রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চ্যারিটেবল মামলায় দণ্ডের বিরুদ্ধে খালেদার আপিল  » «   সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলা; শিশু ও নারীসহ নিহত ৪৩  » «   থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা  » «   দু’দিনের মধ্যেই খাশোগি হত্যার পরিপূর্ণ তদন্ত রিপোর্ট : ট্রাম্প  » «   বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন তারেক  » «   বাড়িতে বাবার লাশ, পিএসসি পরীক্ষা দিতে গেল মেয়ে  » «   প্রবাসী স্ত্রীকে লাইভে রেখে সিলেটের স্বামীর আত্মহত্যা!  » «   খাশোগি হত্যা: যুক্তরাষ্ট্র-সৌদির নীল নকশা ও তুরস্কের উদ্দেশ্য  » «   দুই নম্বরি কেন ১০ নম্বরি হলেও ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে থাকবে: ড. কামাল  » «   বোরকার বিরুদ্ধে সৌদি নারীদের অভিনব প্রতিবাদ  » «   আজ থেকে শুরু হচ্ছে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা  » «   সিডরে নিখোঁজ শহিদুল বাড়ি ফিরলেন ১১ বছর পর!  » «   ভাওতাবাজির জন্য সরকারকে গোল্ড মেডেল দেওয়া উচিৎ: ড. কামাল  » «   দিল্লির লাল কেল্লা দখলের হুমকি পাকিস্তানের!  » «   সত্য বলায় এসকে সিনহাকে জোর করে বিদেশ পাঠানো হয়েছে: মির্জা ফখরুল  » «  

নারীরা যে ৭ বিষয়ে প্রায়ই মিথ্যা বলে থাকে!



লাইফস্টাইল ডেস্ক::এ যুগে কম বেশি মিথ্যা কথা সকলেই বলে থাকেন। আধুনিক সমাজের কৃত্রিমতার ভিড়ে বেশির ভাগ মানুষই ব্যস্ত মিথ্যা কথা বলায়। বিশেষ করে প্রেম-ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্রে, ক্যারিয়ারে উন্নতি, অর্থ উপার্জন, কারো সঙ্গে শত্রুতা, কোন বাড়তি সুবিধা পাওয়া ইত্যাদি কারণেই মানুষ মিথ্যা বলে থাকে।

এই প্রতিবেদন থেকে চলুন জেনে নিই, এমন কিছু মিথ্যা কথা, যে গুলোতে নারীরা বেশি বলে থাকে। হোক সে স্বপ্নের পুরুষ কিংবা স্বামীর তার ব্যাপারে এই মিথ্যা গুলো বেশির ভাগ নারীই বলে থাকেন।

১. সঠিক বয়স

সকল নারীরাই আসল লুকিয়ে থাকেন। পুরুষদের সামনে বয়স লুকোতে তারা দ্বিধা করেন না। নিজের বয়স কিছুটা কমিয়ে বলতে বেশ পটু নারীরা।

২. প্রাক্তন প্রেম

বর্তমান প্রেমিক বা স্বামীর কাছে প্রাক্তন প্রেমিকের ব্যাপারে সত্য কোনো নারীই বলেন না। নারীরা এটাও কখনো স্বীকার করেন না যে প্রাক্তন প্রেমিকের কথা তিনি আজও ভুলতে পারেননি। বর্তমান প্রেমিক বা স্বামীকে খুশি করতে এমনটি করেন তারা।

৩. সোশ্যাল মিডিয়ায় যা দেখান

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের জীবনের ব্যাপারে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য পরিবেশন করে থাকেন বহু সংখ্যক নারী। সোশ্যাল মিডিয়ায় নারীরা ফেক ছবি, অন্যের ছবি, নিজের ফিগারের ব্যাপারে মিথ্যা বলে থাকেন। নারীরা এসব করে থাকেন শুধুমাত্র অন্যের মনোযোগ আকর্ষণ করার জন্য ও নিজেকে সেরা প্রমাণের জন্য। অনেকে আবার দেখান যে তিনি খুব বেশি সুখী, অনেকেই আবার দেখাতে চান যে তিনি খুব বেশি দুঃখী। অথচ দুটির একটিও সত্য নয়।

৪. অন্য নারীর ব্যাপারে

অন্য নারীদের ব্যাপারে অনেক নারীই নিজের স্বপ্নের পুরুষ, প্রেমিক বা স্বামীকে অধিক বানিয়ে মিথ্যে কথা বলে থাকেন। এর একটাই কারণ হচ্ছে, ঈর্ষা ও নিজের মনের মাঝে হারিয়ে ফেলার ভয়। অধিকাংশ নারীরাই চান না যে প্রেমিক বা স্বামীর চোখে অন্য কোন নারীকে তার চাইতে বেশি ভালো মেয়ে মনে হচ্ছে।

৫. স্বামীর উপার্জন

আমাদের সমাজে নারীরা তার স্বামীর উপার্জন নিয়ে প্রায়ই মিথ্যা কথা বলেন। এক্ষেত্রে নারীরা একটুখানি বাড়িয়ে বলতে পছন্দ করে, অনেকে আবার অধিক বাড়িয়ে বলেন, কেননা- আমাদের সমাজে এখনো স্বামীর উপার্জন দিয়েই স্ত্রীর সম্মান বিচার করে সকলে এমনটাই থেকেই তারা মিথ্যা বলেন।

৬. নিজের সৌন্দর্যের ব্যাপারে

বেশির ভাগ নারীই তার সৌন্দর্য ধরে রাখার জন্য চেষ্টা করেন, এক্ষেত্রে তারা কোনো ত্রুটি করেন না। নানান রকম রূপচর্চা, পার্লারে যাওয়া ও ডায়েট চলতেই থাকে। কিন্তু নারীরা কখনোই এ তথ্য কাউকে জানান না। নিজেকে প্রাকৃতিক সুন্দরী প্রমাণ করতে বেশির ভাগ নারীই মিথ্যা বলেন, বিশেষ করে প্রেমিক বা স্বামীর সামনে। নিজের সৌন্দর্যের রহস্য কোনো নারীই কাউকে
পুরোপুরি জানায় না।

৭. নিজের দোষ অস্বীকার

নারীরা নিজের দোষ স্বীকারে ক্ষেত্রেও পারদর্শী। বিশেষ করে প্রেমিক বা স্বামীর সামনে নারীরা কখনোই নিজের দোষ স্বীকার করেন না। উল্টো ঘুরিয়ে ফিরিয়ে এদিক সেদিক করে এটাই প্রমাণ করতে চান যে অন্য আর সকলেই দোষী, কিন্তু তিনি দোষী নন।

পরিশেষে এটাই বলতে চাই যে, মিথ্যা তো মিথ্যাই। কাউকে কোনো কিছু না বলতে চাইলে তাকে মিথ্যা না বরং এড়িয়ে যাওয়ায় উত্তম। আমরা তো সকলেই জানি, মিথ্যা বলায় বুদ্ধিমত্তার কিছু নেই। সূত্র ইন্টারনেট।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: