রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ করার খবরটি ‘টোটালি ফলস’  » «   শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে: খাদ্যমন্ত্রী  » «   জামায়াত নতুন নামে পুরনো চরিত্রে ফিরে আসে কিনা তা ভাবনার বিষয়  » «   সুস্থ থাকলে শেখ হাসিনার বিকল্প দরকার নেই  » «   নন্দলালের ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন না: ইসি রফিকুল  » «   এমপি হিসেবে শপথ নিলেন সৈয়দ আশরাফের বোন ডা. জাকিয়া  » «   রোহিঙ্গাদের নৃশংসতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান মিয়ানমার সেনাপ্রধানের!  » «   যেসব শর্তে আত্মসমর্পণ করছেন ১০২ ইয়াবা ব্যবসায়ী  » «   নাসা আ্যপস চ্যালেঞ্জে বিশ্বসেরা শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়  » «   বাংলা একাডেমিতে আল মাহমুদের মরদেহ, শ্রদ্ধা নিবেদন  » «   আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে জোবায়ের অনুসারীদের ইজতেমা শেষ  » «   যেভাবে ভারতীয় সেনাবহরে হামলা চালায় জঙ্গিরা  » «   রোহিঙ্গা নিপীড়ন তদন্তে মার্চে বাংলাদেশ আসছে আইসিসি প্রতিনিধিদল  » «   ব্যাটিং ব্যর্থতায় সিরিজ হার বাংলাদেশের  » «   যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করলেন ট্রাম্প  » «  

ধর্ষণের জবানবন্দী দিয়েছেন দুই শিক্ষার্থী



নিউজ ডেস্ক: ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম শেখ হাফিজুর রহমানের কাছে বনানী থানায় ধর্ষণ মামলায় জবানবন্দী দিচ্ছে ঘটনার শিকার বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই দুই শিক্ষার্থী। সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টার থেকে ঢাকা মহানগর হাকিম নুরুন্নাহার ইয়াসমিন শিক্ষার্থীদের জবানবন্দী রেকর্ড করছেন।

উল্লেখ্য, ২৮ মার্চ দি রেইন ট্রি হোটেলে সাফাত আহমেদ নামে এক বন্ধুর জন্মদিনে যোগ দিতে গিয়েই বন্ধুদের যোগসাজশে ধর্ষণের শিকার হন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া দুই ছাত্রী। এ ঘটনায় গত ৪ মে ভুক্তভোগী ওই দুই তরুণী বনানী থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। বিষয়টি তদন্ত করে মামলা নেওয়া হয় ৬ মে। ভুক্তভোগী তরুণীদের একজন বাদী হয়ে মামলাটি করেন। আসামিদের মধ্যে আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, রেগনাম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. হোসাইন জনির ছেলে সাদমান সাকিফ এবং ধনাঢ্য ঘরের নাঈম আশরাফ রয়েছেন। তবে নাঈমের বাবার নাম নিশ্চিত হতে না পারলেও তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ বলে নিশ্চিত হয়েছেন তদন্ত-সংশ্লিষ্টরা।

গত ৭ মে থেকে সাফাতসহ পাঁচ আসামি একে অন্যের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে। ফলে তাদের অবস্থান শনাক্তে বেগ পেতে হচ্ছে। বনানীর ‘দি রেইন ট্রি’ হোটেলে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বন্ধুদের যোগসাজশে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার ৯ মে বিকালে তদন্তভার পায় পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার। বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছেন পরিদর্শক ইসমত আরা এমি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: