মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
লন্ডনে দ্বিতীয় জনপ্রিয় ভাষা বাংলা  » «   ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে সাব-রেজিস্ট্রার আটক  » «   আর কোনো হায়েনার দল বাংলার বুকে চেপে বসতে পারবে না  » «   সিলেটে মুক্তিযুদ্ধের পাণ্ডুলিপি সংগ্রহ করলেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   ফের জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি সালমা ইসলাম এমপি  » «   বিয়ানীবাজারে ৯৯০ পিস ইয়াবাসহ পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   আয়কর দিবস উপলক্ষে সিলেটে বর্ণাঢ্য র‌্যালি  » «   এবার শ্রীমঙ্গলে ট্রেনের ইঞ্জিনে আগুন  » «   বেলজিয়ামে মসজিদে তালা দেওয়ায় বাংলাদেশিদের প্রতিবাদ  » «   পায়রা উড়িয়ে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সম্মেলন উদ্বোধন  » «   ভারতের অর্থনীতির দুরবস্থা, জিডিপি কমে সাড়ে ৪ শতাংশ  » «   পায়রা উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা  » «   লন্ডন ব্রিজে আবারও সন্ত্রাসী হামলা, নিহত ২  » «   চীন থেকে মা-বাবার জন্য পেঁয়াজ নিয়ে এলেন মেয়ে  » «   রক্তে ভাসছে ইরাক, নিহত ৮২  » «  

নওগাঁয় অবৈধ স্থাপনা দখলমুক্ত করতে অভিযান



নওগাঁয় সড়ক ও জনপদ (সওজ) বিভাগ রাজশাহী-নওহাটা-চৌমাসিয়া মহাসড়কের ওপর অবৈধভাবে জায়গা দখল করে গড়ে উঠা স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিনব্যাপী জেলার মান্দা উপজেলার নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়ক ফেরীঘাট মোড় সংলগ্ন সড়কের উভয় পাশে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
সওজ ঢাকা জোনের এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা (উপ-সচিব) মাহবুবুর রহমান ফারুকীর নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

মান্দার ফেরীঘাটে সড়কের উভয় পাশে দীর্ঘ দিন থেকে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনায় যানজটের সৃষ্টি হতো। ভোগান্তিতে পড়তে হতো পথচারীদের। পূর্ব ঘোষিত নির্দেশনা অনুযায়ী সওজ কর্তৃপক্ষ মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে অবৈধভাবে গড়ে উঠা স্থায়ী স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়। এ ছাড়া টিনশেড দিয়ে তৈরি স্থাপনাগুলো অনেকে নিজেরাই সরিয়ে নিয়েছেন। এ সময় খাবারের হোটেল, চা স্টল, আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়, মুদি দোকান, যাত্রীছাউনিসহ প্রায় দুই শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা করা হয়।

স্থাপনাগুলো দখলমুক্ত হওয়ায় স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে এক ধরনের স্বস্তি ফিরে এসেছে। স্থানীয় আব্দুল আলিম নামে এক ব্যাক্তি উচ্ছেদের অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, কিছু প্রভাবশালী মহল দীর্ঘদিন থেকে সওজের এ জায়গাগুলো টাকার বিনিময়ে দোকান করার জন্য দিয়েছিল। উচ্ছেদের পর আবার যেন ওই মহল জায়গা দখল করতে না পারে এজন্য কর্তৃপক্ষের নজর দেওয়ার অনুরোধ করেছেন।

ট্রাক ড্রাইভার ভুট্টো বলেন, রাস্তার ধারে সামান্য সময়ের জন্য ট্রাক রেখে চা খেতে গেলে অবৈধভাবে গড়ে দোকানদার অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করত। আবার ট্রাক একটু দূরে রেখে এসে দোকানে কিছু খেতে গেলে দেখা যেত ট্রাক থেকে কিছু না কিছু চুরি হয়। রাস্তাঘাট এখন অনেক পরিস্কার হয়েছে। যানজটও মুক্ত হয়েছে।
উপ-সচিব মাহবুবুর রহমান ফারুকী বলেন, সওজের এ অধিগ্রহণকৃত জমিগুলোতে অবৈধভাবে স্থাপনা গড়ে উঠেছিল। নিয়মিত উচ্ছেদের অংশ হিসেবে পূর্ব ঘোষিত পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তির প্রেক্ষিতে এ অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করা হয়। এতে যানবাহন ও জানসাধারণ সুষ্ঠুভাবে চলাচল করতে পারবে। অনেক প্রভাবশালীরা স্থায়ীভাবে স্থাপনা গড়ে তুলেছিল। সেগুলো উচ্ছেদই হচ্ছে আমাদের মূল লক্ষ্য।

পরবর্তীতে যেন আর অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠতে না পারে এজন্য নিয়মিত অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নওগাঁর নির্বাহী প্রকৌশলী (সওজ) মোহাম্মদ হামিদুল হক, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আবুল মুনসুর আহম্মেদ, উপ-সহকারী প্রকৌশলী প্রণব কুমার, মান্দা উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার ফয়সাল আহম্মেদসহ সড়ক বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী বৃন্দ এবং স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: