । উচ্চ আদালত পরিষ্কারভাবে নদী বিষয়ক দিক নির্দেশনা ঘোষণা করেছে । প্রধানমন্ত্রী নদী বাঁচাতে টাস্কফোর্স ও নদী কমিশন তৈরি করে দিয়েছেন। কিন্তু গত ৮ বছরে একটি নদীও সম্পূর্ণরূপে দখল-দূষণমুক্ত হয়নি। তাই পরিবেশ আন্দোলনকে আরোও শক্তিশালী করার মাধ্যমে নদীরক্ষার কাজকে সহযোগিতা করা প্রয়োজন । তিনি বলেন, পরিবেশ রক্ষার লড়াই কারো ব্যাক্তিগত লড়াই নয় । এ লড়াইয়ে জয়ী হলে সকলের জয়, পরাজয় হলে সকলের পরাজয় ।
সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা সমিতির সভাপতি জোসেফ চৌধুরী, প্রবাসী সংগঠক ও সাংবাদিক হেলিম আহমদ, কমিউনিটি নেতা ফকু চৌধুরী, শেখ আতিকুল ইসলাম ও এবাদ চৌধুরী, লেখিকা শাহানা বেগম, নিউইয়র্ক সিটি যুবলীগ সভাপতি হোসেন আহমদ টিপু, খোয়াই তীরের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারি, সিলেটের সুরমা তীরের প্রবাসী গৃহিণী শাহিনা বেগম, বালাগঞ্জের বড়ভাগা নদীতীরের খন্দকার আলী হামজা, বিয়ানীবাজারের লুলা নদী তীরের মাহবুব সুন্নাহ, মনু তীরের সৈয়দ লিটু, তাহিরপুরের যাদুকাটা নদীতীরের সুধাময় দাস, বিশ্বনাথের বাসিয়া তীরের নিরঞ্জন কুমার চৌধুরী, খুলনার পশুর তীরের লরেন্স সরকার, ঢাকার বুড়িগঙ্গা তীরের প্রবাসী টেক্সিচালক মো. শাহজাহান, নেত্রকোনার সোমেশ্বরী নদীতীরের আসলাম খাঁন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: