সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২ পৌষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

নায়করাজই আমাকে তার জীবনী লিখতে বলেছিলেন : ছটকু আহমেদ



বিনোদন ডেস্ক:: প্রয়াত নায়করাজ রাজ্জাকের জীবনী লিখছেন প্রবীণ চলচ্চিত্র নির্মাতা ছটকু আহমেদ। বইয়ের নাম ‘নায়করাজ রাজ্জাক : টালিগঞ্জ থেকে ঢালিউড’। আগামী একুশে বইমেলায় ইটি বিডিনিউজ পাবলিকেশন লিমিটেড (বিপিএল) থেকে বইটি বাজারে আসার কথা রয়েছে।

কিন্তু সম্প্রতি নায়করাজ রাজ্জাজের পুত্র বাপ্পারাজ আপত্তি তুলেছেন জীবনীটির ব্যাপারে। বাপ্পারাজ দাবি করেছেন, নায়করাজ এমনকি তার পরিবারের অনুমতি না নিয়েই বইটি লিখছেন ছটকু আহমেদ।

তবে নির্মাতা ছটকু আহমেদ বলছেন ভিন্ন কথা। ‘সত্যের মৃত্যু নেই’ ছবির এই নির্মাতা বলেন, ‌‘রাজ্জাক ভাইকে আমি অনেক সম্মান করি। তিনি আমাকেও খুব ভালো জানতেন। তাকে নিয়ে ভালো কিছু লেখার জন্যই এই উদ্যোগ নিয়েছি। আর তাকে নিয়ে ভুল কিছু কেন লিখব? লেখার পর বাপ্পারাজসহ ওদের পরিবাবের সবাইকে দেখাব।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমি চাইছি রাজ্জাক ভাইকে নিয়ে ভালো কিছু লিখতে। এটা নিয়ে এখনই এত প্রশ্ন কেন? লেখা শেষে প্রশ্ন তোলার মতো কিছু থাকলে তারা তা অবশ্যই বলবেন। এখানে বিভাজন করার কিছু নেই। আমরা একসঙ্গে বসে বিষয়গুলোর সমাধান করে নিতে পারি। তাছাড়া তার পরিবার দেখুক আমি কি লিখছি। ভালো-মন্দের বিচার তো না দেখে কেউ করতে পারে না, তাই না?’
জীবদ্দশনায় নায়করাজ রাজ্জাকের অনুমতি নিয়েই বইটি লেখা হচ্ছিল দাবি করে ছটকু আহমেদ বলেন, ‘রাজ্জাক ভাই আমাকে লিখতে বলেছেন। তার সকল কথার ভিডিও আমার কাছে আছে। তাছাড়া রাজ্জাক ভাই স্বাক্ষরিত অনুমতিপত্রও রয়েছে। আসলে এগুলো কিছু নয়, তাকে নিয়ে ভালো কিছু লিখতে চাচ্ছি। আমি ঘুরে ঘুরে বিভিন্নজনের মন্তব্য নিচ্ছি। তারাও সুন্দর সুন্দর মতামত দিচ্ছেন।’
ছটকু আহমেদ আরো বলেন, ‘রাজ্জাক সাহেবের জীবন থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। তাছাড়া নতুন প্রজন্মের জন্য রাজ্জাক সাহেবের জীবনী পাথেয় হয়ে থাকবে। সেই ভাবনা থেকেই বইটি লিখতে চাইছি। নায়করাজের জীবনী, শৈশব, উত্থান, জীবনের বাঁকবদল, সেসময়ের রাজনৈতিক অবস্থায়- সবকিছুর সঙ্গে সাহিত্যরস মিশিয়েই বইটি লেখা হচ্ছে।’
তাহলে কেন বাপ্পারাজ এই জীবনী নিয়ে আপত্তি তুলছেন? ছটকু আহমেদ বলেন, ‘আমার মনে হয় বাপ্পারাজকে কেউ ভুল বুঝিয়েছে। যাই হোক এই ভুল বোঝাবুঝির অবসান হচ্ছে শিগগিরই। বাপ্পারাজ ফেসবুকে যেসব কথা লিখেছিল সেগুলো সরিয়ে নিয়েছে। এই বইটি প্রকাশ করে তো আমি কোটিপতি হয়ে যাবো না। আমারও বয়স হয়েছে, এ কেবল রাজ্জাক ভাইয়ের জীবনী বলেই আগ্রহ নিয়ে লিখতে পারছি। ইনশাল্লাহ আগামী বইমেলাতেই নায়করাজের জীবনী প্রকাশ হবে।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: