মঙ্গলবার, ২১ অগাস্ট ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অনুমতি ছাড়া সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেপ্তার নয়  » «   দেশের উন্নতির জন্য বিলাসীতা ত্যাগের ঘোষণা ইমরানের  » «   ঈদে ৮ দিন ২৪ ঘণ্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশন খোলা  » «   আজ আরাফার দিন, কিছু আমল যা আপনিও করতে পারবেন  » «   সিলেটে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশী তাপমাত্রা, সতর্ক থাকার পরামর্শ  » «   সুনামগঞ্জে বাস চাপায় কলেজ ছাত্রী নিহত,দুই শিশুসহ আহত ৪  » «   ইরানে অভ্যুত্থান ঘটানোর সকল মার্কিন চেষ্টা ব্যর্থ হবে: জারিফ  » «   নাইজেরিয়ায় বোমা হামলায় নিহত ১৯  » «   মেঘনা তেল ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২  » «   ভোটার হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন কুয়েত, সিঙ্গাপুর ও যুক্তরাজ্যের প্রবাসীরা  » «   ঘন্টায় ১৮০ কিমি বেগে টোকিওর দিকে ঘূর্ণিঝড় ‘শানশান’  » «   মক্কায় ভারী বৃষ্টিপাতে বন্যার আশঙ্কা  » «   ক্যারিয়ার গড়তে রাজনীতিতে আসিনি: ইমরান খান  » «   সীমান্তে ভারী অস্ত্র-সেনা বাড়াচ্ছে মিয়ানমার, সতর্ক বিজিবি  » «   সন্তান জন্ম দিতে সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গেলেন মন্ত্রী  » «  

নবীগঞ্জে রাতের আধারে ১১০টি গাছ কর্তন



নিউজ ডেস্ক::নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের আলমপুর দূর্লভ ঠাকুরের আখড়ার শতাধিক গাছ কর্তন করে ফেলেছে দূর্বৃত্তরা। এই ঘটনায় সনাতন ধর্মালম্বী ও আখড়া কমিটির লোকজনের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় বইছে।

জানা যায়, উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামের দূর্লভ ঠাকুরের আখড়ার সীমানা প্রাচীর বাশের বেড়া ও ১১০টি আকাশি গাছের চাড়া রাতের আধারে কর্তন করেছে একদল দূর্বৃত্ত।

এ ঘটনায় আখড়ার সেবায়িত কৃষ্ণদাশ বৈষ্ণব এ প্রতিবেদককে জানান, আখড়ার সীমানা প্রাচীর বাশের বেড়া দিয়ে প্রায় বছর খানেক পূর্বে আখড়ার নিজস্ব ভূমিতে গাছ রোপন করেন সেবায়িত। এই গাছ রোপন এর পরে ও বাশের বেড়া তুলে মন্দীরের নিকটবর্তী স্থান দিয়ে আসা যাওয়ার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য গ্রামের পঞ্চায়েত পক্ষে বিশিষ্ট মুরুব্বী হাজী মছদ্দর আলী ও সিতার মিয়া গংদের নিকট আকুল আবেদন জানায় একই গ্রামের মৃত হরমন নমসূত্রের পূত্র হরি নমসূত্র।

এরই প্রেক্ষিতে পঞ্চায়েত পক্ষের পক্ষ থেকে সেবায়িতের সাথে আলাপ আলোচনা করে মোঃ সিতার মিয়া, হরি নমসূত্রের সুবিধার্থে কিছু অংশের বাশের বেড়া তুলে আসা যাওয়ার সুযোগ করে দেন গত বৃহস্পতিবারে, তবে আখড়ার সেবায়িত আরো বলেন, পঞ্চায়েত পক্ষের মিমাংশায় হরি নমসূত্রের মন ভরেনি, সে ও তার পরিবার প্রায় ৪০ বৎসর যাবত ঐ আখড়ার ভূমিতেই বসবাস করছে।

আবার সীমানা প্রাচীর বেড়া দেওয়ার জেড় ধরে হরি নমসূত্র রাতের আধারে ১১০টি গাছ নির্বিচারে কর্তন করে ফেলে। তাকে এই বিষয়ে আখড়া কমিটির পক্ষ থেকে কয়েক দফা সামাজিক বিচারের আওতার আনার জন্য চেষ্টা করলেও সে সবাইকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে। এ ব্যাপরে অভিযুক্ত হরি নমসূত্রের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: